যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়

কলকাতার অন্যতম প্রধান বিশ্ববিদ্যালয় তথা ভারতের একটি অগ্রণী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতার অন্যতম প্রধান বিশ্ববিদ্যালয় । দক্ষিণ কলকাতার যাদবপুরে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষাপ্রাঙ্গণটি অবস্থিত। দ্বিতীয় নবনির্মিত শিক্ষাপ্রাঙ্গনটি চালু হয়েছে কলকাতার পার্শ্ববর্তী বিধাননগরে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ইন্ডিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য কালটিভেশন অফ সায়েন্সসেন্ট্রাল গ্লাস অ্যান্ড সেরামিকস রিসার্চ ইনস্টিটিউট-এর মতো অগ্রণী গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সংযুক্ত।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়
পূর্বনাম: কলেজ অফ ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি
যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো.svg
ধরনসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত১৯০৬: জাতীয় শিক্ষা পর্ষদ
১৯৫৫': যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়
আচার্যপশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল
উপাচার্যসুরঞ্জন দাশ
রেজিস্ট্রারস্নেহমঞ্জু বসু[১]
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
৮৫০ (প্রায়)
স্নাতক৫০০০ (প্রায়)
স্নাতকোত্তর৪০০০ (প্রায়)
অবস্থান, ,
শিক্ষাঙ্গনযাদবপুর (নগরাঞ্চলীয় ; ৫৮ একর)
বিধাননগর (শহরতলীয়; ২৬ একর)
অনুমোদন
সংক্ষিপ্ত নামযা.বি. (JU)
ওয়েবসাইটhttp://www.jaduniv.edu.in/
গ্রাজুয়েট চারু ও বিজ্ঞান ভবন

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯০৫ সালে ব্রিটিশ ভারতে জাতীয় শিক্ষা পর্ষদ স্থাপিত হয়। ১৯১০ সালে, সোসাইটি ফর দ্য প্রোমোশন অফ টেকনিক্যাল এডুকেশন বঙ্গে "বেঙ্গল টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউট" প্রতিষ্ঠা করে। ১৯২০ সালে এটিকে "কলেজ অফ ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি, বেঙ্গল" নামে নামকরণ করা হয়।

স্বাধীনতার পর, ১৯৫৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর ভারত সরকারের সম্মতিতে পশ্চিমবঙ্গ সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে।

অবস্থানসম্পাদনা

বিশ্ববিদ্যালয়টি রাজ্য সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত এবং এর প্রধান ক্যাম্পাস যাদবপুর-এ অবস্থিত।এটি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কলকাতা শহরে অবস্থিত।

বিভাগসম্পাদনা

কারিগরি ও প্রযুক্তি শাখাসম্পাদনা

  • প্রাপ্তবয়স্ক এবং অব্যাহত শিক্ষা ও সম্প্রসারণ
  • স্থাপত্য
  • রাসায়নিক কারিগরি
  • পুরকৌশল (সিভিল)
  • কম্পিউটার বিজ্ঞান ও কারিগরি শিক্ষা
  • নির্মাণ প্রকৌশল
  • বৈদ্যুতিক কারিগরি বিদ্যা
  • ইলেক্ট্রনিক্স ও টেলিযোগাযোগ প্রকৌশল
  • খাদ্য-প্রযুক্তি ও জৈব রসায়ন
  • তথ্য ও প্রযুক্তি
  • ইন্সট্রুমেন্টেশন ও ইলেকট্রনিক্স প্রকৌশল
  • যন্ত্র প্রকৌশল
  • ধাতুবিদ্যা সংক্রান্ত কারিগরি বিদ্যা
  • ফার্মাসিউটিকাল প্রযুক্তি
  • শক্তি প্রকৌশল
  • মুদ্রণ কারিগরি
  • উৎপাদন প্রকৌশল

কলা শাখাসম্পাদনা

খ্যাতনামা শিক্ষকসম্পাদনা

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের খ্যাতনামা বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষকদের মধ্যে রয়েছেন -

সমালোচনা ও বিতর্কসম্পাদনা

এই প্রতিষ্ঠানটি ছাত্র রাজনীতির অন্যতম পীঠস্থান বলে গণ্য। বিভিন্ন সময় বাম ছাত্র আন্দোলন গড়ে উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পঠন-পাঠন সংক্রান্ত নানা অসুবিধাকে কেন্দ্র করে, নানা সামাজিক ঘটনা নিয়ে।

নানান কারণে ছাত্র আন্দোলন বা ভরতি প্রক্রিয়া নিয়ে হোক, বদনামও কম নেই এই বিশ্ববিদ্যালয়ের । প্রধানত টানা ছাত্রআন্দোলনের জেরে, প্রায়ই বিশ্ববিদ্যালয়ে অচলাবস্থা তৈরি হয়। রাজ্য প্রশাসন, প্রবেশিকা পরীক্ষা থেকে শুরু করে ডোমিসাইল সিস্টেম চালু নিয়ে নানান বিতর্কের নজির রয়েছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে। পাশাপাশি ছাত্রনির্বাচনের দাবিতে টানা আন্দোলন করেছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়ারা, ঘেরাও হতে হয়েছে উপাচার্যকেও। আন্দোলন আর অচলাবস্থার পরেও রাজ্যের মেধাবী পড়ুয়ারা ভিন শহরের নামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে বেছে নিচ্ছেন। [২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা