যশ (অভিনেতা)

ভারতীয় অভিনেতা

নবীন কুমার গৌড়া, (৮ জানুয়ারি ১৯৮৬) তার মঞ্চ নাম যশ হিসাবেই সবচেয়ে বেশি পরিচিত, হচ্ছে একজন ভারতীয় কন্নড় চলচ্চিত্র অভিনেতা। তিনি রাজধানী, মিঃ অ্যান্ড মিসেস রামচারী, কিরটাকা, কেজিএফ: চ্যাপ্টার ওয়ান চলচ্চিত্রগুলোতে তার চরিত্রের জন্য পরিচিত। তাঁর সর্বশেষ চলচ্চিত্র কেজিএফ: চ্যাপ্টার টু ২০২০ সালের জুলাইয়ে মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।[১][৩][৪]

যশ
Yash Kannada actor.jpg
জন্ম
নবীন কুমার গৌড়া[১]

(1986-01-08) ৮ জানুয়ারি ১৯৮৬ (বয়স ৩৫)[২]
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাঅভিনেতা
কর্মজীবন২০০৭–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীরাধিকা পণ্ডিত
সন্তান

যশ মোগগিনা মনসু (২০০৮) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র শিল্পে আত্মপ্রকাশ করেন, তিনি তার ভবিষ্যতের স্ত্রী রাধিকার বিপরীতে প্রধান পুরুষ ভূমিকায় অভিনয় করেন। চলচ্চিত্রটি সফল হয় এবং তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন। তিনি মোদালসালা (২০১০), রাজধানী (২০১১), কিরটকা (২০১১), ড্রামা (২০১২), গুগলি (২০১৩), রাজা হুলি (২০১৩), গাজাকেসারি (২০১৪), মিঃ অ্যান্ড মিসেস রামচারী (২০১৪), মাস্টার পিস (২০১৫) ও কেজিএফ: চ্যাপ্টার ওয়ানসহ অনেক বাণিজ্যিকভাবে সফল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তার সফলতার উত্থান গণমাধ্যম কর্তৃক ভালোভাবে প্রামাণ্যয়িত করা হয়েছে, এবং তাকে দক্ষিণ ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।[৫][৬]

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

যশ ১৯৮৬ সালের ৮ জানুয়ারি নবীন কুমার গৌড়া হিসাবে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি কর্ণাটকের হাসান শহরের একটি নিকটবর্তী গ্রাম ভুবনাহাল্লিতে কন্নড় ভাষিক সম্প্রদায়ে জন্মগ্রহণ করেন।[৭] তাঁর বাবা অরুণ কুমার জে., কেএসআরটিসি পরিবহন সেবা ও পরে বিএমটিসি পরিবহন সেবায় চালকের পদে কাজ করতেন, এবং তাঁর মা পুষ্প লতা একজন গৃহিণী।[৮] তার নন্দিনী নামে একটি ছোট বোন রয়েছে। তাঁর শৈশবের দিনগুলো মহীশূরে কাটিয়েছিলেন, যেখানে তিনি মহাজন উচ্চ বিদ্যালয়ে তাঁর বিদ্যালয়-শিক্ষা সম্পন্ন করেন। পড়াশোনার পরপরই তিনি বেনাকা নাটকের সঙ্গে যোগ দেন, যা বিখ্যাত নাট্যকার বি ভি. করান্থ দ্বারা নির্মিত হয়েছিল।[৯]

কর্মজীবনসম্পাদনা

প্রাথমিক দিনসম্পাদনা

যশ তার অভিনয় কর্মজীবন শুরু করেন ইটিভি কন্নড়ে প্রচারিত অশোক কাশ্যপ পরিচালিত টেলিসিরিয়াল নন্দ গোকুলার মাধ্যমে। তিনি মেলবিল্লু এবং প্রীতি ইল্লদা মেলের মতো আরও বেশ কয়েকটি টেলিসিরিয়ানে অভিনয় করেছেন।[১০] ২০০৭ সালে প্রিয়া হাসান পরিচালিত জাম্ভাদা হুদুগি চলচ্চিত্রে একটি ছোট ভূমিকা পালন করেন। পরে তিনি ২০০৮ সালে শশাঙ্ক পরিচালিত মজ্ঞিনা মানাসু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন, যেখানে তিনি তাঁর নন্দ গোকুলকো চলচ্চিত্রের তারকা রাধিকা পণ্ডিতের বিপরীতে একটি পার্শ্ব চরিত্রে হাজির হন। চলচ্চিত্র তার অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন।[১১] এরপর যশ রকি (২০০৮), কল্লারা সানথে (২০০৯), গোকুলা (২০০৯) চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন।

২০১০ সালে, যশ মোডালসালায় অভনয় করেন, যা তার প্রথম একক বাণিজ্যিক হিট হয়ে ওঠে। তার পরবর্তী চলচ্চিত্র ২০১১ সালে রাজধানী ছিল, যা ভাল পর্যালোচনায়ও পায়[১২] এবং তার অভিনয় সমালোচকদের দ্বারা প্রশংসিত হয়[১৩] যদিও বক্স অফিসে চলচ্চিত্রটি ফিরতি গড়ের চেয়ে কম আয় করে। একই বছর তাঁর পরবর্তী চলচ্চিত্র কিরাতকা বাণিজ্যিকভাবে সফলতা পেয়েছিল। যশ গ্রাম্য কৌতুক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য ইতিবাচক পর্যালোচনা পান।[১৪][১৫][১৬] ২০১২ সালে যশের লাকি (রম্যর বিপরীতে) ও জানু নামের দুটি বড় চলচ্চিত্র মুক্তি পায়, দুটি চলচ্চিত্রই মুক্তি পর মিশ্র প্রতিক্রিয়া পায়[১৭] এবং বক্স অফিসে গড় উপার্জনকৃত চলচ্চিত্র হয়ে ওঠে।[১৮][১৯][২০] একই বছরের তার পরবর্তী চলচ্চিত্র যোগরাজ ভাট পরিচালিত প্রণয়ধর্মী কৌতুক চলচ্চিত্র ড্রামা বাণিজ্যিকভাবে সাফল্য পেয়েছিল। চলচ্চিত্রটি ২০১২ সালের অন্যতম প্রধান উপার্জনকারী ছিল।[২১]

২০১৩–২০১৬: সফলতা ও অর্জনসম্পাদনা

২০১৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত তার প্রথম চলচ্চিত্র প্রণয়ধর্মী-নাট্য গুগলি, যেখানে তিনি স্বতীর প্রেমে পড়েন (কৃতি খরবন্দা অভিনীত)। পবন ওয়াদিয়ারের পরিচালিত এই চলচ্চিত্রটি বক্স অফিসে দুর্দান্ত ব্যবসা করে এবং বছরের সবচেয়ে বেশি আয় করা কন্নড় চলচ্চিত্রের মধ্যে অন্যতম হয়।[২২] এছাড়াও তিনি চন্দ্র চলচ্চিত্রের একটি গানে বিশেষ উপস্থিত হন।[২৩] ২০১৪ সালে তিনি গাজাকেসারি চলচ্চিত্র অভিনয় করেন, যা পরিচালনা করেন কৃষ্ণা, এবং বক্স অফিসে ব্যবসায়িকভাবে সফল হয়ে উঠে।[২৪]

যশের পরবর্তী চলচ্চিত্র মিঃ অ্যান্ড মিসেস রামচারী, যেখানে তার বিপরীতে অভিনয় করেন রাধিকা পণ্ডিত, এটি ২০১৪ সালের ২৫ ডিসেম্বর প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। এটি ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পায় এবং প্রায় ৫০ কোটি আয় করে।[২৫] চলচ্চিত্রটি সর্বোচ্চ আয়ের কন্নড় চলচ্চিত্র হয়ে ওঠে, যা তাকে স্যান্ডালউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত অভিনেতা হিসাবে স্থান দেয়।[২৬][২৭][২৮] ২০১৫ সালে তিনি মাস্টারপিস চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন, যা মুক্তির পর সমালোচকদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া পায় এবং বক্স অফিসে বাণিজ্যিকভাবে হিট হিসাবে আত্মপ্রকাশ করে।[২৯] ২০১৬ সালে তিনি সন্তু স্ট্রেইট ফরওয়ার্ড চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন, যা ৩০ কোটি সংগ্রহ করে বক্স-অফিসে বেশ ভালো ব্যবসা করে।[৩০]

২০১৮–বর্তমানসম্পাদনা

২০১৮ সালে তিনি কেজিএফ: চ্যাপ্টার ওয়ানে অভিনয় করেন, যা কন্নড়ের সঙ্গে হিন্দি, তেলুগু, তামিলমালয়ালম ভাষার ডাবিং সংস্করণও মুক্তি পায়, কন্নড় চলচ্চিত্র শিল্পে সর্বাধিক নির্মাণ বাজেট ছিল, এবং ২৫০ কোটিও অধিক আয় করে, কন্নড় শিল্পে সর্বাধিক উপার্জনকারী চলচ্চিত্র হিসাবে আবির্ভূত হয়।[৩১]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

গণমাধ্যমে জল্পনা-কল্পনা ছিল যে দীর্ঘদিন ধরেই অভিনেত্রী রাধিকার সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে, বিশেষ করে তাদের চলচ্চিত্র মিঃ অ্যান্ড মিসেস রামাচারীর পর, যেখানে তাদের প্রধান চরিত্রে দেখা যায়, এবং তারা তৃতীয়বারের মতো একসাথে চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।[৩২] দুজনে এটি প্রকাশ্যে প্রকাশের আগে, ২০১৬ সালের ১২ আগস্ট তাদের বাগদানটি সম্পন্ন করেন।[৩৩] ২০১৬ সালের ৯ ডিসেম্বর বেঙ্গালুরুতে একটি ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তারা, যশ বেঙ্গালুরুর প্রাসাদে তাদের সংবর্ধনার জন্য কর্ণাটকের প্রত্যেককে প্রকাশ্যেই আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।[৩৪] তাদের প্রথম সন্তান, মেয়ে আইরা, ২০১৮ সালের ২ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন।[৩৫] তাদের দ্বিতীয় সন্তান, একটি ছেলে সন্তান ২০১৯ সালের ৩০ অক্টোবর জন্মগ্রহণ করে।

অন্যান্য কাজসম্পাদনা

২০১৭ সালে যশ তাঁর অভিনেত্রী স্ত্রী রাধিকা পণ্ডিতসহ একটি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন এবং এর নামকরণ করেন যশো মার্গা ফাউন্ডেশন যা তাদের সামাজিক উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখে।[৩৬] প্রথম পদক্ষেপ হিসাবে, ফাউন্ডেশনটি কর্ণাটকের কোপাল জেলায় পানি সঙ্কটের বিষয়টি নেয় বলে জানা যায় যে হ্রদগুলোর প্রশস্ত ও খরা ক্ষতিগ্রস্থ অঞ্চলে বিশুদ্ধ পানীয় সরবরাহ করার জন্য ৪ কোটি রুপি বিনিয়োগ করে।[৩৭]

চলচ্চিত্রসম্পাদনা

চাবি
  এই চলচ্চিত্রগুলো এখনও মুক্তি পায় নি বুঝানো হয়েছে

সবগুলো চলচ্চিত্র কন্নড় ভাষায়, এছাড়া অন্যগুলো উল্লেখ করা হলো।

শিরোনাম বছর ভূমিকা পরিচালক টীকা সূত্র
জাম্বাদা হুদুগি ২০০৭ অজানা প্রিয়া হাসান অস্বীকৃত ভূমিকা
মোগিনা মানাসু ২০০৮ রাহুল শশাঙ্ক চলচ্চিত্রে অভিষেক [৩৮]
রকি রকি এস. কে. নাগেন্দ্র আর্স
কল্লারা সানথে ২০০৯ সমু সুমনা কিট্টুর
গোকুলা রাজা প্রকাশ
থামাসসু ২০১০ ইমরান অগ্নি শ্রীধর বিশেষ উপস্থিতি
মোডলসালা কার্তিক পুরুষোত্তম সি. সোমনাথপুরা
রাজধানী ২০১১ রাজা সৌম্য সত্যন এন. আর.
কিরাটকা নন্দিশা প্রদীপ রাজ
লাকি ২০১২ বিক্রম / লাকি ড. সুরি
জানু সিদ্ধার্থ প্রীতম গুব্বি
ড্রামা টি. কে. ভেঙ্কটেশ্ব যোগরাজ ভাট
চন্দ্র ২০১৩ স্বভূমিকা রুপা আয়ার দোভাষীক (কন্নড়, তামিল)
"তাসসে অত্থু", "রাজা রাজান" গানে বিশেষ উপস্থিতি
গুগলি শরৎ পবন ওয়াদিয়ার
রাজা হুলি রাজা হুলি গুরু দেশপাণ্ডে
গাজাকেসারি ২০১৪ কৃষ্ণ / বাহুবলী এস. কৃষ্ণা দ্বৈত ভূমিকা
মিঃ অ্যান্ড মিসেসঃ রামচারি রামচারি সন্তোষ আনন্দদ্রাম "অন্থাম্মা" গানে নেপথ্যে গায়কও
মাস্টারপিস ২০১৫ যুবা মঞ্জু মন্দব্য "অ্যানেজ লাভ আগিড়ে" গানে নেপথ্য গায়কও
সান্তু স্ট্রেইট ফরওয়ার্ড ২০১৬ সান্তু মহেশ রাও [৩৯]
কেজিএফ: চ্যাপ্টার ওয়ান ২০১৮ রাজা কৃষ্ণাপ্পা বাইর‍্যা "রকি" প্রশান্ত নীল [৪০]
কেজিএফ: চ্যাপ্টার টু ২০২০ [৪১]
[৪২]

টেলিভিশনসম্পাদনা

বছর শিরোনাম ভূমিকা টীকা সূত্র
২০০৪ উত্তরায়ণ [৪৩]
২০০৪ নন্দ গোকুলা [৪৪]
২০০৪ সিল্লি লাল্লি
২০০৫ শিবা (দূরদর্শন)
২০০৬ প্রীতি ইল্লাড়া মেলে [৪৫]
২০০৭ মেলে বিল্লু
২০০৭ সা

সঙ্গীত ভিডিও উপস্থিতিসম্পাদনা

শিরোনাম বছর সুরকার পরিচালক ভূমিকা টীকা সূত্র
স্প্রিরিট অফ চেন্নাই ২০১৬ সি. গিরিনন্ধ বিক্রম স্বভূমিকা non-album single [৪৬]

পুরস্কার ও মনোনয়নসম্পাদনা

বছর[ক] চলচ্চিত্র পুরস্কার বিভাগ ফলাফল সূত্র
২০০৯ মোগিনা মানাসু ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা – কন্নড় বিজয়ী [৪৭]
২০১৩ ড্রামা ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় মনোনীত [৪৮]
২০১৪ গুগলি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় মনোনীত [৪৯]
গুগলি সিমা শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় মনোনীত [৫০]
২০১৫ মিঃ অ্যান্ড মিসেস রামচারি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় বিজয়ী [৫১]
ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী - কন্নড় "আন্নথাম্মা" মনোনীত
সিমা শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় বিজয়ী [৫২]
২০১৬ ইফা উৎসবাম শ্রেষ্ঠ মূখ্য ভূমিকায় অভিনয় – কন্নড় বিজয়ী [৫৩]
মাস্টারপিস ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় মনোনীত [৫৪]
সিমা শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় মনোনীত [৫৫]
ইফা উৎসবাম শ্রেষ্ঠ মূখ্য ভূমিকায় অভিনয় – কন্নড় মনোনীত
ইফা উৎসবাম "অ্যানেজ লাভ আগিড়ের" জন্য শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী - কন্নড় মনোনীত
জি কন্নড় দেশাকাড়া সম্ভ্রমা হিরো অব দ্য ডিকেড - কন্নড় বিজয়ী
২০১৭ সান্তু স্ট্রেইট ফরওয়ার্ড সিমা শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় মনোনীত [৫৬]
২০১৮ কেজিএফ: চ্যাপ্টার ওয়ান ফিল্মিবিট শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় মনোনীত
২০১৯ জি কন্নড় হেম্মেয়া কানডিগা শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় বিজয়ী
সিমা শ্রেষ্ঠ অভিনেতা – কন্নড় বিজয়ী
সিমা দক্ষিণ ভারতের স্টাইল আইকন বিজয়ী
দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার দক্ষিণ বছরের অনবদ্য অবদানের জন্য বিজয়ী
জিকিউ৫০ সবচেয়ে প্রভাবশালী ভারতীয় যুবক বিজয়ী [৫৭]
সিদ্ধাশ্রী জাতীয় পুরস্কার সমাজসেবায় অর্জন বিজয়ী
কন্নড় কালা ভুষণ চলচ্চিত্রে অর্জন বিজয়ী
বিহাইন্ডউডস স্বর্ণপদক দক্ষিণ ভারতীয় চলচ্চিত্রের সংবেদন বিজয়ী
টিভি৯ কন্নড় নব নক্ষত্র বিজয়ী
ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা - কন্নড় বিজয়ী [৫৮]

Footnotesসম্পাদনা

  1. Refers to the year in which the award ceremony was held.

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Who is Naveen Kumar Gowda in Sandalwood? - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১১ 
  2. "Yash: Movies, Photos, Videos, News, Biography & Birthday | eTimes"timesofindia.indiatimes.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১১ 
  3. "Yash looking for success"। Indiaglitz। ৬ অক্টোবর ২০০৬। 
  4. "Yash honed his acting skills in theatre"The Times of India। ২১ আগস্ট ২০১৪। 
  5. "SUDEEP, RADHIKA EMERGE AS TOP SANDALWOOD ACTORS"। Bangalore Mirror। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৭ 
  6. "These hunks are the most desired men"। The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৭ 
  7. Weekend With Ramesh – Episode 7 – August 23, 2014 (Kannada ভাষায়)। ২৩ আগস্ট ২০১৪। event occurs at 2:50। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৭Naveen Kumar Gowda was born on 8 January 1986 in a government hospital in Bhuvanahalli in Hassan district to Arun Kumar J. and Pushpa 
  8. "Actor Yash family, childhood photos"। Celebritykick। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৫ 
  9. "Yash honed his acting skills in theatre"। The Times of India। ২১ আগস্ট ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৭ 
  10. "Kannada Television Artistes Who Made It Big In Films"। filmibeat। ৭ আগস্ট ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০১৪ 
  11. Moggina Manasu bags five Filmfare awards. Filmibeat (3 August 2009). Retrieved on 11 November 2016.
  12. Rajadhani review. Rajadhani Kannada movie review, story, rating. IndiaGlitz.com (3 June 2011). Retrieved on 11 November 2016.
  13. Rajadhani Movie Review, Trailer, & Show timings at Times of India. Timesofindia.indiatimes.com. Retrieved on 11 November 2016.
  14. Review: Kirataka is a breezy entertainer – Rediff.com Movies. Rediff.com (27 June 2011). Retrieved on 11 November 2016.
  15. Kirathaka Movie Review, Trailer, & Show timings at Times of India. Timesofindia.indiatimes.com. Retrieved on 11 November 2016.
  16. Kirathaka review. Kirathaka Kannada movie review, story, rating. IndiaGlitz.com (25 June 2011). Retrieved on 11 November 2016.
  17. Review: Lucky is a treat to watch – Rediff.com Movies. Rediff.com (24 February 2012). Retrieved on 11 November 2016.
  18. Lucky Movie Review, Trailer, & Show timings at Times of India. Timesofindia.indiatimes.com (24 February 2012). Retrieved on 11 November 2016.
  19. Jaanu Movie Review, Trailer, & Show timings at Times of India. Timesofindia.indiatimes.com (1 June 2012). Retrieved on 11 November 2016.
  20. Kannada Review: 'Jaanu' is worth a watch – News18. Ibnlive.com (3 June 2012). Retrieved on 11 November 2016.
  21. It is over flow for DRAMA – Kannada Movie News. Indiaglitz.com (30 November 2012). Retrieved on 11 November 2016.
  22. S. Shiva Kumar (২৯ আগস্ট ২০১৩)। "How different are they?"। The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০১৭ 
  23. Talukdar, Taniya (২১ জুলাই ২০১৩)। "Googly is unpredictable: Yash"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০১৭ 
  24. "Gajakesari, Manam Affect Kochadaiyaan's Box Office Collection At Bangalore"। filmibeat। ১ জুন ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০১৪ 
  25. "Content over star power: Story of south cinema in first half of 2015"Hindustan Times (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৫-০৭-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১১ 
  26. Upadhyaya, Prakash (২০১৫-০১-০৯)। "Box Office Collection: 'PK', 'Mr & Mrs Ramachari' Dominate Bengaluru Collection Centres"International Business Times, India Edition (english ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১১ 
  27. "Birthday gift to Yash: Ramachari to enter cr club soon!"। www.sify.com। ২২ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  28. "'Mr and Mrs Ramachari' Review: Audience Live Response"। ibtimes.co.in। ২৫ ডিসেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০১৫ 
  29. Masterpiece movie review: Live audience response – IBTimes India. Ibtimes.co.in (24 December 2015). Retrieved on 30 September 2018.
  30. Santhu Straight Forward box office collection: Yash-Radhika-starrer hit by demonetisation – IBTimes India. Ibtimes.co.in (1 December 2016). Retrieved on 30 September 2018.
  31. KGF rockets through every budget barrier. The New Indian Express. Retrieved on 30 September 2018.
  32. "Yash's mom ready to take care of his wife!"The Times of India। ২ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০১৬ 
  33. "Actors Yash and Radhika get engaged in Goa"India Today। ১২ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০১৬ 
  34. "Kannada actors Yash and Radhika Pandit tie the knot in a dream wedding, see pics"। The Indian Express। ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৭ 
  35. "Inside Yash and Radhika Pandit's daughter Ayra's 1st grand birthday bash; Check it out"PINKVILLA (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১১ 
  36. "There's something new in Yash and Radhika Pandit's life"। The Times of India। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। 
  37. "Yasho Marga Yashassu, Yash dilkush"। Indiaglitz। ২৯ মার্চ ২০১৭। 
  38. Vijayasarathy, R. G. (২১ জুলাই ২০০৮)। "Moggina Manasu works"Rediff.com। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  39. Nathan, Archana (২৯ অক্টোবর ২০১৬)। "Far from straightforward"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  40. R., Shilpa Sebastian (২০ ডিসেম্বর ২০১৮)। "Kannada got funk"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  41. Chaitra Krishnamurthy (৩ জানুয়ারি ২০১৯)। "KGF Chapter 2 : Vijay Kirangdur Announces The Release Date! Here's When The Shoot Begins" 
  42. Xappie Desk (২ জানুয়ারি ২০১৯)। "KGF Chapter 2 release date!" 
  43. Kumar S., Nanda (১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩)। "He spells success"Deccan Herald (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  44. S. M., Shashiprasad (১ আগস্ট ২০১৮)। "Rad takes stork joyfully"Deccan Chronicle (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  45. Kudige V., Samatha (২৮ এপ্রিল ২০১০)। "A dream come true"Deccan Herald (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১৯ 
  46. "Celebrating the spirit of Chennai"The Hindu। ৯ জানুয়ারি ২০১৬। ২২ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১৬ 
  47. "56th Idea Filmfare Awards 2008 South: The winners"। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০১৫ 
  48. "60th Idea Filmfare Awards 2013 (South) Nominations"Filmfare। ৭ জুলাই ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০১৫ 
  49. "61st Idea Filmfare Awards (South) Nomination list"Filmfare। ৮ জুলাই ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০১৫ 
  50. "SIIMA Awards 2014: Nominees and winners List for Kannada Movies"The Indian Express। ৫ এপ্রিল ২০১৫। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৫ 
  51. "Yash, Shwetha Srivatsav are Filmfare best actors"। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৫ 
  52. "Kannada award winners at SIIMA"The Times of India। ১১ আগস্ট ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০১৮ 
  53. "IIFA Utsavam: Here's a complete list of winners on day 2"Daily News and Analysis। ২৬ জানুয়ারি ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০১৮ 
  54. "Nominations for the 63rd Britannia Filmfare Awards (South)"। filmfare.com। ৭ জুন ২০১৬। ১১ জুন ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০১৮ 
  55. "SIIMA Awards 2016 Kannada Nominees, Winners List & Show Details"। worldhab.com। ২৮ জুন ২০১৬। ১ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  56. "SIIMA Nominations: Theri, Janatha Garage, Maheshinte Prathikaram and Kirik Party lead"। The Indian Express। ৩১ মে ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০১৮ 
  57. "Here's the full list of GQ's 50 most influential young Indians of 2019"GQ India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১১ 
  58. "Winners of the 66th Filmfare Awards (South) 2019"filmfare.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২২ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা