যশ দাশগুপ্ত

ভারতীয় অভিনেতা, মডেল ও প্রযোজক

যশ দাশগুপ্ত (জন্ম: ১০ অক্টোবর ১৯৮৫[১]) একজন ভারতীয় অভিনেতা, টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব, প্রযোজক, রাজনীতিবিদ। তিনি প্রধানত বাংলা চলচ্চিত্র ও ধারাবাহিকে কাজ করেন। তিনি টেলিভিশনে তার কর্মজীবন শুরু করেন এবং ২০১৬ সালের গ্যাংস্টার দিয়ে বাংলা ও ২০২৩ সালে ইয়ারিয়ান ২ এর মাধ্যমে হিন্দি চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন । বোঝেনা সে বোঝেনা (২০১৩-১৬) ধারাবাহিকের মাধ্যমে জনপ্রিয়তা পায়। ২০২৪ সালে তিনি সেন্টিমেন্টাল চলচ্চিত্রে মাধ্যমে প্রযোজক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।[২] ২০১৪, ২০১৫ ও ২০২০ সালে তিনি ক্যালকাটা টাইমসের সবচেয়ে আকাঙ্ক্ষিত পুরুষদের তালিকায় তালিকাভুক্ত হন।[৩][৪]

যশ দাশগুপ্ত
২০১৫ সালে যশ দাশগুপ্ত
জন্ম
দেবাশীষ দাশগুপ্ত

(1985-10-10) ১০ অক্টোবর ১৯৮৫ (বয়স ৩৮)
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাঅভিনেতা, মডেল, রাজনীতিবিদ
কর্মজীবন২০০৫ - বর্তমান
প্রতিষ্ঠানওয়াইডি ফিল্মস
উল্লেখযোগ্য কর্ম
বোঝেনা সে বোঝেনা গ্যাংস্টার
রাজনৈতিক দলভারতীয় জনতা পার্টি
দাম্পত্য সঙ্গীশ্বেতা সিং (বি. ২০১০–২০১৩)
নুসরাত জাহান (বি. ২০২০)
সন্তানরায়ানশ দাশগুপ্ত, ইশান জে দাশগুপ্ত

কর্মজীবন

সম্পাদনা

যশ দাশগুপ্ত মুম্বাইয়ে স্থানান্তরিত হয়ে অভিনয়ের পেশাজীবন তৈরি করার জন্য নাট্য স্কুলে যোগদান করেন এবং ২০০৯ সালে টেলিভিশন শিল্পের অভিনেতা হিসেবে তিনি প্রথম অভিষেক ঘটান। যশ দাশগুপ্ত রোশন তানেজা ভারপ্রাপ্ত স্কুলে একটি অভিনয় কর্মশালায় অংশ নিয়েছিল এবং সেখানে কয়েকটি হিন্দি ধারাবাহিকে কাজ করে। তিনি ২০০৯ - ২০১২ পর্যন্ত হিন্দি ধারাবাহিকে কাজ করার পর তিনি ২০১৩ - ২০১৬ পর্যন্ত একটি বাংলা ধারাবাহিকে এ কাজ করেন। ধারাবাহিক গুলোর নাম হলো: ২০০৯ সালে কই আনে কো হাই, বন্দিনি, বাসেরা। ২০১০ সালে না আনা ইস দেস লাদো। ২০১২ সালে মাহিমা শানি দেভ কি, আদালত। ২০১৩ সালের বাংলা ধারাবাহিক টির নাম হলো বোঝেনা সে বোঝেনা

২০১৬ সালে বোঝেনা সে বোঝেনা ধারাবাহিক টির সমাপ্তি ঘটার পর, ঐ একই বছরে গ্যাংস্টার সিনেমার মাধ্যমে যশ দাশগুপ্ত এর চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে।

২০১৬ - বর্তমান

সম্পাদনা

২০১৬ সালে শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস গ্যাংস্টার সিনেমার মাধ্যমে যশ দাশগুপ্ত কে অভিষিক্ত করেন। এরপর, ধারাবাহিক ভাবে ২০১৭ সালে ওয়ান। ২০১৮ সালে টোটাল দাদাগিরিফিদা। এবং ২০১৯ সালে আসে 'মন জানে না'।২০১৯ এই তার নাম না ঘোষিত হওয়া ফিল্মের শুটিং শুরু হয়। ২০২০ এ তার সর্বশেষ সিনেমা 'সস কলকাতা' মুক্তি পায়।

প্রাথমিক জীবন

সম্পাদনা

যশ দাশগুপ্ত জন্মগ্রহণ করেন বাবা দীপক দাশগুপ্ত এবং মা জয়তী দাশগুপ্তের ঘরে। তিনি তার বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান। শৈশবের সূচনালগ্নে তিনি তার বাবা-মার কাজের জন্য তাদের সাথে ভারতের সমস্ত অঞ্চলে ভ্রমণ করেন।

তিনি দিল্লিমুম্বাইয়ের মত আরও বিভিন্ন স্থানে বসবাস করতেন, যার কারণে তাকে বিভিন্ন স্থান থেকে তার স্কুলে উপস্থিত থাকতে হত। তিনি জবলপুর থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।[৫]

ব্যক্তিগত জীবন

সম্পাদনা

তিনি ভ্রমণ এবং ফটোগ্রাফি সম্পর্কে উৎসাহী। তিনি প্রকৃতির ফটোগ্রাফি করা সহ গাড়ি চালাতেও ভালোবাসেন। তিনি খেলাধুলা, বিশেষত দুঃসাহসিক ক্রীড়া ভালোবাসেন। তিনি তার ফিটনেস নিয়ে বর্তমানে বেশ সচেতন। শারীরিক প্রশিক্ষণ ও যোগব্যায়াম অনুশীলন করতে পছন্দ করেন।[৬][৭][৮] তিনি পশুপাখিকে খুব ভালোবাসেন।[৯][১০] তার পোষা বিভিন্ন জাতের বিদেশি কুকুর রয়েছে।

চলচ্চিত্র

সম্পাদনা

অভিনেতা হিসেবে

সম্পাদনা
বছর চলচ্চিত্র চরিত্র পরিচালক টীকা
২০০৭ পাগল প্রেমী অজয় ব্যানার্জী হর পাটনায়েক অতিথি শিল্পী
২০১৬ গ্যাংস্টার গুরু / কবির বিরসা দাশগুপ্ত চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে আত্মপ্রকাশ
২০১৭ ওয়ান রনজয় বোস
২০১৮ টোটাল দাদাগিরি জয় দাস পথিকৃৎ বসু
রাজা রানী রাজি আদিত্য সেন রাজীব কুমার বিশ্বাস
ফিদা ইশান চ্যাটার্জী পথিকৃৎ বসু
২০১৯ মন জানে না আমির নাওয়াজ সাগুফতা রফিক
২০২০ এসওএস কলকাতা জাকির আহমেদ অংশুমান প্রত্যুস
২০২২ চিনে বাদাম ঋষভ দাশগুপ্ত শিলাদিত্য মৌলিক
তোকে ছাড়া বাঁঁচবো না অর্জুন সুজিত মন্ডল
২০২৩ ইয়ারিয়ান ২ অভয় ভিনাই সাপরু ও রাধিকা রাও বলিউডে অভিষেক
২০২৪ সেন্টিমেন্টাল ইন্সপেক্টর সুর্য রায় বাবা যাদব এছাড়াও প্রযোজক হিসেবে
আসন্ন রকস্টার জিমি অংশুমান প্রত্যুস উৎপাদন পরবর্তী
শিকার অজানা দেবরাজ সিনহা উৎপাদন পূর্ববর্তী

প্রযোজক হিসেবে

সম্পাদনা
বছর চলচ্চিত্র পরিচালক টীকা
২০২৪ সেন্টিমেন্টাল বাবা যাদব প্রযোজিত প্রথম চলচ্চিত্র

টেলিভিশন

সম্পাদনা

ধারাবাহিক

সম্পাদনা
বছর প্রদর্শনী চরিত্র সহশিল্পী চ্যানেল
২০১৩ বোঝেনা সে বোঝেনা অরণ্য সিংহ রায় মধুমিতা সরকার স্টার জলসা
২০১২ আদালত ভিরাজ সায়ন্তনি ঘোষ সনি আট
২০১১ মাহিমা শানি দেভ কি কালকেতু অর্চনা তাইরে এনডিটিভি ইমাজিন
২০১০ না আনা ইস দেস লাদো করণ সিং বৈষ্ণবী ধনরাজ কালার্স টিভি
২০০৯ বাসেরা কেতান সাঙ্ঘভি পল্লবী সুভাষ চন্দ্রন এনডিটিভি ইমাজিন
বন্দিনী সুরাজ ধর্মরাজ মাহিয়াভানসি লীনা জুমানি
কই আনে কো হ্যায় দ্বীপ পূজা গোর কালার্স টিভি

পুরস্কার ও সম্মাননা

সম্পাদনা

চলচ্চিত্র

সম্পাদনা
বছর পুরস্কারের নাম চরিত্রের নাম বিভাগ প্রদর্শনী ফলাফল
২০১৮ স্টার জলসা পুরস্কার রনজয় বোস সেরা যুগল ওয়ান বিজয়ী
২০১৭ ফিল্মফেয়ার পুরস্কার গুরু/কবির শ্রেষ্ঠ অভিষেক পুরস্কার গ্যাংস্টার
স্টার জলসা পুরস্কার

টেলিভিশন

সম্পাদনা
বছর পুরস্কারের নাম বিভাগ ধারাবাহিক ফলাফল
২০১৫ টেলি সম্মান পুরস্কার জনপ্রিয় অভিনেতা পুরস্কার বোঝেনা সে বোঝেনা বিজয়ী
স্টার জলসা পুরস্কার বছরের আন্তর্জাতিক জোড়া
প্রিয় বর
সেরা স্টাইল আইকন
শ্রেষ্ঠ জুটি
টেলি সম্মান পুরস্কার শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পুরস্কার
২০১৪ বছরের শ্রেষ্ঠ জুটি
শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পুরস্কার
শ্রেষ্ঠ অভিষেক পুরস্কার
স্টার জলসা পুরস্কার প্রিয় ভাই
আগামী দিনের তারকা পুরস্কার

অন্যান্য

সম্পাদনা
বছর পুরস্কার বিভাগ প্রদর্শনী ফলাফল
২০০৬ মিস্টার কলকাতা পুরস্কার গ্লাম কিং উনিশ কুড়ি স্ট্রেক্স গ্লাম হান্ট বিজয়ী

রাজনৈতিক জীবন

সম্পাদনা

২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রার্থী হয়ে তিনি তৃণমূল প্রার্থীর থেকে ৪১ হাজার ভোটের ব্যবধানে চন্ডিতলা আসনে হেরেছেন।[১১][১২]

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "Yash Dasgupta"The Times of Indiaআইএসএসএন 0971-8257। ২০২৩-১০-২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০১-১৯ 
  2. "Sentimental-Madan Mitra: নায়িকার দজ্জাল বাবা থেকে পুলিশ কমিশনার; মুক্তি পেল মদন মিত্রের দ্বিতীয় ছবি"Editorji। ২০২৪-০১-১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০১-১৯ 
  3. "Calcutta Times Most Desirable Men 2015 - TOI Mobile - The Times of India Mobile Site" (ইংরেজি ভাষায়)। ২২ এপ্রিল ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  4. "Calcutta Times Most Desirable Men 2014 - TOI Mobile | The Times of India Mobile Site" (ইংরেজি ভাষায়)। M.timesofindia.com। ২০২২-০৫-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-১৬ 
  5. "Yash Dasgupta of Laado fame takes comparisons with Dev in his stride" (ইংরেজি ভাষায়)। Timesofindia.indiatimes.com। ২০১৩-১২-২৬। ২০২৩-১০-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-১৬ 
  6. "Yashh Dasgupta, aka Aranya Singha Roy, reveals his fitness regime - The Times of India" (ইংরেজি ভাষায়)। Timesofindia.indiatimes.com। ১৯৭০-০১-০১। ২০১৮-০১-২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-১৬ 
  7. "For Yash Dasgupta, photography is passion and acting is life" (ইংরেজি ভাষায়)। Tellychakkar.com। ২০২২-০৫-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-১৬ 
  8. "Tolly celebs and their yoga route to wellness - The Times of India" (ইংরেজি ভাষায়)। ২৫ অক্টোবর ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  9. Team, Tellychakkar। "Animals teach us about unconditional love: Yash Dasgupta on his new friend 'Happy'" (ইংরেজি ভাষায়)। ১১ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  10. "When Yashh, aka, Aranya Singha Roy went Puja shopping with CT" (ইংরেজি ভাষায়)। Timesofindia.indiatimes.com। ১৯৭০-০১-০১। ২০১৮-০৫-৩১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-১৬ 
  11. "কেউ হারলেন, কেউ আবির্ভাবেই করলেন বাজিমাৎ, দেখে নিন কেমন হল তারকা প্রার্থীদের ফল"anandabazar.com। আনন্দবাজার। ৩ মে ২০২১। ৩ মে ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২১ 
  12. "বিজেপির হয়ে হারার সিরিয়ালে এবার যশ দাশগুপ্ত"যুগান্তর। ২ মে ২০২১। ২ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০২১ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা