যশোর বিমানবন্দর

বাংলাদেশের বিমানবন্দর

যশোর বিমানবন্দর (আইএটিএ: JSRআইসিএও: VGJR) যশোর, হল বাংলাদেশের যশোর শহরে অবস্থিত একটি অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দর। বিমানবন্দরটি বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ দ্বারা পরিচালিত এবং রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়। বাংলাদেশ বিমান বাহিনী এ বিমানবন্দরটিকে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ঘাটি মতিউর রহমান, যশোর এর অংশ হিসাবে এবং বাংলাদেশ বিমান বাহিনী একাডেমীর প্রশিক্ষণকেন্দ্র হিসাবে ব্যবহার করে।

যশোর বিমানবন্দর
Jessore Airport (463123277).jpg
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
বিমানবন্দরের ধরনসামরিক/পাবলিক
পরিচালকবাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ
অবস্থানযশোর
এএমএসএল উচ্চতা১২ ফুট / ৪ মিটার
স্থানাঙ্ক২৩°১১′০১″ উত্তর ৮৯°০৯′৩৯″ পূর্ব / ২৩.১৮৩৬১° উত্তর ৮৯.১৬০৮৩° পূর্ব / 23.18361; 89.16083স্থানাঙ্ক: ২৩°১১′০১″ উত্তর ৮৯°০৯′৩৯″ পূর্ব / ২৩.১৮৩৬১° উত্তর ৮৯.১৬০৮৩° পূর্ব / 23.18361; 89.16083
রানওয়েসমূহ
দিকনির্দেশনা দৈর্ঘ্য পৃষ্ঠতল
ফুট মি
১৬/৩৪ ৮,০০০ ২,৪৩৮ পিচ
পরিসংখ্যান (জানুয়ারী ২০১৮- ডিসেম্বর ২০১৮)
যাত্রী সংখ্যা২,৯৪,৩০৮ বৃদ্ধি
উৎস:[১]

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৪২ সালে ব্রিটিশ সরকার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জড়িয়ে পড়লে যশোরে বিমান ঘাঁটি নির্মাণ কাজ শুরু করে। ছয় মাসের মধ্যে ব্রিটিশ বিমান বাহিনীর উপযোগী একটি বিমান বন্দর চালু হয়। ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত এই বিমান ঘাঁটি সচল ছিল। এরপর ভারত ভাগ হলে ১৯৫০ সালে যশোরে পাকিস্তান সেনা বাহিনী ও বিমান বাহিনীর ঘাঁটি স্থাপন করে। ১৯৫৬ সালে যশোরে পুনাঙ্গ বিমান বন্দর চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়। তবে যশোরে পূর্নাঙ্গ বিমানবন্দর চালু হয় ১৯৬০ সালে। পিআইএ চট্টগ্রাম, যশোর ও ঈরশ্বদী থেকে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করে।

এয়ারলাইনস এবং গন্তব্যস্থলসম্পাদনা

বিমান সংস্থাগন্তব্যস্থল
নভোএয়ার ঢাকা
রিজেন্ট এয়ারওয়েজ ঢাকা
ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ ঢাকা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Bangladesh Air Traffic Movement: Passenger: Airport: Jessore"। সংগ্রহের তারিখ ১০ জানুয়ারি ২০২০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা