ম্যাক অ্যান্ডারসন

নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটার

উইলিয়াম ম্যাকডিউগল ম্যাক অ্যান্ডারসন (ইংরেজি: Mac Anderson; জন্ম: ৮ অক্টোবর, ১৯১৯ - মৃত্যু: ২১ ডিসেম্বর, ১৯৭৯) ওয়েস্টপোর্টে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা নিউজিল্যান্ডীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৪৬ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেন।

ম্যাক অ্যান্ডারসন
ম্যাক অ্যান্ডারসন.jpg
১৯৪৬ সালে ওয়েলিংটনে সংগৃহীত স্থিরচিত্রে ম্যাক অ্যান্ডারসন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামউইলিয়াম ম্যাকডিউগল অ্যান্ডারসন
জন্ম(১৯১৯-১০-০৮)৮ অক্টোবর ১৯১৯
ওয়েস্টপোর্ট, নিউজিল্যান্ড
মৃত্যু২১ ডিসেম্বর ১৯৭৯(1979-12-21) (বয়স ৬০)
ক্রাইস্টচার্চ, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ ব্রেক গুগলি
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৩৪)
২৯ মার্চ ১৯৪৬ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩৭
রানের সংখ্যা ১৯৭৩
ব্যাটিং গড় ২.৫০ ৩৪.৬১
১০০/৫০ ০/০ ২/১৩
সর্বোচ্চ রান ১৩৭
বল করেছে - ১০৩১
উইকেট - ১৮
বোলিং গড় - ৩৮.১৬
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং - ৫/৯০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/- ২৪/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৩০ এপ্রিল ২০১৮

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটে ক্যান্টারবারির প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, লেগ ব্রেক গুগলি বোলিংয়ে পারদর্শীতা দেখিয়েছেন ম্যাক অ্যান্ডারসন

২৯ মার্চ, ১৯৪৬ তারিখে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার খেলোয়াড়ী জীবনের একমাত্র টেস্ট ছিল। খেলায় তিনি সর্বমোট পাঁচ রান তুলতে পেরেছেন।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৩৮-৩৯ মৌসুম থেকে ১৯৪৯-৫০ মৌসুম পর্যন্ত ক্যান্টারবারির পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন ম্যাক অ্যান্ডারসন। এ সময় দলে তিনি ব্যাটসম্যানের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। পাশাপাশি, মাঝে-মধ্যে দলের প্রয়োজনে লেগ স্পিন বোলিং আক্রমণ পরিচালনা করতেন।

১৯৪৫-৪৬ মৌসুমে ওতাগোর বিপক্ষে নিজস্ব সর্বোচ্চ ১৩৭ রান তুলেন। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমে দীর্ঘ ৩৯৬ মিনিট ক্রিজে অবস্থান করে এ রান সংগ্রহ করেন ম্যাক অ্যান্ডারসন।[১] ১৯৪৮-৪৯ মৌসুমের প্লাঙ্কেট শীল্ডে স্বর্ণালী সময় অতিবাহিত করেন। তিনটি অর্ধ-শতকসহ ৭১.২৫ গড় ২৮৫ রান তুলে চমক সৃষ্টি করেন।

টেস্ট ক্রিকেটসম্পাদনা

এর অল্প কিছুদিন পর অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল নিউজিল্যান্ড সফরে আসে। ক্যান্টারবারির সদস্যরূপে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া একাদশের বিপক্ষে ৬১ রান তুলেন। ফলশ্রুতিতে ওয়েলিংটনের ব্যাসিন রিজার্ভে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজস্ব একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ হয় তার। ঐ টেস্টে ছয়জন ব্যাটসম্যানের টেস্ট অভিষেক হলেও অ্যান্ডারসন-সহ আরও পাঁচজনের একমাত্র টেস্টরূপে গণ্য হয়। খেলায় তিনি ৪ ও ১ রান তুলতে সমর্থ হন।[২]

প্রস্তুতিমূলক খেলায় অংশ নেন। কিন্তু, ১৯৪৯ সালে ইংল্যান্ড সফরে নিউজিল্যান্ড দলের সদস্যরূপে তাকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত ম্যাক অ্যান্ডারসনের সন্তান রবার্ট অ্যান্ডারসন ১৯৭০-এর দশকে নিউজিল্যান্ড দলের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

২১ ডিসেম্বর, ১৯৭৯ তারিখে ৬০ বছর বয়সে ক্যান্টারবারির ক্রাইস্টচার্চে ম্যাক অ্যান্ডারসনের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা