মোহাম্মদ রফি (ফুটবলার)

ভারতীয় ফুটবলার

মোহাম্মদ রফি (হিন্দি: मोहम्मद रफ़ी, ইংরেজি: Mohammed Rafi; জন্ম: ২৪ মে ১৯৮২) হলেন একজন ভারতীয় পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়[১] তিনি সর্বশেষ ভারতের পেশাদার ফুটবল লিগের শীর্ষ স্তর ইন্ডিয়ান সুপার লিগের ক্লাব কেরল ব্লাস্টার্স এবং ভারত জাতীয় দলের হয়ে আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেছেন। তিনি মূলত কেন্দ্রীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেললেও মাঝেমধ্যে ডান পার্শ্বীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় এবং বাম পার্শ্বীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেছেন।

মোহাম্মদ রফি
২০১১ সালে রফি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম মোহাম্মদ রফি
জন্ম (1982-05-24) ২৪ মে ১৯৮২ (বয়স ৪২)
জন্ম স্থান কাসারগড়, কেরল, ভারত
উচ্চতা ১.৭৯ মিটার (৫ ফুট ১০+ ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান আক্রমণভাগের খেলোয়াড়
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
বছর দল ম্যাচ (গোল)
২০০৪–২০০৫ ভারতীয় স্টেট ব্যাংক কেরল ২০ (১২)
২০০৬–২০১০ মহিন্দ্র ইউনাইটেড ৩০ (১৭)
২০১০–২০১২ চার্চিল ব্রাদার্স (২)
২০১৩ মুম্বই টাইগার্স ১০ (৩)
২০১৩–২০১৫ মুম্বই ২০ (২)
২০১৪এটিকে (ধার) ১০ (০)
২০১৫–২০১৬ কেরল ব্লাস্টার্স ২২ (৬)
২০১৭–২০১৯ চেন্নাইয়িন ১২ (২)
২০১৯–২০২০ কেরল ব্লাস্টার্স (০)
জাতীয় দল
২০১০–২০১১ ভারত (১)
* কেবল ঘরোয়া লিগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে এবং ১০:৩০, ৯ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সকল তথ্য সঠিক।
‡ জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা ১০:৩০, ৯ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

২০০৪–০৫ মৌসুমে, ভারতীয় ক্লাব ভারতীয় স্টেট ব্যাংক কেরলের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি তার জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ি জীবন শুরু করেছিলেন, যেখানে তিনি দুই মৌসুম অতিবাহিত করেছিলেন; ভারতীয় স্টেট ব্যাংক কেরলের হয়ে তিনি ২০ ম্যাচে ১২টি গোল করেছিলেন। অতঃপর ২০০৬–০৭ মৌসুমে তিনি মহিন্দ্র ইউনাইটেডে যোগদান করেছিলেন। মহিন্দ্র ইউনাইটেডে চার মৌসুম অতিবাহিত করার পর চার্চিল ব্রাদার্সের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলেন, যেখানে তিনি ৮ ম্যাচে ২টি গোল করেছিলেন। পরবর্তীকালে, তিনি মুম্বই টাইগার্স, মুম্বই, এটিকে, কেরল ব্লাস্টার্স, চেন্নাইয়িন এবং কেরল ব্লাস্টার্সের হয়ে খেলেছিলেন।

রফি ২০১০ সালে ভারতের হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেছিলেন; ভারতের জার্সি গায়ে তিনি সর্বমোট ৬ ম্যাচে ১টি গোল করেছিলেন।

প্রারম্ভিক জীবন

সম্পাদনা

মোহাম্মদ রফি ১৯৮২ সালের ২৪শে মে তারিখে ভারতের কেরলের কাসারগড়ে জন্মগ্রহণ করেছেন এবং সেখানেই তার শৈশব অতিবাহিত করেছেন।

ক্লাব ফুটবল

সম্পাদনা

২০০৯–১০ আই-লিগে তিনি রেকর্ডসংখ্যক ১৪ গোল করে মৌসুম শেষ করেছিলেন, যা ভারতীয় কোন আক্রমণভাগের খেলোয়াড়ের জন্য এক মৌসুমে সর্বোচ্চ ছিল। একই মৌসুমে তিনি মহিন্দ্র ইউনাইটেডের বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছিলেন।[২] রফির দৃষ্টান্ত অনুসরণ করে তার ছোট ভাই মোহাম্মদ শফি চিরাগ ইউনাইটেড এবং কেএসইবি-এর হয়ে খেলেছেন।[৩]

২০১৩ সালের ২৪শে নভেম্বর তারিখে এক ঘোষণায় জানানো হয়েছিল যে; রফি মুম্বইয়ের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলেন। তার সাথে আরো ৩ জন খেলোয়াড় চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলেন; যারা হলেন খেলেম্বা সিং, পাপাচেন প্রদীপ এবং পিটার কোস্তা। তিনি ২০১৩ সালের ২রা ডিসেম্বর তারিখে শ্রী শিব ছত্রপতি স্পোর্টস কমপ্লেক্সে ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে অভিষেক করেছিলেন; উক্ত ম্যাচে তিনি মুম্বইয়ের হয়ে পুরো ৯০ মিনিট খেলেছিলেন, যেখানে তার দল ৩–২ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করেছিল।[৪]

আন্তর্জাতিক ফুটবল

সম্পাদনা

২০১০ সালের ৪ঠা সেপ্টেম্বর তারিখে, ২৮ বছর, ৩ মাস ও ১১ দিন বয়সে, ডান পায়ে ফুটবল খেলায় পারদর্শী রফি থাইল্যান্ডের বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ভারতের হয়ে অভিষেক করেছিলেন।[৫] তিনি উক্ত ম্যাচের মূল একাদশে অন্তর্ভুক্ত ছিলেন;[৬] ম্যাচটি থাইল্যান্ড ০–১ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করেছিল।[৭][৮] জাতীয় দলের হয়ে অভিষেকের ২ মাস ও ১০ দিন পর, ভারতের জার্সি গায়ে প্রথম গোলটি করেছিলেন; ২০১০ সালের ১৪ই নভেম্বর তারিখে, কুয়েতের বিরুদ্ধে ম্যাচের ৬৯তম মিনিটে ভারতের প্রথম গোলটি করার মাধ্যমে তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার প্রথম গোলটি করেছিলেন।[৯]

পরিসংখ্যান

সম্পাদনা

আন্তর্জাতিক

সম্পাদনা
দল সাল ম্যাচ গোল
ভারত ২০১০
২০১১
সর্বমোট

আন্তর্জাতিক গোল

সম্পাদনা
গোল তারিখ মাঠ প্রতিপক্ষ স্কোর ফলাফল প্রতিযোগিতা সূত্র
৪ সেপ্টেম্বর ২০১০ আল-ওয়াহদা স্টেডিয়াম, আবুধাবি, সংযুক্ত আরব আমিরাত   কুয়েত –৭ ১–৯ প্রীতি ম্যাচ [৯]

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "M. Rafi - Goal.com"Goal.com। ১ মে ২০১৪। ১ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০২১ 
  2. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৮ এপ্রিল ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০১৪ 
  3. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০১৪ 
  4. "Mumbai vs. East Bengal 3-2"Soccerway। সংগ্রহের তারিখ ৮ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  5. "Thailand - India 1:0 (Friendlies 2010, September)"worldfootball.net। ২৭ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০২১ 
  6. "Thailand - India, Sep 4, 2010 - International Friendlies - Match sheet"Transfermarkt (ইংরেজি ভাষায়)। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০২১ 
  7. Strack-Zimmermann, Benjamin (৪ সেপ্টেম্বর ২০১০)। "Thailand vs. India (1:0)"National Football Teams। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০২১ 
  8. "Indian football team suffer humiliating 1-9 defeat to Kuwait"Zee News। ১৪ নভেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০২১ 
  9. Strack-Zimmermann, Benjamin (১৪ নভেম্বর ২০১০)। "India vs. Kuwait (1:9)"National Football Teams। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০২১ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা