মেজর ধ্যানচাঁদ জাতীয় স্টেডিয়াম

মেজর ধ্যানচাঁদ ন্যাশনাল স্টেডিয়াম , (পূর্বনাম ন্যাশনাল স্টেডিয়াম) - ভারতের নয়াদিল্লিতে অবস্থিত একটি ফিল্ড হকি স্টেডিয়াম। ভারতের প্রাক্তন হকি খেলোয়াড়, যিনি সর্বকালের শ্রেষ্ঠ হকি তারকা হিসাবেই বিবেচিত হন,  ধ্যানচাঁদের নামে  স্টেডিয়ামটির নামকরণ করা হয়েছে। স্টেডিয়ামটি ১৯৫১ খ্রিস্টাব্দে প্রথম এশিয়ান গেমসের স্থান  হিসাবে ব্যবহৃত হয়েছিল। [২] [৩]

মেজর ধ্যানচাঁদ ন্যাশনাল স্টেডিয়াম
ন্যাশনাল স্টেডিয়াম
২০১০ খ্রিস্টাব্দে ম্যাচ চলাকালীন কোন এক মুহূর্তের ছবি
মানচিত্র
পূর্ণ নামমেজর ধ্যানচাঁদ ন্যাশনাল স্টেডিয়াম
প্রাক্তন নামন্যাশনাল স্টেডিয়াম
অবস্থাননতুন দিল্লি, ভারত
স্থানাঙ্ক২৮°৩৬′৪৫″ উত্তর ৭৭°১৪′১৪″ পূর্ব / ২৮.৬১২৫০° উত্তর ৭৭.২৩৭২২° পূর্ব / 28.61250; 77.23722
মালিকস্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া
পরিচালকস্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া
ধারণক্ষমতা১৬,২০০ (শেষবারের সংস্কারের পর) [১]
উদ্বোধন১৯৩৩
ভাড়াটে
ভারত পুরুষ জাতীয় ফিল্ড হকি দল
দিল্লি ওয়েব রাইডার্স (২০১৩ - বর্তমান)
দিল্লি উইজার্ডস (২০১১)

ইতিহাস

সম্পাদনা
 
প্রথম এশিয়াডে ভারতীয় ক্রীড়াবিদ

১৯৩৩ খ্রিস্টাব্দে ব্রিটিশ ভারতের দেশীয় ভাবনগর রাজ্যের মহারাজা এই স্টেডিয়াম নির্মাণ করে দিল্লিবাসীকে উপহারস্বরূপ উৎসর্গ করেন। এটি মূলত বহুমুখী স্টেডিয়ামই ছিল এবং এর নামকরণ করা হয়েছিল আরউইন অ্যাম্ফিথিয়েটার। স্টেডিয়ামটির নকশা করেছিলেন অ্যান্টনি এস ডিমিলো এবং লর্ড উইলিংডন এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। নয়াদিল্লির স্থপতি এডউইন লুটিয়েন্সের মূল পরিকল্পনা অনুযায়ী, ঐতিহাসিক পুরাতন কেল্লা এর পটভূমিতে একটি পরিষ্কার দৃশ্য প্রদানের জন্য এই স্থানে বাগান করার কথা ছিল, কারণ এর অবস্থান রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে শুরু হওয়া অক্ষের সাথে রাজপথে হয়ে ইন্ডিয়া গেট পর্যন্ত লম্বভাবে বিস্তৃত ছিল তবে সে পরিকল্পনা অনুসরণ করা হয়নি। ১৯৫১ এর এশিয়ান গেমসের আগে এটির নামকরণ করা হয় ন্যাশনাল স্টেডিয়াম। ২০০২ খ্রিস্টাব্দে ধ্যানচাঁদের নাম যুক্ত করা হয়। [৩][৪]

প্রধান সংস্কার

সম্পাদনা

২০১০ খ্রিস্টাব্দের পুরুষ হকি বিশ্বকাপের আয়োজক স্থান ছিল ধ্যানচাঁদ স্টেডিয়াম। [৫]২০১০ কমনওয়েলথ গেমসের জন্য ফিল্ড হকির স্থানও ছিল এটি। ২০১০ খ্রিস্টাব্দের হকি বিশ্বকাপ এর আগে স্টেডিয়ামটির বড় পুনর্নির্মাণ হাতে নেওয়া হয়।

২০১০ খ্রিস্টাব্দের ২৪ জানুয়ারি  ২০১০ কমনওয়েলথ গেমসের উদ্বোধনে প্রথম স্থান হয়। স্টেডিয়ামটি ২৬২ কোটি টাকা ব্যয়ে সংস্কার করা হয়েছিল, যা কিনা মূল বাজেটের চেয়ে ৫০ কোটি বেশি ছিল। [৬] স্ট্যান্ডগুলি, যা মাটির তৈরি বাঁধ ছিল, তা ভেঙে ফেলা হয় এবং তার জায়গায় একটি নতুন আয়তাকার বসার স্থান তৈরি করা হয়।

২০১৭ খ্রিস্টাব্দের ৮ হতে ১০ ডিসেম্বর স্টেডিয়ামে রাজীব সরাফের উদ্যোগে রেখতা ফাউন্ডেশন দ্বারা "জশন-ই-রেখতার চতুর্থ সংস্করণ"এর উর্দু উৎসবের আয়োজন করা হয়েছিল।

স্টেডিয়ামের বৈশিষ্ট্য

সম্পাদনা

১৭,৫০০ বর্গমিটার আয়তনের স্টেডিয়ামটি ৩৭-একর (তথা ১৫০,০০০ বর্গমিটার)  কমপ্লেক্সে বিস্তৃত। স্টেডিয়ামটিতে তিনটি সিন্থেটিক পিচ রয়েছে - দুটি আন্তর্জাতিক মানের এবং অন্যটি অনুশীলনের জন্য নির্দিষ্ট। এটি ভারতীয় উপকূলরক্ষী বাহিনীর সদর দপ্তরের সংলগ্ন স্থানে অবস্থিত।

নতুন স্প্রিংকলার সিস্টেমের সাথে সমস্ত পিচগুলি নতুন পলিগ্রাসে তৃণাচ্ছাদিত করা হয়। মূল স্টেডিয়ামে প্রায় ১৬,২০০ দর্শকের বসার আসন ক্ষমতা রয়েছে। মূল মাঠের বাইরে দ্বিতীয় পিচটিতে ৯০০টি স্থায়ী আসন রয়েছে এবং ১,৬০০টি অস্থায়ী আসনের ব্যবস্থা রয়েছে। আন্তর্জাতিক মানের পিচ দুটির ক্ষেত্রে ফোল্ডেবল ফ্লাডলাইট টাওয়ার (হিংড মাস্ট লাইট) সহ ফ্লাড-লাইটের ব্যবস্থায় প্রতিযোগিতার সময় ২,২০০ লাক্স ক্ষমতার আলোকসজ্জা প্রদান করতে সক্ষম। এর ফলে হাই ডেফিনিশন টেলিভিশন সম্প্রচারও সহজ হয়।

উভয় পিচেই খেলোয়াড়দের জন্য চেঞ্জ রুম, রিলাক্সেশন লাউঞ্জ এবং একটি ভিভিআইপি লাউঞ্জের মতো সুবিধা উপলব্ধ।

স্টেডিয়ামটি লিফটের ব্যবস্থাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী ক্রীড়াবিদ এবং দর্শকদের জন্য পুরোপুরি সমস্ত ব্যবস্থা বিদ্যমান। স্টেডিয়ামটিতে দুটি গ্রিড হতে বিদ্যুতের জোগান নিশ্চিত করা সত্ত্বেও নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে  জেনারেটর সেট এবং ব্যাটারিও ব্যাকআপ হিসাবে রক্ষিত আছে।

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৮ মার্চ ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০২২ 
  2. "Imperial Impressions"। Hindustan Times। ২০ জুলাই ২০১১। ১৭ জুলাই ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "Imperial Impressions"। Hindustan Times। ২০ জুলাই ২০১১। ১৭ জুলাই ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. "Even Bradman was impressed with Dhyan Chand"The Times of India। ৩০ আগস্ট ২০১১। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  5. "India to host 2010 men's hockey World Cup"The Hindu। Chennai, India। ২২ মার্চ ২০০৭। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০২২ 
  6. "The Con Games : Cover Story - India Today"। Indiatoday.intoday.in। ২০১০-০৭-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৭-১৯