মিশন: ইম্পসিবল (চলচ্চিত্র সিরিজ)

মিশন: ইম্পসিবল হ'ল আমেরিকান গুপ্তচরধর্মী চলচ্চিত্রগুলোর একটি সিরিজ যা ব্রুস জেলারের নির্মিত একই নামের টেলিভিশন ধারাবাহিকের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়। সিরিজটির মূল প্রযোজক টম ক্রুজ, যিনি এখানে ইথান হান্ট চরিত্রে ইম্পসিবল মিশন ফোর্স (আইএমএফ) এর এজেন্ট হিসেবে অভিনয় করেন।লালো শিফরিনের মূল সিরিজ থেকে সংগীতের বিষয়বস্তু অন্তর্ভুক্ত করার সময় বিভিন্ন চলচ্চিত্র নির্মাতারা এবং ক্রুদের কাছ থেকে চলচ্চিত্রগুলি পরিচালনা,রচনা, সংশোধন করা হয়েছে।[১][২][৩][৪]

মিশন: ইম্পসিবল
মিশন- ইম্পসিবল (চলচ্চিত্র সিরিজ).jpeg
ছয়টি চলচ্চিত্রের সেট
প্রযোজকটম ক্রুজ
শ্রেষ্ঠাংশেটম ক্রুজ (নিচে দেখুন)
পরিবেশকপ্যারামাউন্ট পিকচার্স
মুক্তি১৯৯৬-বর্তমান
দৈর্ঘ্য৭৬৮ মিনিট (সবগুলো চলচ্চিত্র মিলিয়ে)
দেশমার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ভাষাইংরেজি
নির্মাণব্যয়মোট (৬টি চলচ্চিত্র):
$ ৮২৮ মিলিয়ন
আয়মোট (৬টি চলচ্চিত্র):
$৩.৫৭০ বিলিয়ন

এই সিরিজটি সমালোচক এবং শ্রোতাদের কাছ থেকে অসংখ্য ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পেয়েছে। এখন অবধি বিশ্বব্যাপী ৩.৫ বিলিয়ন ডলারের আয় সহ সবসময়ের ১৬ তম সর্বাধিক উপার্জনকারী চলচ্চিত্র সিরিজ এটি। এটিকে সেরা অ্যাকশন ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর মধ্যে একটি হিসাবে উল্লেখ করা হয়।

সিরিজের চলচ্চিত্রসম্পাদনা

চলচ্চিত্র আমেরিকাতে মুক্তির তারিখ পরিচালক চিত্রনাট্যকার গল্প প্রযোজক
মিশন: ইম্পসিবল ২২ মে ১৯৯৬ (1996-05-22) ব্রায়ান ডি পালমা ডেভিড কোপ এবং রবার্ট টাউন ডেভিড কোপ এবং স্টিভেন জেলিয়ান টম ক্রুজ এবং পলা ওয়াগনার
মিশন ইম্পসিবল ২ ২৪ মে ২০০০ (2000-05-24) জন উ রবার্ট টাউন রোনাল্ড ডি মুর এবং ব্রানন ব্রাগা
মিশন ইম্পসিবল ৩ ৫ মে ২০০৬ (2006-05-05) জে জে আব্রামস জে জে আব্রামস, অ্যালেক্স কর্টজম্যান এবং রবার্তো ওর্সি
মিশন: ইম্পসিবল - ঘোস্ট প্রোটোকল ১৬ ডিসেম্বর ২০১১ (2011-12-16) ব্র্যাড বার্ড জোশ আপেলবাম এবং আন্দ্রে নিমেক টম ক্রুজ, জে জে আব্রামস এবং ব্রায়ান বুর্ক
মিশন: ইম্পসিবল - রোগ নেশন ৩১ জুলাই ২০১৫ (2015-07-31) ক্রিস্টোফার ম্যাকক্যারি ক্রিস্টোফার ম্যাকক্যারি এবং ড্রয় পিয়ারস টম ক্রুজ, জে জে। আব্রামস, ব্রায়ান বার্ক, ডেভিড এলিসন, ডানা গোল্ডবার্গ এবং ডন গ্রেঞ্জার
মিশন: ইম্পসিবল – ফলআউট ২৭ জুলাই ২০১৮ (2018-07-27) ক্রিস্টোফার ম্যাকক্যারি টম ক্রুজ, জে জে আব্রামস, ক্রিস্টোফার ম্যাককোয়ারি এবং জ্যাক মায়ার্স
মিশন: ইম্পসিবল ৭[৫][৬] ১৯ নভেম্বর ২০২১ (2021-11-19) টম ক্রুজ, জে জে আব্রামস, ক্রিস্টোফার ম্যাকক্যারি, ডেভিড এলিসন এবং জ্যাক মায়ার্স

মিশন: ইম্পসিবল - ঘোস্ট প্রোটোকলসম্পাদনা

গল্পটি শুরু হয় আইএমএফ এজেন্ট ট্রেভর হানাওকে বুদাপেস্টে খুনের মাধ্যমে,হত্যাকারী সাবিন মোরাউ। এরপর হত্যাকারী রাশিয়ান পারমাণবিক প্রবর্তন কোড সম্বলিত তার ফাইলটি গ্রহণ করেন যেটা ট্রেভর হানাওয়ের কাছে ছিল।হত্যাকারী "কোবাল্ট" নামে একজনের হয়ে কাজ করেন,যাকে তিনি কোডগুলো পৌঁছে দিবেন।

আইএমএফ এজেন্ট ইথান হান্ট কোবাল্টের তথ্যের উৎস বোগদানকে ধরার জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে মস্কোর একটি কারাগারে বন্দী হন। হানাওয়ের হ্যান্ডলার জেন কার্টার এবং সদ্য রোগ দেওয়া ফিল্ড এজেন্ট বেনজি ডানের সহয়তায় হান্ট এবং বোগদানকে পালাতে হবে। আইএমএফের উদ্দেশ কোবাল্ট সম্পর্কে আরও তথ্য পাওয়া। মিশনের সময়,একজন অভ্যন্তরীণ আইএমএফ দলকে একটি অনুমিত বিস্ফোরণ সম্পর্কে সম্প্রচার করে, যার ফলে ক্রেমলিন পুলিশকে সতর্ক করে দেয়।একটি বোমা ক্রেমলিনের অনেকাংশকে ধ্বংস করার সাথে সাথে হান্টের দলের মিশনটি বাতিল করে দেয়। কার্টার এবং ডান পালাতে পেরেছিলেন, কিন্তু হান্ট এসভিআর এজেন্ট আনাতোলি সিডোরভের হাতে ধরা পড়ে এবং ক্রেমলিনকে ধ্বংস করার অভিযোগে অভিযুক্ত হন।

পরে হান্ট পালিয়ে গিয়ে মস্কোয় আইএমএফ সচিবের সাথে অন্য ব্যবসায়ের বিষয়ে সাক্ষাত করেন। সচিব হান্টকে বলেছিলেন যে তারা আইএমএফকে অস্বীকার করে "ঘোস্ট প্রোটোকল" শুরু করতে হয়েছিল,তবে গোপনে হান্টকে কোবাল্টের অনুসরণ চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন।সিডোরভের বাহিনী হান্টকে ধরে ফেলে এবং সচিব মারা যায়। হান্ট সচিবের সহযোগী এবং গোয়েন্দা বিশ্লেষক উইলিয়াম ব্র্যান্ডের সাথে পালিয়ে যান।

এরপর হান্ট ও তার দল কোড পুনরুদ্ধারের মিশন শুরু করে এবং এই কাজে দুবাই ভ্রমন করে। দুবাইয়ের বুর্জ খলিফা টাওয়ারে তারা কোবাল্টের খোঁজে মিশন শুরু করে এবং পারমাণবিক কোডটি উদ্ধারে সফল হয়। চলচ্চিত্রটির শেষের দিকে দেখা যায় ইথান হান্ট আরও নতুন একটি মিশন নিয়ে বের হয়েছেন।

মিশন: ইম্পসিবল - রোগ নেশনসম্পাদনা

মিশন: ইম্পসিবল – ফলআউটসম্পাদনা

একটি আইএমএফ মিশন খুব খারাপভাবে শেষ হওয়ার ফলে বিশ্ব খারাপ ফলাফলের দিকে ধাবিত হয়। ইথান হান্ট সবকিছু ব্যাখ্যা করার পর থেকেই সিআইএ তার সততা নিয়েই প্রশ্ন তোলে। হান্ট সময়ের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামে, তার পিছনে খুনী এবং প্রাক্তন শত্রুদের যৌথ বাহিনী, অন্যদিকে বৈশ্বিক গোলযোগ চ্যালেন্জ করে।

গানসম্পাদনা

মিশন: ইম্পসিবল - ঘোস্ট প্রোটোকলসম্পাদনা

মিশন: ইম্পসিবল - ঘোস্ট প্রোটোকল: মোশন পিকচার থেকে সংগীত
মাইকেল গিয়াচিনো কর্তৃক সাউন্ডট্রেক
মুক্তির তারিখ১০ জানুয়ারি ২০১২ (2012-01-10)
ঘরানাচলচিত্র
দৈর্ঘ্য৭৬:২৮
সঙ্গীত প্রকাশনীবিভিন্ন সরবন্দে
প্রযোজকমাইকেল গিয়াচিনো[৭]
মাইকেল গিয়াচিনো কালক্রম
মন্টি কার্লো
(২০১১)
মিশন: ইম্পসিবল - ঘোস্ট প্রোটোকল: মোশন পিকচার থেকে সংগীত
(২০১২)
জন কার্টার
(২০১২)
টেমপ্লেট:অতিরিক্ত কালানুক্রম

সবগুলি গানের সুরকার মাইকেল গিয়াচিনো

নং.শিরোনামদৈর্ঘ্য
১."তাকে আমার বুদাপেস্ট দিন"১:৫৭
২."ফিউজ হালকা" (লালো শিফরিন দ্বারা মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)২:০১
৩."একটি বন্দুক যুদ্ধ ছুরি"৩:৪২
৪."রাশিয়ায়, ফোন ডায়াল ইউ" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)১:৪০
৫."প্রত্যাশার সাথে ক্রেমলিন" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)৪:১২
৬."রাশিয়া থেকে শোভ দিয়ে" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)৩:৩৭
৭."ঘোস্ট প্রটোকল" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)৪:৫৮
৮."রেলকার রুনডাউন" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)১:১১
৯."হেন্ড্রিকসের ম্যানিফেস্টো" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)৩:১৭
১০."একটি মানুষ, একটি পরিকল্পনা, একটি কোড, দুবাই" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)২:৪৪
১১."গ্লোভ ভালবাসি" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)৩:৪৪
১২."এক্সপ্রেস এলিভেটর" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)২:৩১
১৩."মিশন ছদ্মবেশী"৩:৫৫
১৪."মরিউর ঝামেলা তার চেয়ে মূল্যবান"৬:৪৪
১৫."দৌড়ের বাহিরে"৩:৫৪
১৬."উইস্ট্রামের চোখ"১:০৫
১৭."মুড ইন্ডিয়া" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)৪:২৮
১৮."মুম্বাই এর শব্দ"৭:১৪
১৯."হ্যান্ড্রিক্সে লঞ্চ চলছে"২:২২
২০."বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ পার্কিং ভ্যালেট" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)৫:০৩
২১."মিশন মিশনে রেখেছি" (লালো শিফরিন এর মিশন: ইম্পসিবল 'থিম রয়েছে)৫:১৯
২২." মিশন: ইম্পসিবল 'থিম (একটি ব্যাং সংস্করণ সহ)"০:৫৩

মিশন: ইম্পসিবল - রোগ নেশনসম্পাদনা

মিশন: ইম্পসিবল - রোগ নেশন: চলচ্চিত্রের সঙ্গীতায়োজন
জো ক্রিমার কর্তৃক সাউন্ডট্র্যাক অ্যালবাম
মুক্তির তারিখ২৮ জুলাই ২০১৫ (2015-07-28)
ঘরানাআবহ সঙ্গীত
দৈর্ঘ্য৭৩:২১
সঙ্গীত প্রকাশনীলা-লা ল্যান্ড রেকর্ডস, প্যারামাউন্ট মিউজিক
প্রযোজকজো ক্রিমার, জন ফিঙ্কলে
জো ক্রিমার কালক্রম
ডন পেট্রোল
(২০১৫)
মিশন: ইম্পসিবল - রোগ নেশন: চলচ্চিত্রের সঙ্গীতায়োজন
(২০১৫)



মিশন: ইম্পসিবল - রোগ নেশন চলচ্চিত্রের আবহ সঙ্গীতের সুরকার ছিলেন জো ক্রিমার। তিনি এর আগেও পরিচালক ম্যাককুয়েরের সাথে দি ওয়ে অফ দ্য গান এবং জ্যাক রিচার চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন। ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরের দিকে চলচ্চিত্রটির সুরকার হিসেবে ক্রিমারের নাম ঘোষণা করা হয়।[৮] সাউন্ডট্র্যাকের হার্ডকপি লা-লা ল্যান্ড রেকর্ডস ২০১৫ সালের ২৮ জুলাই প্রকাশ করে। আর একই তারিখে প্যারামাউন্ট মিউজিক এর ডিজিটাল সংস্করণ প্রকাশ করে।

সবগুলি গানের সুরকার জো ক্রিমার।

নং.শিরোনামদৈর্ঘ্য
১."দি এ৪০০"৬:৩৮
২."সোলোমন লেন"৪:০৮
৩."গুড ইভনিং, মিস্টার হান্ট"২:৩৫
৪."এসকেপ টু ডেঞ্জার"২:৪৬
৫."হাভানা টু ভিয়েনা"৫:১৩
৬."এ ফ্লাইট অ্যাট দি অপেরা"২:২৩
৭."দ্য সিন্ডিকেট"৩:৪৪
৮."দ্য প্ল্যান"৩:২১
৯."ইট'স ইম্পসিবল" (সিডি এক্সক্লুসিভ ট্র্যাক)১:২৩
১০."দ্য টোরাস"৭:০২
১১."মরক্কো পারসুইট"২:২৯
১২."গ্রেভ কনসেকুয়েন্সেস"৪:১২
১৩."এ ম্যাটার অব গোয়িং"৫:০৫
১৪."দ্য ব্লেনেম সিকুয়েন্স"৪:০০
১৫."অডিয়েন্স উইথ দ্য প্রাইম মিনিস্টার"৪:২৩
১৬."দিস ইজ দি এন্ড, মিস্টার হান্ট" (সিডি এক্সক্লুসিভ ট্র্যাক)৩:৪৮
১৭."এ ফগি নাইট ইন লন্ডন"২:১০
১৮."মিট দি আইএমএফ"১:৪৭
১৯."ফিনালে অ্যান্ড কার্টেইন কল"৬:১৪

মিশন: ইম্পসিবল – ফলআউটসম্পাদনা

মিশন: ইম্পসিবল - ফলআউট
মোশন পিকচার থেকে সংগীত
লর্ন বালফে কর্তৃক সাউন্ডট্রেক
মুক্তির তারিখ১৪ জুলাই ২০১৮ (2018-07-14)
শব্দধারণের সময়২০১৮
ঘরানাচলচ্চিত্রের গান
দৈর্ঘ্য:৩৫:৪৫
সঙ্গীত প্রকাশনী
প্রযোজকলরেন বালফে, কুইনি লি
লর্ন বালফে কালক্রম
প্যাসিফিক রিম: বিদ্রোহ
(২০১৮)
মিশন: ইম্পসিবল - ফলআউট
মোশন পিকচার থেকে সংগীত

(২০১৮)
জর্জিটাউন
(২০১৯)
মিশন ইম্পসিবল কালক্রম
রোগ নেশন
(২০১৫)
ফলআউট
(২০১৮)

সবগুলি গানের সুরকার লর্ন বালফে

নং.শিরোনামদৈর্ঘ্য
১."ঝড় আসছে"১:১২
২."তোমার মিশন"২:১৪
৩."আপনার গ্রহণ করা অথবা চয়ন করা উচিত ..."২:৩৪
৪."ইশতেহার"১:৪৪
৫."শুভ সন্ধ্যা, মিঃ হান্ট"৪:১৯
৬."চেইন্জ দ্য প্লান"৫:৪৭
৭."একটি ভয়ঙ্কর পছন্দ"২:৫৪
৮."ফলআউট"১:৩০
৯."সিঁড়ি এবং ছাদ"৬:০০
১০."কঠোরানুভুতি নেই"৪:২০
১১."ফ্রী ফল"৪:১৪
১২."হোয়াইট উইডো"৪:৪২
১৩."আই এম দ্য স্টর্ম"২:০৭
১৪."দ্য এক্সচেঞ্জ"৫:৫৪
১৫."সামনে এগিয়ে যাও"১:০২
১৬."এসকেপ প্যারিস"৫:০৫
১৭."উই আর নেভার ফ্রী"৬:৫৭
১৮."কাশ্মীর"৪:২৯
১৯."ভাগ্য যোদ্ধা ফিস ফিস"৩:৫৪
২০."ওয়ারিয়র হুইস্পার্স ব্যাক"৩:৫৬
২১."অসমাপ্ত ব্যবসা"১:৪৯
২২."স্কাল্পেল এবং হাতুড়ি"৫:১০
২৩."দ্য সিন্ডিকেট"৬:০০
২৪."কাটিং অন ওয়ান"৩:৪২
২৫."দ্য লাস্ট রিসোর্ট"২:৫৫
২৬."মিশন কার্যোদ্ধার"১:১৫
মোট দৈর্ঘ্য:১:৩৫:৪৫

প্রতিক্রিয়াসম্পাদনা

বক্স অফিসসম্পাদনা

চলচ্চিত্র মুক্তির তারিখ বাজেট বক্স অফিসের আয় ক্রম তথ্যসূত্র
দেশীয় আন্তর্জাতিক বিশ্বব্যাপী দেশীয় বিশ্বব্যাপী
মিশন: ইম্পসিবল মে ২২,১৯৯৬ $৮০ মিলিয়ন $১৮০,৯৮১,৮৫৬ $২৭৬,৭১৪,৫০৩ $৪৫৭,৬৯৬,৩৫৯ ২৫৪ ২৪৪ [৯]
মিশন: ইম্পসিবল ২ মে ২৪,২০০০ $১২৫ মিলিয়ন $২১৫,৪০৯,৮৮৯ $৩৩০,৯৭৮,২১৬ $৫৪৬,৩৮৮,১০৫ ১৮০ ১৮১ [১০]
মিশন: ইম্পসিবল ৩ মে ৫,২০০৬ $১৫০ মিলিয়ন $১৩৪,০২৯,৮০১ $২৬৩,৮২০,২১১ $৩৯৭,৮৫০,০১২ ৪৫৪ ২৯৮ [১১]
মিশন: ইম্পসিবল - ঘোস্ট প্রোটোকল ডিসেম্বর ১৬,২০১১ $১৪৫ মিলিয়ন $২০৯,৩৯৭,৯০৩ $৪৮৫,৩১৫,৪৭৭ $৬৯৪,৭১৩,৩৮০ ১৯১ ১২১ [১২]
মিশন: ইম্পসিবল - রোগ নেশন জুলাই ৩১,২০১৫ $১৫০ মিলিয়ন $১৯৫,০৪২,৩৭৭ $৪৮৭,৬৭১,৮৯০ $৬৮২,৭১৪,২৬৭ ২২০ ১২৩ [১৩]
মিশন: ইম্পসিবল – ফলআউট জুলাই ২৭,২০১৮ $১৭৮ মিলিয়ন $২২০,১৫৯,১০৪ $৫৭০,৯৫৬,০০০ $৭৯১,১১৫,১০৪ ১৬৩ ৮৮ [১৪]
মোট $৮২৮ মিলিয়ন $১,১১৫,০২০,৯৩০ $২,৪১৫,৪৫৬,২৯৭ $৩,৫৭০,৪৭৭,২২৭ [১৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Christopher McQuarrie on Instagram: "@pom.klementieff, how do you say femme fatale in French? #MI78""Instagram (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-১৯ 
  2. "Christopher McQuarrie on Twitter: "You won't see him coming... #MI78""Twitter (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২০ 
  3. "Christopher McQuarrie on Instagram: "Say, @nicholashoult, care to raise a little hell?""Instagram (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-০৯ 
  4. Gemmill, Allie (জানুয়ারি ১৮, ২০২০)। "It Sure Sounds Like Simon Pegg Announced He's Back for 'Mission: Impossible 7'"Collider। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৫, ২০২০ 
  5. McNary, Dave (ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯)। "Tom Cruise 'Mission: Impossible' Movies Dated for Summers of 2021, 2022"Variety। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯ 
  6. Cruise, Tom (জানুয়ারি ১৪, ২০১৯)। "Summer 2021 and Summer 2022 pic.twitter.com/V6SNvZx2La" 
  7. "Mission: Impossible – Ghost Protocol"Varèse Sarabande। জুন ২, ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ১, ২০১৫ 
  8. "Joe Kraemer to Score 'Mission: Impossible 5′ - Track Listing/Samples"। filmmusicreporter.com। সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৩১, ২০১৪ 
  9. "Mission: Impossible (1996)"Box Office Mojo 
  10. "Mission: Impossible II (2000)"Box Office Mojo 
  11. "Mission: Impossible III (2006)"Box Office Mojo 
  12. "Mission: Impossible - Ghost Protocol (2011)"Box Office Mojo 
  13. "Mission: Impossible - Rogue Nation (2015)"Box Office Mojo 
  14. "Mission: Impossible - Fallout (2018)"Box Office Mojo 
  15. "Mission: Impossible Movies at the Box Office"Box Office Mojo। ডিসেম্বর ২৫, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ১৭, ২০১৮