প্রধান মেনু খুলুন

মালভেসি

উদ্ভিদের পরিবার

মালভেসি সপুষ্পক উদ্ভিদের একটি পরিবার যাতে প্রায় ২৫০টি গণ এবং ৪২২৫+ প্রজাতি রয়েছে।[২] এই পরিবারের সুপরিচিত সদস্য ওকরা, তুলা, এবং কোকো। প্রজাতির সংখ্যার দিক থেকে বৃহত্তম গণ হচ্ছে Hibiscus (৩০০ প্রজাতি), Sterculia (২৫০ প্রজাতি), Dombeya (২৫০ প্রজাতি), Pavonia (২০০ প্রজাতি), and Sida (২০০ প্রজাতি).[৩]

মালভেসি
Malva parviflora small.jpg
Malva parviflora
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Plantae
(শ্রেণীবিহীন): Angiosperms
(শ্রেণীবিহীন): Eudicots
(শ্রেণীবিহীন): Rosids
বর্গ: Malvales
পরিবার: Malvaceae
Juss.[১]
উপপরিবার

Bombacoideae
Brownlowioideae
Byttnerioideae
Dombeyoideae
Grewioideae
Helicteroideae
Malvoideae
Sterculioideae
Tilioideae

শ্রেণীবিন্যাসসম্পাদনা

এই গোত্রের শ্রেণীবিন্যাস অত্যন্ত জটিল ও প্রশ্নবিদ্ধ। এখানে Angiosperm Phylogeny Website থেকে প্রকাশিত মালভেসি গোত্রের বিস্তৃতি দেখানো হল।[২]




Byttnerioideae: ২৬টি গণ, ৬৫০টি প্রজাতি, প্যান্ট্রপিকাল, বিশেষত দক্ষিণ আমেরিকা



Grewioideae: ২৫টি গণ, ৭৭০টি প্রজাতি, প্যানট্রপিকাল




Sterculioideae: ১২টি গণ, ৪৩০টি প্রজাতি, প্যানট্রপিকাল



Tilioideae: ৩টি গণ, ৫০ টি প্রজাতি, উত্তরীয় নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল এবং মধ্য আমেরিকা



Dombeyoideae: প্রায় ২০টি গণ, প্রায় ৩৮০টি প্রজাতি, প্যালিয়ট্রপিকাল, বিশেষত মাদাগাস্কার এবং Mascarenes



Brownlowioideae: ৮টি গণ, প্রায় ৭০টি প্রজাতি, বিশেষত প্যালিয়ট্রপিকাল



Helicteroideae: ৮-১২টি গণ, ১০-৯০টি প্রজাতি, ট্রপিকাল, বিশেষত দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া



Malvoideae: ৭৮টি গণ, ১,৬৭০টি প্রজাতি, নাতিশীতোষ্ণ থেকে ট্রপিকাল



Bombacoideae: ১২টি গণ, ১২০টি প্রজাতি, ট্রপিকাল, বিশেষত আফ্রিকা এবং আমেরিকা






সাধারণ বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

স্বরুপসম্পাদনা

বীরুৎ,গুল্ম বা বৃক্ষ জাতীয়। রোমযুক্ত এবং মিউসিলেজপূর্ণ বা পিচ্ছিল রসযুক্ত।

মূলসম্পাদনা

প্রধান মূলতন্ত্র বিদ্যমান।

কাণ্ডসম্পাদনা

প্রায়ই কাষ্ঠল, তন্তুযুক্ত ও তারকাকার বা বেলনাকার। বেশ শাখান্বিত।

পাতাসম্পাদনা

 
Stellate hairs on the underside of a dried leaf of Malva alcea

সরল পত্রএকান্তর পাতা, মুক্তপার্শ্বীয় উপপত্র যুক্ত। জালিকা শিরাবিন্যাস বিদ্যমান। পাতার কিনারা অখণ্ড বা খণ্ডিত। পাতা সবৃন্তক ও ডিম্বাকার।

ফুলসম্পাদনা

একক, বৃহৎ, অক্ষীয় বা শীর্ষ, সম্পূর্ণ, উভলিঙ্গ, গর্ভপাদ পুষ্প। সাধারণত একক ফুল। ফুল একলিঙ্গিক ও হতে পারে এবং ফুলে ব্র্যাক্ট ও থাকতে পারে। বেশিরভাগ সময়ে ফুল তারকাকার বা রেডিয়াল হয়ে থাকে।

উপবৃতিসম্পাদনা

উপবৃত্যংশ ৩-১০ টি, মুক্ত অথবা যুক্ত। ( Sida এবং Abutilon গণে উপবৃতি নেই।

দলমণ্ডলসম্পাদনা

পাপড়ি ৫টি, মুক্ত, পুংকেশরীও নলের সাথে গোঁড়ায় যুক্ত, এস্টিভেসন বা পুষ্পপত্রবিন্যাস হল টুইস্টেড(পাকানো)।

পুংস্তবকসম্পাদনা

পুংকেশর অসংখ্য, একগুচ্ছ, পুংকেশরীয় দণ্ডগুলো যুক্ত হয়ে ফাঁপা পুংকেশরীও নালিকা সৃষ্টি করে। পরাগধানী বৃক্কাকার, এক প্রকোষ্ঠবিশিষ্ট পরাগরেণু বড় ও কণ্টকিত।

স্ত্রীস্তবকসম্পাদনা

সাধারণ গর্ভপত্র ৫-১০ টি, অধিগর্ভ গর্ভাশয়, ১ - বহু প্রকোষ্ঠবিশিষ্ট, সাধারণত ৫ প্রকোষ্ঠ বিশিষ্ট; ডিম্বক এর সংখ্যা প্রতি প্রকোষ্ঠে ১টি হতে বহু।

অমরাবিন্যাসসম্পাদনা

অক্ষীয় অমরাবিন্যাস।

ফলসম্পাদনা

 
একটি ডুরিয়ান ফল

সাধারণত ক্যাপসিউল, কখনো বেরি অথবা সাইজোকার্প[৪][৫]

পরাগায়নসম্পাদনা

স্ব-পরাগায়ন হয় না। এই পরিবারের সদস্যরা পতঙ্গপরাগী

অর্থনৈতিক গুরুত্বসম্পাদনা

ঢেঁড়শ(Abelmoschus esculentus) সবজি হিসেবে ব্যবহার করা হয়। জবা(Hibiscus rosa-sinensis) নামক ফুল গাছ বাগানে লাগানো হয়। কার্পাস(Gossypium herbaceum) এর বীজের ত্বক থেকে কার্পাস তুলা পাওয়া যায়। বীজ থেকে ভোজ্য তেল ও পাওয়া যায়। কেনাফ(Hibiscus cannabinus) এর বাকল থেকে পাটজাতীয় শক্ত আঁশ পাওয়া যায়। মেস্তাপাট(Hibiscus sabdariffa var. altissima) হতে চট, দড়ি পাওয়া যায়। [৬]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Angiosperm Phylogeny Group (২০০৯)। "An update of the Angiosperm Phylogeny Group classification for the orders and families of flowering plants: APG III" (PDF)Botanical Journal of the Linnean Society161 (2): 105–121। doi:10.1111/j.1095-8339.2009.00996.x। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৭-০৬ 
  2. "Angiosperm Phylogeny Website"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০১৪ 
  3. Judd, W. S., C. S. Campbell, E. A. Kellogg, P. F. Stevens and M. J. Donoghue (২০০৮)। Plant Systematics: A Phylogenetic Approach (third সংস্করণ)। আইএসবিএন 0878934073 
  4. জীববিজ্ঞান প্রথম পত্র- গাযী আজমল, সফিউর রাহমান
  5. জীববিজ্ঞান প্রথম পত্র- ড. মোহাম্মদ আবুল হাসান। জীববিজ্ঞান দ্বিতীয় পত্র- আশরাফ, রফিকুল, গোকুল, হাফেজা, নাদীরা।
  6. জীববিজ্ঞান প্রথম পত্র- এনায়েত হোসেন,গাযী আজমল, সফিউর রাহমান,তরিকুল ইসলাম।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা