মানুয়েল নরিয়েগা

মানুয়েল নরিয়েগা (স্পেনীয় উচ্চারণ: [maˈnwel noˈɾjeɣa]; জন্মঃ ১১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৩৪) পানামার সাবেক রাজনীতিবিদ ও সৈনিক। তার পুরো নাম মানুয়েল এন্টোনিও নরিয়েগা মোরেনো[২] তিনি ১৯৮৩ থেকে ১৯৮৯ সাল পর্যন্ত পানামা'র সামরিক শাসক ছিলেন।[৩]


মানুয়েল নরিয়েগা
Manuel Noriega mugshot cropped.jpg
মানুয়েল নরিয়েগা'র আত্মসমর্পণ পরবর্তী চিত্র (১৯৯০)
ম্যাক্সিমাম লিডার অব ন্যাশনাল লিবারেশন[১]
কাজের মেয়াদ
১৫ ডিসেম্বর, ১৯৮২ – ২০ ডিসেম্বর, ১৯৮৯
(৬ বছর, ৫ দিন)
পূর্বসূরীসৃষ্ট
উত্তরসূরীবিলুপ্ত
পানামার সামরিক নেতা
কাজের মেয়াদ
১২ আগস্ট, ১৯৮৩ – ১৫ ডিসেম্বর, ১৯৮৯
(৬ বছর, ১২৫ দিন)
রাষ্ট্রপতিরিকার্ডো ডি লা এসপ্রিলা
জর্জ ইলুকা
নিকোলাস আর্দিতো বার্লেটা ভালারিনো
এরিক আর্তুরো দেলভেল
ম্যানুয়েল সোলিস
ফ্রান্সিসকো রোড্রিগুয়েজ (পানামার প্রেসিডেন্ট)
পূর্বসূরীরুবেন ডেরিও প্যারদেস
উত্তরসূরীগুইলার্মো এন্ডারা (পানামার প্রেসিডেন্ট)
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1934-02-11) ফেব্রুয়ারি ১১, ১৯৩৪ (বয়স ৮৬)
পানামা সিটি, পানামা প্রদেশ
পানামা প্রজাতন্ত্র
প্রাক্তন শিক্ষার্থীচোরিলোস মিলিটারী স্কুল
ওয়েস্টার্ন হেমিস্ফেয়ার ইনস্টিটিউট ফর সিকিউরিটি কর্পোরেশন

যুক্তরাষ্ট্রের অভিযানসম্পাদনা

১৯৮৯ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাকে ধরতে পানামায় সামরিক অভিযান পরিচালনা করে। এরফলে তিনি তাদের হাতে ধরা পড়েন। ক্ষমতাচ্যুত হয়ে তিনি যুদ্ধ অপরাধী হিসেবে সাব্যস্ত হন ও তাকে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে যেতে বাধ্য করা হয়।

আনীত অভিযোগসমূহসম্পাদনা

এপ্রিল, ১৯৯২ সালে মানুয়েল নরিয়েগা'র বিরুদ্ধে আট গুণেরও বেশি মাদকদ্রব্য পরিবহন, ভীতি প্রদর্শন করে চাঁদা আদায় এবং মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ নিয়ে আসা হয়। পানামা এবং ফ্রান্স - উভয় দেশের সরকারের পক্ষ থেকে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগসমূহ প্রত্যাহার ও কারাগারে প্রেরণ না করে হস্তান্তর করার জন্য অনুরোধ করা হয়। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আদালতের রায়ে তাকে সেপ্টেম্বর, ২০০৭ সাল পর্যন্ত কারাগারে অন্তরীণ করে রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তার অনুপস্থিতিতেই ১৯৯৫ সালে হত্যা এবং ১৯৯৯ সালে মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগে রায় প্রদান করা হয়। ফ্রান্সও পরবর্তীকালে পুণরায় এপ্রিল, ২০১০ সালে হস্তান্তরের অনুরোধ করে।

২৭ এপ্রিল, ২০১০ সালে তিনি প্যারিসে আসেন। হস্তান্তরের শর্ত অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে পুণরায় বিচারের মুখোমুখি দ্বার করানো হয়। সেখানেও তিনি দোষী সাব্যস্ত হন। জুলাই, ২০১০ সালে তাকে সাত বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

সম্মাননাসম্পাদনা

১৯৮৭ সালে ফ্রান্স সরকার নরিয়েগাকে লিজিয়ন ডি'অনার পদকে ভূষিত করেন।[৪]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Eytan Gilboa, "The Panama Invasion Revisited: Lessons for the Use of Force in the Post Cold War Era," Political Science Quarterly, (v110 n4), p539. "[১] ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৬ এপ্রিল ২০১২ তারিখে." Retrieved on July 1, 2011
  2. Boyd Marciacq, Carmen. "29, 2007&idnews=33933 Noriega: el dictador ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত জানুয়ারি ২১, ২০১২ তারিখে." El Siglo. Retrieved on January 8, 2010.
  3. Serrill, Michael S. (জানুয়ারি ২৪, ২০০১)। "Panama Noriega's Money Machine"Time 
  4. "Quand Noriega était décoré de la Légion d'honneur" [When Noriega was awarded the Legion of Honour] (French ভাষায়)। আগস্ট ২৯, ২০০৭। ৮ জুলাই ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৮, ২০১০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

সামরিক দপ্তর
পূর্বসূরী
রুবেন ডেরিও প্যারদেস
পানামার সামরিক শাসক
১৯৮৩–১৯৮৯
উত্তরসূরী
গুইলার্মো এন্ডারা (পানামার প্রেসিডেন্ট)