মানব অনুকৃতি উৎপাদন

অনুকৃতি উৎপাদন পদ্ধতিতে অযৌন উপায়ে মানব শিশু সৃষ্টি করার প্রক্রিয়াকে মানব অনুকৃতি উৎপাদন বলা হয়।। পৃথিবীর প্রায় সব উন্নত দেশই ভবিষ্যত প্রজন্মকে ক্ষতিকর প্রভাব হতে রক্ষা ও মানব কল্যাণের জন্য মানব অনুকৃতি উৎপাদন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে এর পরেও কোনও কোনও দেশ বা সংস্থা গোপনে এটি পরিচালনা করছে বলে শোনা যায়। এর মাধমে বিখ্যাত বা কুখ্যাত কোন মৃত বা জীবিত ব্যক্তিকে পুনরায় সৃষ্টি করা হতে পারে বা বিকলাঙ্গ শিশু তৈরি হতে পারে এমন আশঙ্কা করেন অধিকাংশ বিজ্ঞানী।

মানুষের বিকাশের সাথে সাথে কোষগুলি পুনরায় পরিকল্পিত করার উপায়গুলির রেখাচিত্র।

ব্যাখ্যাসম্পাদনা

মানব অনুকৃতি উৎপাদন হল অযৌম উপায়ে একটি মানুষের বংশাণুগতভাবে অবিকল প্রতিরূপ বা অনুকৃতি তৈরির প্রক্রিয়া। কিন্তু এর মানে এই না যে এটি মোনোজাইগোটিক মাল্টিপাল বার্থ অথবা প্রাণীদেহের কোষ বা দেহকলা পুনরায় সৃষ্টি করা। বর্তমানে মানব অনুকৃতি উৎপাদন বিজ্ঞানী সমাজের কাছে একটি অত্যন্ত আলোচিত এবং আলোড়ন সৃষ্টিকারী ব্যাপার। জনসাধারণের কাছে মানব অনুকৃতি বলতে কৃত্রিমভাবে তৈরি মানুষ বোঝাতে পারে। তাত্ত্বিকভাবে মানব অনুকৃতি উৎপাদনের মাধ্যমে তৈরি অপত্য ব্যক্তিটি যে পিতৃব্যক্তিটির বংশাণুগত প্রতিরূপ, তাদের বাহ্যিক রূপ হুবহু একই রকম হবে। কিন্তু তাদের আচরণ হুবহু একরকম হবে না।

আরও দেখুনসম্পাদনা

টেমপ্লেট:সংশোধন চলছে