প্রধান মেনু খুলুন

মাইক ব্রিয়ারলি

ইংরেজ ক্রিকেটার

জন মাইকেল "মাইক" ব্রিয়ারলি, ওবিই (ইংরেজি: Mike Brearley; জন্ম: ২৮ এপ্রিল, ১৯৪২) মিডলসেক্সের হ্যারো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ও বিখ্যাত ইংরেজ ক্রিকেট তারকা। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের হয়ে টেস্টএকদিনের আন্তর্জাতিকে খেলেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটিং করতেন ও দলের প্রয়োজনে ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন। এছাড়াও, ‘ব্রিয়ার্স’ ডাকনামে পরিচিত মাইক ব্রিয়ারলি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটার হিসেবে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়, মিডলসেক্স ও ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব করেছেন। মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাবের সভাপতিরও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

মাইক ব্রিয়ারলি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজন মাইকেল ব্রিয়ারলি
জন্ম (1942-04-28) ২৮ এপ্রিল ১৯৪২ (বয়স ৭৭)
হ্যারো, মিডলসেক্স, ইংল্যান্ড, যুক্তরাজ্য
ডাকনামব্রিয়ার্স, স্ক্যাগ
উচ্চতা৫ ফুট ১১ ইঞ্চি (১.৮০ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৪৬৫)
৩ জুন ১৯৭৬ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট২৭ আগস্ট ১৯৮১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৩৮)
২ জুন ১৯৭৭ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই২২ জানুয়ারি ১৯৮০ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৬১-১৯৮৩মিডলসেক্স
১৯৬১-১৯৬৮কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৩৯ ২৫ ৪৫৫ ২৭২
রানের সংখ্যা ১৪৪২ ৫১০ ২৫১৮৬ ৬১৩৫
ব্যাটিং গড় ২২.৮৮ ২৪.২৮ ৩৭.৮১ ২৬.৪৪
১০০/৫০ ০/৯ ০/৩ ৪৫/১৩৪ ৩/৩৭
সর্বোচ্চ রান ৯১ ৭৮ ৩১২* ১২৪*
বল করেছে ৩১৫ ৪৮
উইকেট
বোলিং গড় ৬৪.০০ ১৫.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/৬ ২/৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫২/– ১২/– ৪১৮/১২ ১১১/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৯ এপ্রিল ২০১৪

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

ব্রিয়ারলি সিটি অব লন্ডন স্কুলে অধ্যয়ন করেন। সেখানে তার বাবা ও প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটার হোরেস শিক্ষক ছিলেন। কেমব্রিজের সেন্ট জন’স কলেজে অধ্যয়নকালীন ক্রিকেটের প্রতি তার ব্যাপক আসক্তি জন্মে। তখন তিনি উইকেট-রক্ষক/ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠেন নামতেন। উইকেট-রক্ষক হিসেবে তিনি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন ও ৭৬ রান করেন।[১] ১৯৬১ থেকে ১৯৬৮ সাল পর্যন্ত কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট ক্লাবে খেলেন। তন্মধ্যে ১৯৬৪ থেকে দলের অধিনায়ক ছিলেন তিনি।

১৯৬১ থেকে ১৯৮৩ সাল পর্যন্ত মিডলসেক্সের পক্ষে নিয়মিতভাবে খেলতেন। এক পর্যায়ে ক্লাবের অধিনায়কের দায়িত্ব লাভ করেন। পাশাপাশি ইংল্যান্ডেরও দলনেতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। জাতীয় দলে নেতৃত্ব দেয়ার ফলে মিডলসেক্সের অধিনায়কত্ব করতেন বিখ্যাত ক্রিকেট তারকা ক্লাইভ র‍্যাডলি

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

কেমব্রিজে থাকাকালীনই এমসিসি’র সদস্য হিসেবে ১৯৬৪-৬৫ মৌসুমে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর করেন। ১৯৬৬-৬৭ মৌসুমে এমসিসি অনূর্ধ্ব-২৫ দলের হয়ে পাকিস্তান সফরে দলের নেতৃত্ব দেন। সেখানে তিনি উত্তর অঞ্চলের বিপক্ষে ৩১২* রানে অপরাজিত ছিলেন যা তার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান।[২] এছাড়াও তিনি পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-২৫ দলের বিপক্ষে ২২৩ রান সংগ্রহ করেছিলেন।[৩] ছয় খেলায় ১৩২.০০ রান গড়ে ৭৯৩ সংগ্রহের মাধ্যমে সফর শেষ করেন ব্রিয়ারলি।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের সদস্যরূপে ৩৯টি টেস্টে অংশগ্রহণ করেন। তন্মধ্যে ৩১ টেস্টেই অধিনায়ক ছিলেন ব্রিয়ারলি। জয়ের পরিসংখ্যান - ১৭ জয় ও ৪টিতে পরাজয়।

অবসরসম্পাদনা

অবসর পরবর্তী সময়ে ২০০৭-০৮ মৌসুমে মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)’র সভাপতি ছিলেন তিনি। পেশাদার ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার পর তিনি ক্রীড়া লেখক হন ও মনোবিদ হিসেবে কাজ করছেন। ২০০৮-১০ মেয়াদে তিনি ব্রিটিশ সাইকোএনালাইটিক্যাল সোসাইটিরও সভাপতিত্ব করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা