মহাধমনী

দেহের সবচেয়ে বড় ধমনী

মহাধমনী বা গ্রীবা হচ্ছে মানব দেহের প্রধান ও সর্ববৃহৎ ধমনীহৃৎপিণ্ডের বাম নিলয় থেকে উৎপন্ন হয়ে এটি উদর পর্যন্ত পরিব্যপ্ত হয়েছে যেখানে এটি কমন ইলিয়াক ধমনী নামক দুটি ছোট শাখা ধমনীতে বিভক্ত হয়েছে। মহাধমনী সংবহন তন্ত্রের সকল অংশে অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত পরিবহন করে।[১]

কাজসম্পাদনা

মহাধমনী সংবহন তন্ত্রের অন্তর্ভুক্ত সকল অংশে, অর্থাৎ দেহের সকল অংশে রক্ত পরিবহন করে। এর একমাত্র ব্যতিক্রম হচ্ছে ফুসফুসের শ্বসন অঞ্চল, কারণ সেখানে অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত সরবরাহ করে পালমোনারি শিরা। মহাধমনীর উর্দ্ধগামী অংশ থেকে উৎপন্ন শাখা হৃৎপিণ্ডে, মহাধমনীর আর্ক থেকে উৎপন্ন শাখা মাথা, ঘাড়, এবং বাহুতে, বক্ষপিঞ্জরের দিকে নিম্নগামী অংশ থেকে উৎপন্ন শাখা বুকে (হৃৎপিণ্ড ও শ্বসন অঞ্চল ব্যতীত), এবং উদরীয় মহাধমনী থেকে উৎপন্ন শাখাগুলো উদরাঞ্চলে অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত পরিবহন করে। কমন ইলিয়াক ধমনীদ্বয়ের মাধ্যমে শ্রোণি এবং পায়ে রক্ত সরবরাহ করা হয় যা উদরীয় মহাধমনীর শাখা ধমনী।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Maton, Anthea; Jean Hopkins (১৯৯৫)। Human Biology Health। Prentice Hall। আইএসবিএন 978-0-13-981176-0 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

  •   উইকিঅভিধানে মহাধমনী-এর আভিধানিক সংজ্ঞা পড়ুন
  •   উইকিমিডিয়া কমন্সে মহাধমনী সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন