মনোহরপুর ইউনিয়ন

চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার একটি ইউনিয়ন

মনোহরপুর ইউনিয়ন বাংলাদেশের খুলনা বিভাগের চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার অন্তর্গত একটি ইউনিয়ন।মনোহরপুর ,পিয়ারাতলা ,কালা ,ধোপাখালী,মাধপখালী,রাজাপুর ,মানিকপুর গ্রামনিয়ে গঠিত ।এটি বাংলাদেশর শেষ সীমান্তের একটি ইউনিয়ন ।এই ইউনিয়ন চুয়াডাঙ্গা জেলার একমাত্র ইউনিয়ন যেখানে পাখিদের অভয় অরণ্য ঘোষণা করা হয়েছে ।

মনোহরপুর
ইউনিয়ন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগখুলনা বিভাগ
জেলাচুয়াডাঙ্গা জেলা
উপজেলাজীবননগর উপজেলা উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)

অবস্থান ও আয়তনসম্পাদনা

এটি জীবননগর শহর থেক ৪ কিলোমিটার দুরে আবস্থিত ।এই ইউনিয়ন এর আয়তন ৪৫৯৪.৮৪ বর্গ কিলোমিটার ।

প্রশাসনিক এলাকাসম্পাদনা

•মনোহরপুর •ধোপাখালী •মাধপখালী •রাজাপুর •মানিকপুর •কালা •পিয়ারাতলা

ইতিহাসসম্পাদনা

২০১৬ সালের প্রথম দিকে উথলী ইউনিয়নকে বিভক্ত করার চিন্তা করা হয় এবং বছরের প্রথমেই ইউনিয়ন বিভক্ত করা হয়। এক ইউনিয়ন ভেঙে আরও ৩টি ইউনিয়ন করা হয়। এই নতুন ইউনিয়ন এর মধ্যে মনোহরপুর ইউনিয়ন একটি।[১]

শিক্ষাসম্পাদনা

এখানে কয়েকটি উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে ঃ

১ জীবননগর টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ

২ মনোহরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

৩মনোহরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়

৪ ধোপাখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

৫ ধোপাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়

৬ কালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

৭ রাজাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

৮ ধোপাখালী মাদ্রাসা

অর্থনীতিসম্পাদনা

এ ইউনিয়নের অর্থনীতি মূলত কৃষি নির্ভর। এখানে ধান, পাট ভুট্টা বিভিন্ন ফসল উৎপাদিত হয়।এছাড়াও এখানে আম গাছ,পেয়ারা কাঁঠাল ,খেজুর গাছ ও প্রচুর পানক্ষেত দেখতে পাওয়া যায়।

উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্বসম্পাদনা

  • মোঃ হারুন-অর-রশীদ (মাষ্টার)
  • মোঃ সাখাওয়াত হোসেন (শিক্ষক,জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়)
  • মোঃ সোহরাব হোসেন সুরদ্দিন (চেয়ারম্যান, মনোহরপুর ইউনিয়ন)

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "চুয়াডাঙ্গায় আওয়ামী লীগ নেতাদের সন্তুষ্ট করতে গিয়ে এক ইউনিয়ন"Daily Sangram [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]