ভ্লাদিমির কোপেন

ভ্লাদিমির পিটার কোপেন (রুশ: Влади́мир Петро́вич Кёппен, ভ্লাদিমির পেত্রোভিচ কিওপেন; ৭ অক্টোবর ১৮৪৬ – ২২ জুন ১৯৪০) ছিলেন একজন রুশ-জার্মান ভূগোলবিদ, আবহাওয়াবিদ, জলবায়ুবিদ এবং উদ্ভিদ বিজ্ঞানীসেন্ট পিটার্সবার্গে পড়াশোনা শেষ করে তিনি তার কর্মজীবনের অধিকাংশ সময় জার্মানি এবং অষ্ট্রিয়ায় অতিবাহিত করেন। বিজ্ঞানে তার উল্ল্যেখযোগ্য অবদান হলো জলবায়ুর শ্রেণীবিভাগ পদ্ধতি প্রণয়ন। তার জলবায়ুর শ্রেণিবিভাগটি কিছুটা পরিমার্জিত রূপে এখনো সাধারণভাবে ব্যবহৃত হয়।[১] বিজ্ঞানের একাধিক শাখায় কোপেনের উল্ল্যেখযোগ্য অবদান রয়েছে।

ভ্লাদিমির কোপেন
Wladimir Peter Köppen.jpg
১৯২১, ফ্রেডরিক বেকের দ্বারা ধারণকৃত ছবি
জন্ম২৫ সেপ্টেম্বর, ১৮৪৬
সেন্ট পিটার্সবার্গ, রুশ সাম্রাজ্য
মৃত্যু২২ জুন ১৯৪০(1940-06-22) (বয়স ৯৩)
গ্রাজ, জার্মানি
জাতীয়তারুশ/জার্মান
কর্মক্ষেত্রভূগোল, আবহাওয়াবিদ্যা, জলবায়ু বিজ্ঞান, উদ্ভিদবিজ্ঞান
প্রতিষ্ঠানহেইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়
লিপজিগ বিশ্ববিদ্যালয়
প্রাক্তন ছাত্রসেন্ট পিটার্সবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়
পরিচিতির কারণকোপেনের জলবায়ুর শ্রেণীবিভাগ পদ্ধতি

পটভূমি এবং শিক্ষাজীবনসম্পাদনা

ভ্লাদিমির কোপেন রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে জন্মগ্রহণ করেন এবং ২০ বছর বয়স পর্যন্ত সেখানেই বসবাস করেন। তিনি অষ্ট্রিয়ার গ্রাজ শহরে মৃত্যুবরণ করেন। কোপেনের পিতামহ পেশায় ছিলেন একজন ডাক্তার। রাশিয়ার স্বাস্থ্যব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য জার দ্বিতীয় ক্যাথেরিন যেকজন ডাক্তারকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, তিনি ছিলেন তাদের মধ্যে অন্যতম। পরবর্তীতে কোপেনের দাদা জারের ব্যক্তিগত চিকিৎসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার পিতা, পিয়ত্তর কোপেন ছিলেন একাধারে বিখ্যাত ভূগোলবিদ এবং প্রাচীন রুশ সংস্কৃতির ইতিহাসবিদ ও নৃতত্ত্ববিদ। এছাড়াও তিনি পশ্চিম ইউরোপের স্লাভিস এবং রুশ বিজ্ঞানীদের মাঝে জ্ঞান বিনিময়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।[১]

কোপেন ক্রিমিয়ার সিমফেরোপোলে তার মাধ্যমিক শিক্ষা জীবন শুরু করেন এবং ১৮৬৪ সালে সেন্ট পিটার্সবার্গে বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্ভিদবিজ্ঞান বিষয়ে অধ্যয়ন শুরু করেন। ১৮৬৭ সালে তিনি হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থানান্তরিত হন এবং ১৮৭০ সালে লিপজিগ বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্ভিদের বৃদ্ধিতে তাপমাত্রার প্রভাব এই বিষয়ের ওপরে ডক্টরেট গবেষণা ডিফেন্স দেন। [১]

কোপেন পৃথিবীর জলবায়ুর শ্রেণীবিভাগকে প্রথম প্রকাশ করেন ১৯০১ সালে। কয়েকবার সংশোধনের পর এর চূড়ান্ত সংস্করণ প্রকাশিত হয় ১৯৩৬ সালে। তিনি পাঁচটি প্রধান উদ্ভিজ্জ শ্রেনীর সাথে সম্পর্কিত পাঁচটি প্রধান জলবায়ু অঞ্চল চিহ্নিত করেন:

  • ক্রান্তীয় বৃষ্টিবহুল জলবায়ু
  • শুষ্ক জলবায়ু
  • উষ্ণ তাপমাত্রার বৃষ্টিবহুল জলবায়ু
  • তীব্র শীত সম্পন্ন বৃষ্টিবহুল জলবায়ু
  • মেরু জলবায়ু

কর্মজীবন এবং অবদানসম্পাদনা

কোপেন আধুনিক আবহাওয়াবিদ্যা এবং জলবায়ু বিজ্ঞানের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা।

 
মানচিত্রে কোপেনের বৈশ্বিক জলবায়ুর শ্রেণীবিভাগ

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Wladimir Koppen: German climatologist"Encyclopædia Britannica Online। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০১৭ 

গ্রন্থপঞ্জীসম্পাদনা