প্রধান মেনু খুলুন

ভেঙ্কটরমন রামকৃষ্ণান

কাঠামোগত জীববিজ্ঞানী

ভেঙ্কটরমন "ভেঙ্কি" রামকৃষ্ণান, কেটি, এফআরএস (তামিল: வெங்கட்ராமன் ராமகிருஷ்ணன்; জন্ম: ১৯৫২) ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকানব্রিটিশ গাঠনিক জীববিজ্ঞানীথমাস এ. স্টিত্‌জঅ্যাডা ই. ইউনাথের সাথে যৌথভাবে তিনিও রসায়নে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। তাদের গবেষণার বিষয় ছিল : 'জীব কোষে অবস্থিত রাইবোজোমের গঠন ও ক্রিয়া'।[১] বর্তমানে তিনি ইংল্যান্ডের কেমব্রিজে অবস্থিত এমআরসি ল্যাবরেটরি অব মোলকুলার বায়োলজিতে কর্মরত আছেন।[২][৩]

ভেঙ্কটরমন রামকৃষ্ণান
Venki Ramakrishnan.jpg
জন্ম১৯৫২ (বয়স ৬৬–৬৭)
চিদাম্বরাম, তামিলনাড়ু, ভারত
বাসস্থানযুক্তরাজ্য
নাগরিকত্বযুক্তরাষ্ট্রযুক্তরাজ্য
কর্মক্ষেত্রপ্রাণরসায়নজীবপদার্থবিজ্ঞান
প্রতিষ্ঠানএমআরসি ল্যাবরেটরি অব মোলকুলার বায়োলজি, কেমব্রিজ, ইংল্যান্ড
ট্রিনিটি কলেজ, কেমব্রিজ
প্রাক্তন ছাত্রবরোদা বিশ্ববিদ্যালয়
ওহিও বিশ্ববিদ্যালয়
ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, সান ডিয়েগো
পরিচিতির কারণজীব কোষে অবস্থিত রাইবোজোমের গঠন ও ক্রিয়া; ম্যাক্রোমোলকুলার ক্রিস্টালোগ্রাফি
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারচিকিৎসাবিজ্ঞানে লুইস-জিনতেত পুরস্কার (২০০৭)
রসায়নে নোবেল পুরস্কার (২০০৯)
পদ্মবিভূষণ (২০১০)

পরিচ্ছেদসমূহ

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

ভেঙ্কটরমন রামকৃষ্ণান ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের কাড্ডালোর জেলার চিদাম্বরামে জন্মগ্রহণ করেন।[৪] তাঁর বাবা সি. ভি. রামকৃষ্ণান ও মাতা রাজলক্ষ্মী। পিতা-মাতা উভয়েই বরোদা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী ও শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত ছিলেন।[৫] গুজরাটের ভাদোদারায় তিন বছর বয়সে স্থানান্তরিত হন। ১৯৭১ সালে পদার্থবিদ্যায় বিএসসি ডিগ্রী অর্জন করেন।

জানুয়ারি, ২০১০ সালে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্সের স্মারক বক্তৃতার এক পর্যায়ে তিনি জানান যে, ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউটস অব টেকনোলজি কিংবা তামিলনাড়ুর ভেলোরের ক্রিশ্চিয়ান মেডিক্যাল কলেজের কোনটিতেই ভর্তি হতে পারেননি।[৬]

কর্মজীবনসম্পাদনা

ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকাকালীন পিটার মুরের সাথে রাইবোজোম নিয়ে পোস্টডক্টরাল ডিগ্রী করেন।[৩] এরপরও তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় পঞ্চাশটি বিশ্ববিদ্যালয়ে দরখাস্ত করেও উপযুক্ত পদ পাননি।[৬] ১৯৮৩-৯৫ সাল পর্যন্ত ব্রুকেনহেভেন ন্যাশনাল ল্যাবরেটরিতে বৈজ্ঞানিক কর্মীরূপে রাইবোজোমের উপর কাজ করা অব্যাহত রাখেন। ১৯৯৫ সালে উটাহ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাণরসায়ন বিভাগের অধ্যাপকরূপে দায়িত্ব পালন করেন। ঐ স্থান থেকে ১৯৯৯ সালে কেমব্রিজের মোলকুলার বায়োলজি ল্যাবরেটরিতে বর্তমান পদে কর্মরত আছেন।

সম্মাননাসম্পাদনা

তীক্ষ্ন মেধার বিজ্ঞানী ভেঙ্কটরমন রামকৃষ্ণান রাইবোজোমের আণবিক গঠন বের করা এবং এর কার্যপদ্ধতি ব্যাখ্যা করার ক্ষেত্রে অসাধারণ অবদান রাখেন ।এ কারণেই নোবেল কমিটি তাকে রসায়ন নোবেল-২০০৯ দিয়ে সম্মানিত করে ।

২০১২ সালে নববর্ষের সম্মাননাস্বরূপ আণবিক জীববিদ্যায় অসামান্য অবদান রাখায় ভেঙ্কটরমনকে নাইট পদবীতে ভূষিত করা হয়।[৭] সাধারণতঃ তিনি এ পদবী ব্যবহার করেন না।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "2009 Chemistry Nobel Laureates"। Nobel Foundation। ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১০-১৪ 
  2. PMID 21914843 (PubMed)
    কয়েক মিনিটের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে উদ্ধৃতি সম্পন্ন করা হবে। Jump the queue বা expand by hand
  3. "Venki Ramakrishnan Home Page"। Laboratory of Molecular Biology। ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১০-০৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "Common root: Tamil Nadu gets its third laureate"। Times of India। TNN। ৮ অক্টোবর ২০০৯। 
  5. http://www.asianwindow.com/tag/venkatraman-venki-ramakrishnan/
  6. "Nobel laureate Venkat Ramakrishnan failed IIT, medical entrance tests"The Times Of India। ২০১০-০১-০৫। 
  7. "নং. 60009"দ্যা লন্ডন গেজেট (সম্পূরক) (ইংরেজি ভাষায়): 1। ৩১ ডিসেম্বর ২০১১। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা