ভিক্টর বার্টন

ইংরেজ ক্রিকেটার

ভিক্টর আলেকজান্ডার বার্টন (ইংরেজি: Victor Barton; জন্ম: ৬ অক্টোবর, ১৮৬৭ - মৃত্যু: ২৩ মার্চ, ১৯০৬) হ্যাম্পশায়ারের নেটলি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার, ফুটবলার ও সৈনিক ছিলেন।[১] ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৯২ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ভিক্টর বার্টন
ভিক্টর বার্টন.jpg
আনুমানিক ১৮৯৫ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে ভিক্টর বার্টন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামভিক্টর আলেকজান্ডার বার্টন
জন্ম(১৮৬৭-১০-০৬)৬ অক্টোবর ১৮৬৭
নেটলি, হ্যাম্পশায়ার, ইংল্যান্ড
মৃত্যু২৩ মার্চ ১৯০৬(1906-03-23) (বয়স ৩৮)
সাউদাম্পটন, হ্যাম্পশায়ার, ইংল্যান্ড
ডাকনামবোম্বার্ডিয়ার বার্টন
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৭৩)
১৯ মার্চ ১৮৯২ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৮৮৯ - ১৮৯০কেন্ট
১৮৯২ - ১৯০২হ্যাম্পশায়ার
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৫৭
রানের সংখ্যা ২৩ ৬,৪১১
ব্যাটিং গড় ২৩.০০ ২৪.০১
১০০/৫০ ০/০ ৬/৩০
সর্বোচ্চ রান ২৩ ২০৫
বল করেছে ১০,০৭১
উইকেট ১৪১
বোলিং গড় ২৮.৬২
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৬/২৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ১০১/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২২ মার্চ ২০২০

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে হ্যাম্পশায়ার ও কেন্ট দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন বোম্বার্ডিয়ার বার্টন নামে পরিচিত ভিক্টর বার্টন

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

ভিক্টর বার্টন হ্যাম্পশায়ারের নেটলি এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন।[২] রয়্যাল আর্টিলারিতে নিয়মিত সৈনিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ১৮৮৯ সালে কেন্টের পক্ষে প্রথম খেলাকালীন বোম্বার্ডিয়ার পদবী ধারণ করেন তিনি।[৩]

১৮৮৯ সাল থেকে ১৯০২ সাল পর্যন্ত ভিক্টর বার্টনের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ১৮৮৯ থেকে ১৮৯০ সাল পর্যন্ত কেন্ট এবং ১৮৯২ সাল থেকে ১৯০২ সাল পর্যন্ত হ্যাম্পশায়ারের পক্ষে খেলেছেন। কেন্ট দলে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে ব্যর্থ হন। এরপর ১১ বছর হ্যাম্পশায়ারের পক্ষে খেলেন। ড্রাইভে বেশ সিদ্ধহস্তের পরিচয় দিতেন। বলকে প্রচণ্ড জোড়ে মিড-অন বরাবর ফেলতেন। আক্রমণধর্মী মাঝারিসারির ব্যাটসম্যান হিসেবে ভিক্টর বার্টনের সুনাম ছিল।

কেন্টে অংশগ্রহণসম্পাদনা

জুন, ১৮৮৯ সালে লর্ডসে রয়্যাল আর্টিলারি ক্রিকেট ক্লাবের (আরএসসিসি) সদস্যরূপে মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) বিপক্ষে খেলেন। এ খেলার মাধ্যমেই প্রথমবারের মতো নিজেকে ক্রিকেটার হিসেবে আত্মপ্রকাশে সচেষ্ট হন। উইজডেনে তার ব্যাটিংশৈলীর উচ্ছসিত প্রশংসা করা হয়। আরএসিসি’র প্রথম ইনিংসে সংগৃহীত ১৬৭ রানে তার অবদান ছিল ৯১ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭১ রানের মধ্যে ১০২ রান তুলেছিলেন।[৪] এছাড়াও, ঐ খেলায় তিনি ছয় উইকেট লাভ করেছিলেন। আরএসিসি, এমসিসিকে পরাজিত করে। ফলশ্রুতিতে, কেন্টের সদস্য নির্বাচনকল্পে যাচাই-বাছাইয়ের খেলায় অংশগ্রহণের জন্যে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়।[৪]

পরবর্তীতে দুই মৌসুমে কেন্টের পক্ষে এগারোবার খেলায় অংশ নেন। তখনো তিনি নিয়মিত সৈনিকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। জুলাই, ১৮৮৯ সালে মোট পার্কে ইয়র্কশায়ারের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেন ভিক্টর বার্টন।[৪][৫] দলে নিজেকে তিনি কখনো পুরোপুরি প্রতিষ্ঠিত করতে পারেননি।

হ্যাম্পশায়ারে অংশগ্রহণসম্পাদনা

১৮৯১ সালে রয়্যাল আর্টিলারির বাইরে অবস্থান করে পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে হ্যাম্পশায়ারে অন্তর্ভূক্ত হন।[৩] ১৮৯২ সালে হ্যাম্পশায়ার দল প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটের মর্যাদা পায়নি। ভিক্টর বার্টন ১৮৯২ সাল থেকে প্রথম-শ্রেণী বহির্ভূত অনেকগুলো খেলায় অংশ নেন। ১৮৯৫ সালে প্রথম-শ্রেণীর মর্যাদা পুণরুদ্ধারের পূর্ব-পর্যন্ত এ ধারা অব্যাহত থাকে।[৩][৬]

১৯০২ সাল শেষে দূর্বল স্বাস্থ্যের কারণে অবসর গ্রহণের পূর্ব-পর্যন্ত ১৪৩টি প্রথম-শ্রেণীর খেলা হ্যাম্পশায়ারের পক্ষে খেলেন।[৪] সমগ্র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনে ছয়টি শতরানের ইনিংস খেলেন। তন্মধ্যে, ১৯০০ সালে সাসেক্সের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২০৫ রান তুলেন। এছাড়াও, ১৪১টি প্রথম-শ্রেণীর উইকেট লাভ করেছিলেন তিনি।[৪]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন ভিক্টর বার্টন। ১৯ মার্চ, ১৮৯২ তারিখে কেপ টাউনে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

১৮৯১-৯২ মৌসুমের শীতকালে ওয়াল্টার রিডের নেতৃত্বে ইংল্যান্ড দল দক্ষিণ আফ্রিকা গমন করে। এ সফরে তাকেও দলে নেয়া হয়। একই সময়ে দুইটি টেস্ট সফরের এটি একটি; অন্যটি অস্ট্রেলিয়া গমন করে।[২] এ সফরে ভিক্টর বার্টন দশটি প্রথম-শ্রেণী বহির্ভূত খেলায় অংশ নেন। এছাড়াও নিউল্যান্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডে দক্ষিণ আফ্রিকা একাদশের বিপক্ষে একটি খেলায় অংশ নেন। পরবর্তীকালে খেলাটিকে টেস্ট খেলার মর্যাদা দেয়া হয়েছিল।[৬] টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণকালে রয়্যাল আর্টিলারির নিয়মিত সদস্য ছিলেন।[৪]

ফুটবলে অংশগ্রহণসম্পাদনা

ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি ফুটবল খেলায়ও দক্ষ ছিলেন তিনি। সাউদাম্পটন সেন্ট মেরি দলের সদস্যরূপে গোলরক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন তিনি। ফেব্রুয়ারি, ১৮৯৩ সালে হ্যাম্পশায়ার সিনিয়র কাপের সেমি-ফাইনালে অংশ নেন। সাউদাম্পটনের কাউন্টি গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় সেন্ট দল ২-০ ব্যবধানে পোর্টসমাউথকে পরাভূত করে। ১১ মার্চ তারিখের প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত খেলায় আঘাতের কারণে তিনি অংশ নিতে পারেননি। তার পরিবর্তে রাল্ফ রাফেল স্থলাভিষিক্ত হন। ঐ খেলায় প্রতিপক্ষীয় ফ্রিম্যান্টল ২-১ ব্যবধানে বিজয়ী হয়।[৭]

সাউদাম্পটন সেন্ট মেরি’র ফুটবলার জ্যাক ডর্কিনের সাথে যৌথভাবে লন্ডন রোডে ক্রীড়া সামগ্রী বিক্রয় প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করেন।[৮] পরবর্তীকালে সাউদাম্পটনের আলেকজান্দ্রা হোটেলের ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেন। ২৩ মার্চ, ১৯০৬ তারিখে মাত্র ৩৮ বছর বয়সে হ্যাম্পশায়ারের সাউদাম্পটন এলাকায় ভিক্টর বার্টনের দেহাবসান ঘটে।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Chalk, Gary; Holley, Duncan; Bull, David (২০১৩)। All the Saints: A Complete Players' Who's Who of Southampton FC। Southampton: Hagiology Publishing। পৃষ্ঠা 9। আইএসবিএন 978-0-9926-8640-6 
  2. Victor Barton, CricInfo. Retrieved 2017-03-22.
  3. Victor Barton - obituary, Wisden Cricketers' Almanack, 1907. Retrieved 2017-03-22.
  4. Club history ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২২ মার্চ ২০২০ তারিখে, Royal Artillery Cricket Club. Retrieved 2017-03-22.
  5. First-class matches played by Vic Barton ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৩ মার্চ ২০১৭ তারিখে, The Cricketer. Retrieved 2017-03-22.
  6. Miscellaneous matches played by Vic Barton ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৩ মার্চ ২০১৭ তারিখে, The Cricketer. Retrieved 2017-03-22.
  7. Chalk, Gary; Holley, Duncan (১৯৮৭)। Saints – A complete record। Breedon Books। পৃষ্ঠা 14। আইএসবিএন 0-907969-22-4 
  8. Holley, Duncan; Chalk, Gary (১৯৯২)। The Alphabet of the Saints। ACL & Polar Publishing। পৃষ্ঠা 106। আইএসবিএন 0-9514862-3-3 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা