ভয় (চলচ্চিত্র)

বাংলা রোমাঞ্চধর্মী চলচ্চিত্র

ভয় একটি বাংলা রহস্যকাহিনীমূলক চলচ্চিত্র যার পরিচালক ও প্রযোজক চিরঞ্জিত চক্রবর্তী। দীপাবলী চিত্রমের ব্যানারে নির্মিত এই ছবিটি প্রকাশিত হয় ১৯৯৬ সালে।[১] ভয় সিনেমাটি হিন্দি চলচ্চিত্র অগ্নিসাক্ষীর সামান্য অনুকরণে তৈরী।[২][৩][৪]

কাহিনীসম্পাদনা

বাবা-মায়ের মতে জয়ার বিবাহ হয় রঞ্জিতের সাথে। রঞ্জিত একজন নিষ্ঠুর ও অসৎ লোক, তার মেয়ে পাচারের ব্যবসা আছে বিয়ের আগে কেউ জানতে পারেনি। তার সাথে বিয়ে হওয়ার পর জয়া প্রায় বন্দিজীবন কাটাতে থাকে। রঞ্জিত তার ওপর নিয়মিত মানসিক ও শারীরিক অত্যাচার চালায়। নিজের অসুস্থ মা ও বাবার কথা চিন্তা করে জয়া এই বিবাহে মত দিলেও সে পালানোর কথা ভাবতে থাকে। সে যখন জানতে পারে রঞ্জিত ও তার সাথী জগমোহন নারী পাচারকারী ও চোরাচালানের সাথে যুক্ত, তখন সে রঞ্জিতের বাড়ি থেকে পালায় এবং রাস্তায় দেখা হয় সাংবাদিক পল্লবের সাথে। পল্লবের বাড়ি আশ্রয় নেয় জয়া। রঞ্জিত তাকে খুঁজতে খুঁজতে কলকাতা আসে ও পল্লবের বিষয় জানতে পারে ও তাকে হুমকি দেয়, কিন্তু সে গ্রাহ্য করেনা। জয়ার বন্ধু সমীর রঞ্জিতের কাছে জয়ার খোঁজ না পেয়ে কলকাতা আসে ও জয়াকে খুঁজে পায়। পল্লব, জয়া ও সমীর তিনজনে ঠিক করে রঞ্জিতের হাত থেকে বাঁচাতে জয়াকে বিদেশে পাঠিয়ে দিতে হবে। সেইদিন রাত্রে পল্লব বাইরে বেরলে রঞ্জিত সমীরকে খুন করে ও জয়াকে অপহরণ করে নিয়ে আসে তার আস্তানায়। পল্লব বাড়ি ফেরার পথে রঞ্জিতকে দেখে ও পিছু নিয়ে সেখানে যায়। ইতোমধ্যে সে রঞ্জিতকে ছুরি দিয়ে হত্যা করে। জয়া আর জগমোহনও গুলিতে মারা যায়।

অভিনয়সম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "BHOY (1996)"BFI (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৭ 
  2. "Rediff On The NeT, Movies: Chiranjeet, the angry man of Bengali cinema"www.rediff.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৭ 
  3. "একগাল কাঁচা-পাকা দাড়ি, ভয়ালু দৃষ্টি! দেখুন তো চিনতে পারছেন কিনা এই অভিনেতাকে?"। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০২০ 
  4. "নতুন লুকে সবাইকে 'ভয়' দেখাচ্ছেন অঙ্কুশ!"। ১৭ মে ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০২০