বো-কাপ (আফ্রিকান ভাষায় "অন্তরীপের ওপরে") দক্ষিণ আফ্রিকার কেপ টাউন শহরের একটি অঞ্চল যা পূর্বে মালয় কোয়ার্টার নামে পরিচিত ছিল।[২] পূর্বে ছিল এটি জনপদ, যা শহরের কেন্দ্রে সিগন্যাল পাহাড়ের ঢালে বিস্তৃত এবং কেপ টাউনের কেপ মালয় সংস্কৃতির ঐতিহাসিক কেন্দ্রবিন্দু। ১৭৯৪ সালে নির্মিত দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ইসলামি স্থাপনা আউয়াল মসজিদ এই এলাকায় অবস্থিত।

বো-কাপ
Bo-Kaap
কেপ টাউনের বো-কাপ অঞ্চলের পূর্বের দৃশ্য, পেছনে টেবল পর্বত দৃশ্যমান।
কেপ টাউনের বো-কাপ অঞ্চলের পূর্বের দৃশ্য, পেছনে টেবল পর্বত দৃশ্যমান।
ডাকনাম: ভালেন ড্রপ, মালয় কোয়ার্টার, স্ল্যামস ব্রুট
বো-কাপ দক্ষিণ আফ্রিকা-এ অবস্থিত
বো-কাপ
বো-কাপ
স্থানাঙ্ক: ৩৩°৫৫′১৫″ দক্ষিণ ১৮°২৪′৫৫″ পূর্ব / ৩৩.৯২০৮৩° দক্ষিণ ১৮.৪১৫২৮° পূর্ব / -33.92083; 18.41528
দেশদক্ষিণ আফ্রিকা
প্রদেশওয়েস্টার্ন কেপ
পৌরসভাকেপ টাউন শহর
প্রতিষ্ঠিত১৭৬০
আয়তন[১]
 • মোট০.৯৫ বর্গকিমি (০.৩৭ বর্গমাইল)
রেসিয়াল মেকআপ (২০১১)[১]
 • কৃষ্ণাজ্ঞ আফ্রিকান৯.০%
 • রঙ্গিন৬৬.০%
 • ভারতীয়/এশিয়৩.৪%
 • শ্বেতাজ্ঞ৪.৩%
 • অন্যান্য১৭.৩%
মাতৃভাষা (২০১১)[১]
 • ইংরেজি৬৪.০%
 • আফ্রিকান্স৩০.৩%
 • অন্যান্য৫.৭%
পোস্টাল কোড (রোড)৮০০১
এলাকা কোড+২৭ (০)২১

উজ্জ্বল রঙিন ঘর এবং খোয়া পাথরের রাস্তার জন্য জনবহুল স্থানটি বিখ্যাত। ঐতিহ্যগতভাবে এই বহুসংস্কৃতি অঞ্চলের জনসংখ্যার প্রায় ৭০ শতাংশ মুসলিম। দক্ষিণ আফ্রিকার ঐতিহ্য সম্পদ সংস্থার মতে, এই অঞ্চলে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক-১৮৫০ সালের স্থাপত্যের বৃহত্তম সংকলন রয়েছে এবং এখন পর্যন্ত টিকে থাকা কেপ টাউনের প্রাচীনতম আবাসিক এলাকা।[৩][৪]

ইতিহাসসম্পাদনা

১৭৬০-এর দশকের শেষের দিকে ওলন্দাজ উপনিবেশ আমলে ইয়ান দে ভাল নামে একজন ওলন্দাজ বো-কাপের ড্রপ ও ওয়াল স্ট্রিটের নিকটস্থ একখণ্ড জমি ক্রয় করেছিলেন।[২] বছর খানেক পর রোজ, খিয়াপিনি এবং শর্ট মার্কেট স্ট্রিট পর্যন্ত ভালের ভূ-সম্পত্তি বিস্তৃতি লাভ করে। মালয় কোয়ার্টার নামে পরিচিতি পাওয়ার পূর্বে এলাকাটি ভালেন ড্রপ (ভালের নামানুসারে) নামেও পরিচিত ছিল। স্থানীয়রা একে স্ল্যামস ব্রুট কিংবা স্কচচেক্লুফ নামে ডাকে। ১৭৬৩ সালে ভাল এই জমিতে কিছু একতলা ঘর নির্মাণ করে নিজের ক্রীতদাসদের নিকট সেগুলি ভাড়া দিতে শুরু করে। স্থানীয়রা এগুলিকে huurhuisjes অর্থাৎ ভাড়া ঘর বলতো।[২] এই ক্রীতদাসদের ‘কেপ মালয়েশ’ নামে পরিচিত ছিল, যাদের বেশিরভাগই মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া থেকে আগত। বাকিদের কাজের উদ্দেশে আফ্রিকার অন্যান্য অংশ থেকে কেপ টাউনে আনা হয়েছিল।[২] মূলত এ এথেই ‘মালয়’ নামের উৎপত্তি। একই সময়ে কেপ টাউনে ইসলামের প্রবেশ ঘটে।

জাতীয় ঐতিহ্য পদমর্যাদাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Sub Place Schotsche Kloof"Census 2011 
  2. "Getting to know the Bo-Kaap" (ইংরেজি ভাষায়)। কেপ টাউন ট্রাভেল। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০২০ 
  3. ইসমাইল, সুকন্যা (২ মে ২০১৯)। "Recognition for Bo-Kaap as 19 sites to be declared National Heritage Sites" (ইংরেজি ভাষায়)। আইএলও। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০২০ 
  4. মহীন, রীয়াদ (১৯ জুলাই ২০২০)। "বো-কাপ পুরোটাই যেন স্বাধীনতার রঙ"বাংলা ট্রিবিউন। ১৯ জুলাই ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা