বেগম হজরত মহল (উর্দু: بیگم حضرت محل‎‎; আনুমানিক ১৮২০ - ৭ এপ্রিল ১৮৭৯) ছিলেন আওধের বেগম এবং ওয়াজেদ আলি শাহর স্ত্রী। ওয়াজেদ আলি শাহ কলকাতায় নির্বাসিত হওয়ার পর তিনি আওধের রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব নেন। সিপাহী বিদ্রোহের সময় তিনি ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত তিনি পরাজিত হন। তিনি নেপালে আশ্রয় নেন। ১৮৭৯ সালে কাঠমান্ডুতে তার মৃত্যু হয়।[১]

বেগম হজরত মহল
আওধের বেগম
Begum hazrat mahal.jpg
বেগম হজরত মহল
জন্মআনুমানিক ১৮২০
ফৈজাবাদ, আওধ, ভারত
মৃত্যু৭ এপ্রিল ১৮৭৯ (৫৯ বছর)
কাঠমান্ডু, নেপাল
স্বামীওয়াজেদ আলি শাহ
ধর্মইসলাম

স্মৃতিসম্পাদনা

 
কাঠমান্ডুতে জামে মসজিদের নিকটে বেগম হজরত মহলের কবর

বেগম হজরত মহলের কবর কাঠমান্ডুর কেন্দ্রে জামে মসজিদের নিকটে অবস্থিত।কবরটি বিখ্যাত দারবার মার্গ থেকে দূরে নয়। জামে মসজিদ কমিটি এর তদারক করে থাকে। ১৯৬২ সালের ১৫ আগস্ট লখনৌয়ের হজরতগঞ্জের পুরনো ভিক্টোরিয়া পার্কে তাকে সম্মান জানানো হয়। ১৯৮৪ সালের ১০ মে ভারত সরকার তার সম্মানে ডাকটিকেট প্রকাশ করে।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "A link to Indian freedom movement in Nepal"The Hindu। ৮ এপ্রিল ২০১৪। 
  2. "Begum Hazrat Mahal"। Indianpost.com। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০১২ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা