বুল্লে শাহ (১৬৮০–১৭৫৭) (পাঞ্জাবি: بلہے شاہ, ਬੁੱਲ੍ਹੇ ਸ਼ਾਹ, হিন্দি: बुल्ले शाह) ছিলেন একজন পাঞ্জাবি কবি, সুফি, দার্শনিক এবং মানবতাবাদী। তার পুরো নাম ছিল সৈয়দ আব্দুল্লাহ শাহ কাদরি।[১]

বুল্লে শাহ
BullehShah.jpg
বুল্লে শাহ এর একটি শৈল্পিক চিত্রাঙ্কন
সুফি কবি
জন্ম১৬৮০
Uch, পশ্চিম পাঞ্জাব
মৃত্যু১৭৫৭
কাসুর, পাঞ্জাব, পাকিস্তান
সম্মানিতইসলাম
যার দ্বারা প্রভাবিত হয়েছেনইসলামের নবী মুহাম্মাদ
শাহ হুসেইন
মুলতান বাহু
শাহ শরফ
যাকে প্রভাবিত করেছেনঅগণিত পাকিস্তানি সুফি কবিতা
ঐতিহ্য / ধরণকাফি

পূর্ব জীবনসম্পাদনা

বুল্লে শাহ ১৬৮০ সালে পাঞ্জাবের একটি ছোট গ্রাম ভাওয়ালপুরে জন্ম গ্রহণ করেন, যা বর্তমান পাকিস্থানে অবস্থিত। তার পিতা নাম শাহ মুহাম্মদ দরবেশ; তিনি পেশায় ছিলেন একজন শিক্ষক এবং ধর্ম প্রচারক হিসাবে একটি মসজিদে কাজ করতেন। বুল্লে শাহের পূর্বপুরুষগণ বুখারা থেকে এসেছিলেন। ধারনা করা হয় যে, তার পুর্বপুরুষগন উজবেকিস্তান হতে এসেছিলেন। তার পুর্বপুরুষগন নবী মুহাম্মদের বংশধর। তিনি যখন ৬ মাসের বয়সের ছিলেন তখন তার পরিবার মালাকওয়াল এ বসবাস শুরু করেন। তিনি মাওলানা মইনুদ্দিন-এর নিকট শিক্ষা লাভ করেন।

কবিতার ধরণসম্পাদনা

কবিতার ধরনের দিক হতে বুল্লে শাহ এর ধরন ছিল কাফি, যা সুফি অধিবিদ্যা ওয়াহদাতুল উজুদ দ্বারা প্রভাবিত ছিল, যা কিনা একটি পাঞ্জাবি ঘরানার রাগ, সিন্ধি এবং সিরাকি কবিতা শুধু সুফি এবং সিন্ধিদের এবং পাঞ্জাবিদের দ্বারাই ব্যবহারিত হত না বরং শিখ গুরুরাও তা ব্যবহার করতেন।

মানবতাবাদীসম্পাদনা

বুল্লে শাহ ছিলেন একজন মানবতাবাদী। বুল্লে শাহকে পাঞ্জাবের লালন হিসেবে চিহ্ণিত করা যায়। মরমী কবি সুফিসাধক ছাড়াও বাবা বুল্লে শাহ ছিলেন পরম মানবতাবাদী। বুল্লা শাহের সময়কালটা মুসলিম ও শিখ দাঙ্গায় দুঃখজনকভাবে ছিল লাঞ্ছিত । সে ভয়াবহ সময়টায় দু-পক্ষেরই বিপুল মানুষ নিহত হচ্ছিল। সে সময়ই একবার একদল শিখ দ্বারা কয়েকজন মুসলিম নিহত হয়। মুসলিমরা বদলা নেবে সিদ্ধান্ত নেয়। প্রতিশোধ হিসেবে মুসলিমরা একজন নিরীহ শিখকে হত্যা করে। মুসলিম হলেও বুল্লা শাহ নিরীহ শিখ হত্যার বিরোধিতা করেন। তিনি দুহাত তুলে বললেন - স্বন্ত্রাস কখনেই স্বন্ত্রাসের জবাব নয়। এভাবে নিহত শিখের পক্ষ নেওয়ায় মোল্লারা বুল্লে শাহের ওপর ক্ষেপে যায়। ক্ষেপে গেলেও বুল্লে শাহ সেই সময়ে পাঞ্জাবের জনগনের জন্য হয়ে উঠেছিলেন শান্তির প্রতীক।

বর্তমান শিক্ষাসম্পাদনা

১৯৯০ সালের শুরুএর দিকে জুনুন নামক একটি পশ্চিম পাঞ্জাবি ব্যান্ড তার গান গাওয়া শুরু করে, পরবর্তিতে রাব্বি সারগেইল নামক এক ভারতীয় শিখ 'বুল্লে কি জানা ম্যায় কউন্' (বুল্লে! আমি জানি না, আমি কে) নামক গান রচনা করে ব্যপক খ্যাতি লাভ করেন। এইছাড়া বিখ্যাত ছবি 'দিল সে' এর 'ছাইয়া ছাইয়া' গানটিও বুল্লা সাহের থেকে নেওয়া।

মৃত্যুসম্পাদনা

তিনি ১৭৫৭ সালে মারা যান, তার কবর 'কাসুর' এ অবস্থিত, যা বর্তমানে পাকিস্তানের অংশ।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা