বুনো হাঁস (চলচ্চিত্র)

২০১৪ সালের ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্র

বুনো হাঁস খ্যাতনামা পরিচালক অনিরুদ্ধ রায় চৌধুরী পরিচালিত ২০১৪ সালের একটি ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রসমরেশ মজুমদারের বুনো হাঁসের পালক উপন্যাসের উপর নির্মিত এই চলচ্চিত্রে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করবেন দেব, শ্রাবন্তীতনুশ্রী চক্রবর্তীশান্তনু মৈত্র এই চলচ্চিত্রের সংগীত পরিচালক। আন্ডারওয়ার্ল্ড কাহিনীর উপর নির্মিত এই অন্য ঘরানার চলচ্চিত্রে প্রথমবারের মত দেব-শ্রাবন্তী জুটি একসাথে। এর আগে তারা সেদিন দেখা হয়েছিল নামের বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন।

বুনো হাঁস
বুনো হাঁস (চলচ্চিত্র) পোস্টার.jpg
বুনো হাঁস চলচ্চিত্রের অফিসিয়াল পোস্টার
বুনো হাঁস
পরিচালকঅনিরুদ্ধ রায় চৌধুরী
প্রযোজকরিলায়েন্স এন্টারটেইনমেন্ট
রচয়িতাসমরেশ মজুমদার
কাহিনিকারসমরেশ মজুমদার
উৎসসমরেশ মজুমদার কর্তৃক 
বুনো হাঁসের পালক[১]
শ্রেষ্ঠাংশেনিচে দেখুন
সুরকারশান্তনু মৈত্র
পরিবেশকরিলায়েন্স এন্টারটেইনমেন্ট
মুক্তি১৫ আগস্ট, ২০১৪
দৈর্ঘ্য১৪৩ মিনিট
দেশভারত
ভাষাবাংলা

২০১৪ সালের ১৫ই আগস্ট চলচ্চিত্রটি মুক্তিলাভ করে।[২]

কাহিনীসম্পাদনা

আন্ডারওয়ার্ল্ড কাহিনীর উপর নির্মিত হয়েছে এই চলচ্চিত্র। অমল (দেব) নামের এক সাধারণ ছেলে পরিস্থিতির কারণে চোরাচালানির ব্যবসায় নেমে পড়ে। যখন সে তার ভুল বুঝতে পারে, ততক্ষণে সে এক ভয়ানক খেলার সম্মুখীন।[৩][৪]

অভিনয়েসম্পাদনা

সংগীতসম্পাদনা

বুনো হাঁস
 
শান্তনু মৈত্র কর্তৃক সংগীত অ্যালবাম
মুক্তির তারিখ২৭ জুন ২০১৪ (2014-06-27)
ঘরানাচলচ্চিত্রের গান
দৈর্ঘ্য২৬:
সঙ্গীত প্রকাশনীটি-সিরিজ
প্রযোজকভূষণ কুমার (রিলায়েন্স এন্টারটেইনমেন্ট)
শান্তনু মৈত্র কালক্রম
ববি জাসুস
(২০১৪)
বুনো হাঁস
(২০১৪)

শান্তনু মৈত্র এই চলচ্চিত্রের সংগীত পরিচালক। চলচ্চিত্রের গীতিকার শ্রীজাত, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়চন্দ্রিল ভট্টাচার্য। ২৭শে জুন ২০১৪ তারিখে এর সম্পূর্ণ অ্যালবামটি আই-টিউনে মুক্তি পায়।[৭] টি-সিরিজও ইউটিউবে এই অ্যালবামটির জুকবক্স আপলোড করে ঐ একইদিনে।[৮] চলচ্চিত্রটিতে মোট পাঁচটি গান রয়েছে।[৯]

অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়কে এ চলচ্চিত্রের জন্য গান গেয়েছেন।[১০] পাপন দুটো গান গান, যা একটি শ্রেয়া ঘোষালের সাথে।[১১] শ্রেয়া ঘোষাল একটি সাক্ষাৎকারে বলেন যে তিনি বুনো হাঁসে আরো একটি গান গাইবেন।[১২] বিখ্যাত গায়ক বনি চক্রবর্তীরও একটি গান আছে।[১৩]

নং.শিরোনামগীতিকারকণ্ঠশিল্পী(রা)দৈর্ঘ্য
১."জিন্দেগি কাহি ভি থামতি নেহি[১৪]"শ্রীজাতবনি চক্রবর্তী৪:৩৮
২."হারিয়ে ঠিকানা খোঁজে ঘর"শ্রীজাতলোপামুদ্রা মিত্র, রাজা হাসান৬:৩৮
৩."এসেছে রাত[১৫]"শ্রীজাতপাপন, শ্রেয়া ঘোষাল৪:৩৫
৪."আঁকা বাঁকা আলো ঢাকা"অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, চন্দ্রিল ভট্টাচার্যতর্ষা সরকার৪:৫৫
৫."বেলা বয়ে যায়"অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, চন্দ্রিল ভট্টাচার্যশ্রেয়া ঘোষাল, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়৫:১২
মোট দৈর্ঘ্য:২৬:০৮

নির্মাণসম্পাদনা

প্রযোজনাসম্পাদনা

অরিন্দম সিল এই চলচ্চিত্রের প্রযোজক[৬] চলচ্চিত্রটি টলিউডের অন্যতম ব্যয়বহুল চলচ্চিত্র।[১৬] প্রথমদিকে এই চলচ্চিত্রের নাম দেয়া হয়েছিল রানওয়ে[৪]

অভিনেতা নির্বাচনসম্পাদনা

পরিচালক অনিরুদ্ধ রায় চৌধুরীর সাথে এই চলচ্চিত্রের অভিনেতাদের এটাই প্রথম কাজ।[১৭] প্রথমে কোয়েল মল্লিককে এই চলচ্চিত্রের মুখ্য অভিনেত্রী হিসেবে ঠিক করা হয়েছিল, কিন্তু পরে তার সমস্যার কারণে রাধিকা আপ্‌তে, রাইমা সেন এবং পায়েল সরকারকে এই ভূমিকার জন্য ভাবা হয়েছিল।[১৮] শেষে শ্রাবন্তীকেই বেছে নেয়া হয়।[৩]

প্রখ্যাত বাঙালি অভিনেত্রী মুনমুন সেন তার সর্বশেষ চলচ্চিত্র বাউ ব্যারাকস্‌ ফরেভার-এ অভিনয়ের সুদীর্ঘ নয় বছর পর আবারও এই চলচ্চিত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অভিনয়ের মধ্যদিয়ে ফিরে এসেছেন। পরিচালক বলেন, "আর কোন অভিনেত্রীকে এই চরিত্রের জন্য ভাবা যাচ্ছিল না।"[৫]

দৃশ্যায়ণসম্পাদনা

পরিচালক অনিরুদ্ধ রায় চৌধুরী এবং প্রযোজক অরিন্দম সিল প্রথমে মুম্বাইকে চিত্রায়নের জন্য নির্বাচন করেন।[১]

বাংলাদেশে এই চলচ্চিত্রের একটি বড় অংশ ধারণ করা হয়েছে। পুরো ইউনিট ঢাকার ওয়াশিংটন হোটেল-এ থাকে। তারা মানিকগঞ্জ, আরিচা সহ বেশকিছু স্থানে দৃশ্যায়ণ করেন।[১৯][২০][২১] এছাড়া ব্যাংকক এবং কলকাতাতেও দৃশ্যায়ণ হয়। কাহিনীর ম্যাসাজ পার্লার স্থানের কাজ হয় ব্যাংককে[৬]

রিভিউসম্পাদনা

প্রফেশনাল রিভিউ
রিভিউ স্কোর
সমালোচক সূত্র রেটিং
দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া      
এই সময়      
সঙ্গীতা বন্দ্যোপাধ্যায় আনন্দবাজার পত্রিকা           
এবেলা           
৯৮.৩ রেডিও মির্চি      
১০৭.৫ পাওয়ার এফএম      
ফিভার ১০৪ এফএম           

দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া এর রিভিউতে দেবের অভিনয়, অনুরুদ্ধ রায় চৌধুরীর পরিচালনার প্রশংসা করে।[২২] আনন্দবাজার পত্রিকা এই চলচ্চিত্রের গল্প সাজানোর ভঙ্গি, তীক্ষ্ণ অভিনয়ের উচ্চকিত প্রশংসা করে "দুইবার দেখার মত ছবি" বলে অভিহিত করে।[২৩] মুভিজ ম্যানিয়া এই চলচ্চিত্রের রিভিউতে এর সংগীত, কাহিনী এবং পরিচালনার প্রশংসা করে বলে,"এই ছবির মাধ্যমে দেব নিজেকে টলিউডের মুকুটধারী সম্রাট হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে।"[২৩] সংবাদ প্রতিদিন এর রিভিউতে বলে, "দেবকে হারিয়ে অমল জয়ী।" এবেলা এর রিভিউতে চলচ্চিত্রটি "টান-টান উত্তেজনাময়" বলে অভিহিত করে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Arindam Sil and Aniruddha Roy Chowdhury exasperated!"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  2. "নিজেদের বদলে ফেলাই আজ তারকাদের দেব-ধর্ম"আনন্দবাজার পত্রিকা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ আগস্ট ২০১৪ 
  3. "Srabanti replaces Koel?"The Times of India। ৫ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  4. "Koel in Tony's next?"The Times of India। ১১ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  5. "Moon Moon Sen set to return to big screen"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  6. "Arindam Sil spotted at Bangkok massage parlour!"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  7. "Buno Haansh (Original Motion Picture Soundtrack)"। iTunes। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৪ 
  8. "Buno Haansh Full Songs Jukebox"। YouTube। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৪ 
  9. "Shantanu Moitra status update 2"। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  10. "Ananda Plus archive"Anandabazar Patrika। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  11. "You can't cheat your audience and win: Papon"The Times of India। ৩ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০১৩ 
  12. "Watching a movie has become a luxury: Shreya Ghoshal"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৪ 
  13. "Music needs to be promiscuous: Bonnie Chakraborty"The Times of India। ২৬ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৪ 
  14. "Buno Haansh Song 1"। সংগ্রহের তারিখ 03 July 2014  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  15. "Buno Haansh Song 2"। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৪ 
  16. "Tollywood divided over new rule"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  17. "Buno Haansh Look Test"ABP Ananda's Channel on YouTube। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৩ 
  18. "Koel Mallick not in Tony's next"The Times of India। ১ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০১৩ 
  19. "ঢাকায় দেব"The Prothom-Alo। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  20. "শুটিংয়ের ফাঁকে দেবের সঙ্গে"The Prothom-Alo। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  21. "বাংলাদেশের তারকাদের তেমন চেনেন না দেব"Bangla News 24। ৪ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  22. "Buno Haansh"দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০১৪ 
  23. "দ্বিতীয়বার দেখার মতো ছবি"Anandabazar Patrika। সংগ্রহের তারিখ ২২ আগস্ট ২০১৪  উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "দ্বিতীয়বার দেখার মতো ছবি" নামটি একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে

বহিঃসংযোগসম্পাদনা