"কৌশলগত বাজারজাতকরণ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

 
==কৌশলগত বাজারজাতকরণ প্রক্রিয়া==
[[Image:Strategic-Marketing-Process (কৌশলগত বাজারজাতকরণ প্রক্রিয়া).png|center|thumb|500px600px|কৌশলগত বাজারজাতকরণ প্রক্রিয়ার ধারাবাহিক ধাপসমূহ]]
কৌশলগত বাজারজাতকরণ একটি সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ করে:<br/>
'''ধাপ ১: কৌশলগত অবস্থা বিশ্লেষণ:''' একটি প্রতিষ্ঠান যখন বাজার উপযোগী বাজারজাতকরণ কৌশল গ্রহণের উদ্যোগ নেয়, তখন কয়েকটি বিষয়কে বিবেচনা করা জরুরি। যথা:
* বাজারজাতকরণের সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন পক্ষগুলো, তথা সরবরাহকারী, বণ্টনকারী, ক্রেতা প্রভৃতি সকল পক্ষগুলোর সাথে সম্পর্ক উন্নয়নের কৌশল প্রণয়ন করতে হয়।
* [[পণ্যের জীবনচক্র|পণ্যের জীবনচক্রের]] পতনস্তরে যেন কোম্পানী নতুন নতুন পণ্য বাজারজাত করতে পারে, তজ্জন্য নতুন পণ্যের পরিকল্পনা প্রণয়ন করা জরুরি।
'''ধাপ ৩: বাজারমুখী কার্যক্রম উন্নয়ন:''' বাজারমুখী কার্যক্রম উন্নয়ন বেশ জটিল এবং এপর্যায়ে বাজারজাতকারী বাজার অবস্থান গ্রহণে বিভিন্ন কৌশল গ্রহণ করে থাকেন। শুরুতেই পণ্য কৌশল গ্রহণ করতে হয়। পণ্য কৌশল নির্ধারণ করে তা বণ্টনের কৌশল নির্ধারণ করতে হয়। বণ্টন কৌশল অবশ্যই সহজতর উপায়ে বণ্টনকে নিশ্চিত করবে। এরপর পণ্যের মূল্য নির্ধারণ করতে হয়। পণ্যের মূল্য নির্ধারণ কৌশলে অবশ্যই মানসম্মত কিন্তু ক্রেতা-উপযোগী মূল্য নির্ধারণ করতে হয়। এই পণ্যটি লক্ষ্য-বাজারে যথোপযুক্ততায় পৌঁছে দিতে প্রসার কৌশল গ্রহণ করা হয়। অর্থাৎ সামগ্রিকভাবে ক্রেতার নিকট ব্র্যান্ডকে গ্রহণযোগ্য করে তোলার কৌশল গ্রহণ করা হয়।<br/>
[[Image:Developing-Marketing-Strategies (বাজারজাতকরণ কৌশল উন্নয়ন).png|rightcenter|thumb|300px|বাজারমুখী কার্যক্রম উন্নয়নে [[বাজারজাতকরণ মিশ্রণ|বাজারজাতকরণ মিশ্রণগুলোর]] কৌশল গৃহীত হয়]]<br/>
'''ধাপ ৪: বাজারমুখী কৌশল প্রয়োগ ও ব্যবস্থাপনা:''' বাজারমুখী কৌশল প্রণীত হবার পর তা থেকে প্রতিষ্ঠান সুফল পায় যখন তা প্রয়োগ ও পরিচালনা সম্ভব হয়। এক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানকে দুটো বিষয় লক্ষ্য রাখতে হয়:
* বাজারমুখী প্রতিষ্ঠানগুলো সফলতা পায় তখনই যখন প্রয়োজনীয় কাজে লোক নিয়োজিত করা যায়। প্রতিষ্ঠানের কাজের উপযোগী লোক নিয়োগ করার মাধ্যমে একটি কার্যকরী বাজারমুখী সংগঠন তৈরি করা বাজারমুখী কৌশল প্রয়োগের অন্যতম একটি ধাপ।