"মঙ্গলকাব্য" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

Typo fixing, replaced: অন্তর্ভূক্ত → অন্তর্ভুক্ত, কিংবদন্তী → কিংবদন্তি using AWB
(Typo fixing, replaced: অন্তর্ভূক্ত → অন্তর্ভুক্ত, কিংবদন্তী → কিংবদন্তি using AWB)
 
==কবিতা==
মঙ্গলকাব্য বিশেষ হিন্দু দেবতা যারা “নিম্নকোটি” নামে পরিচিত ছিল তাদের মাহাত্ম বর্ণণায় ব্যবহৃত হত বলে ইতিহাসবিদেরা মনে করেন কেননা এগুলো শাস্ত্রীয় হিন্দু সাহিত্য যেমন বেদ ও পুরাণে অনুল্লেখ্য ছিল। এই দেবতাগণ বাংলার স্থানীয় ছিলেন (যেমন মনসা) এবং তারা আঞ্চলিক হিন্দুবাদের অন্তর্ভূক্তঅন্তর্ভুক্ত হন। এই দেবতাদের প্রায়শই অসাধারণ দৃঢ মানবিক গুণাবলীর অধিকারী হতে দেখা যায় মানুষের সাথে সরাসরি আচরণে লিপ্ত হন। তাদের মধ্যে অন্যান্য মানুষের মত ত্রুটি যেমন ঘৃণাও পরিলক্ষিত হয়।
 
মঙ্গলকাব্যে স্থানীয় ও বহিরাগত দেবতাদের যুদ্ধাচরণ ঘটে এবং পরিসমাপ্তিতে স্থানীয় দেবতারা জয়লাভ করেন। মঙ্গল শব্দটির অপর অর্থ বিজয় এবং কবিতাগুলো লেখা হয়েছিল বিদেশী ঈশ্বরপুজারীদের বিরুদ্ধে স্থানীয় দেবতাদের জয়কে উত্‌যাপন উপলক্ষে। অনেক কবিতায় বিজয় শব্দটির উল্লেখ থাকে যেমন বিপ্রদাশ পিপিলাইয়ের মনসাবিজয়।
 
===কারণ===
দ্বিতীয় অংশে কবি ব্যাখ্যা করেন কেন তিনি কিংবদন্তীটিকিংবদন্তিটি রচনা করেছেন। কবি নিজের পরিচয় তুলে ধরেন এবং সেই দেবদর্শনের বর্ণনা দেন যা তাকে কবিতাটি লিখতে অনুপ্রাণিত করেছে। দেবদর্শন প্রধানত স্বপ্ন বা কোন স্বর্গীয় আদেশ হিসেবে আসে।
 
===দেবখণ্ড===
২,২০০টি

সম্পাদনা