"নৃসিংহ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

''[[কূর্মপুরাণ]]''-এর বর্ণনা অনুসারে, এরপর [[পুরুষ (হিন্দুধর্ম)|পুরুষ]] ও দৈত্যদের মধ্যে এক প্রবল সংগ্রাম শুরু হয়। এই যুদ্ধে তিনি পাশুপত নামে এক মহাস্ত্রকে প্রতিহত করেন। পরে প্রহ্লাদের ভাই অনুহ্রদের নেতৃত্বাধীন দৈত্যবাহিনীকে নৃসিংহ অবতারের দেহ হতে নির্গত এক মহাসিংহ যমালয়ে প্রেরণ করেন।<ref name="Soifer">p.85: K.P.1.15.70</ref> ''[[মৎস্যপুরাণ]]'' (১৭৯) গ্রন্থেও নৃসিংহ অবতারের বর্ণনার পর এই ঘটনার উল্লেখ করা হয়েছে।<ref name = "Soifer"/>
 
''[[ভাগবত পুরাণ]]''-এ আরও বলা হয়েছে: হিরণ্যকশিপুকে বধ করার পর সকল দেবতাই নৃসিংহদেবের ক্রোধ নিবারণে ব্যর্থ হন। বিফল হন স্বয়ং [[শিব|শিবও]]। সকল দেবগণ তখন তাঁর পত্নী [[লক্ষ্মী|লক্ষ্মীকে]] ডাকেন; কিন্তু লক্ষ্মীও স্বামীর ক্রোধ নিবারণে অক্ষম হন। তখন ব্রহ্মার অনুরোধে প্রহ্লাদ এগিয়ে আসেন। ভক্ত প্রহ্লাদের স্তবগানে অবশেষে নৃসিংহদেব শান্ত হন।<ref> [http://srimadbhagavatam.com/7/9/en1 Bhag-P 7.9] </ref> নৃসিংহদেব "প্রহ্লাদকে কোলে লইয়া গা চাটিতে লাগিলেন।"<ref>''দশাবতার চরিত'', ইন্দ্রদয়াল ভট্টাচার্য, উদ্বোধন কার্যালয়, কলকাতা, ২০০৯ মুদ্রণ, পৃ. ৪৮</ref> প্রত্যাবর্তনের পূর্বে নৃসিংহদেব প্রহ্লাদকে রাজা করে দেন।<ref name="Soifer">p.84</ref>
 
[[Image:Sarabha Narasinmha Kangra.jpg|thumb|210px|নৃসিংহের সঙ্গে [[শরভ]] (ডানে)]]