জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বানান সংশোধন
(বানান সংশোধন)
(বানান সংশোধন)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
[[চিত্র:National Curriculum and Textbook Board (NCTB) new science and math book, January 2018 (4).jpg|thumb|জাতীয় পাঠ্যক্রম এবং পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের নতুন বিজ্ঞান ও গণিত বই]]
 
'''জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড''' অথবা '''এনসিটিবি''' বাংলাদেশের [[শিক্ষা মন্ত্রণালয় (বাংলাদেশ)|শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের]] অধীনে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা ব্যবস্থা পরিচালনার জন্যে গঠিত স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশের সব সরকারি বিদ্যালয় এনসিটিবির আওতাধীন। নিরক্ষরতা দূরীকরণের জন্য ২০১০ সাল থেকে প্রতিবছর ১ম থেকে ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হয়। বাংলাদেশের সব পাবলিকসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, এবংমাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ অনেক বেসরকারি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ও এনসিটিবি-এর পাঠ্যক্রম অনুসরণ করে।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|শিরোনাম=পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রম বিশ্বে অতুলনীয়|ইউআরএল=https://www.dailyinqilab.com/article/56386/পাঠ্যপুস্তক-বিতরণ-কার্যক্রম-বিশ্বে-অতুলনীয়-|ওয়েবসাইট=[[দৈনিক ইনকিলাব]]|সংগ্রহের-তারিখ=28 মার্চ 2018|তারিখ=২ জানুয়ারি ২০১৭}}</ref>এই বইগুলি অধিকাংশ বাংলাদেশী বিদ্যালয়গুলির পাঠ্যক্রম নিয়ে গঠিত। প্রতিটি জাতীয় পাঠ্যক্রমের দুটি সংস্করণ রয়েছে।
 
==ইতিহাস==
১,৪৬৮টি

সম্পাদনা