"বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

কপি এডিট
(কপি এডিট)
'''বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি অফ বাংলাদেশ''' ([[ইংরেজী ভাষা|ইংরেজী]]:Asiatic Society of Bangladesh) [[বাংলাদেশ|বাংলাদেশের]] একটি অরাজনৈতিক ও অমুনাফাভোগী গবেষণাধর্মী প্রতিষ্ঠান। [[১৯৫২|১৯৫২ খ্রিষ্টাব্দে]] 'এশিয়াটিক সোসাইটি অফ পাকিস্তান' নামে প্রতিষ্ঠিত হয়। [[১৯৭২|১৯৭২ খিষ্টাব্দে]] বাংলাদেশ স্বাধীন হলে তার নাম পরিবর্তিত হয়ে হয় এশিয়াটিক সোসাইটি অফ বাংলাদেশ। এই প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠার পিছনে পৃথিবী বিখ্যাত ইন্দোলজিস্ট ও পুরাতাত্ত্বিক জনাব [[আহমেদ হাসান দানী]] মূখ্য ভূমিকা পালন করেন। প্রতিষ্ঠাতাদের মধ্যে অন্যান্যরা হলেন: জনাব মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, এ.বি.এম.হাবীবুল্লাহ, আব্দুল হালিম, এবং অনেকে। প্রতিষ্ঠাতারা চেয়েছিলেন এটি যেন বিশেষ করে এশিয়া বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করে।
 
==বিস্তারিত==
এশিয়াটিক সোসাইটি অফ বাংলাদেশ একটি অরাজনৈতিক ও অমুনাফাভোগী গবেষণাধর্মী প্রতিষ্ঠান, যাপ্রতিষ্ঠানটি [[গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার|গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের]] [[এনজিও ব্যুরো]] এবং ১৮৬৪ খিষ্টাব্দের [[সামাজিক আইন, ১৮৬৪|সামাজিক আইনের]] অধীনে নিবন্ধীকৃত। বাংলাদেশের প্রথিতযশা একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে এটি ১৭ সদস্যবিশিষ্ট একটি কাউন্সিল দ্বারা পরিচালিত হয়, যা সদস্যদের ভোটে নির্বাচিত হয়। এই কাউন্সিলের মেয়াদ ২ বছর। দৈনন্দিন ঘটনাবলী সাধারণ সম্পাদক এবং সম্পাদক ব্যবস্থাপনা করলেও যেকোনো নীতি নির্ধারণী সিদ্ধান্তে কাউন্সিল ভূমিকা রাখে। প্রতি মাসে বাধ্যতামূলকভাবে একবার কাউন্সিল বসে। অফিসের যাবতীয় কর্মীগণ এবং কাউন্সিলের সদস্যগণ সম্মানীর বিপরীতে কাজ করেন।
 
{{অসম্পূর্ণ}}
==তথ্যসূত্র==
[http://www.asiaticsociety.org.bd/index.htm www.asiaticsociety.org.bd]
 
==বহিঃসংযোগ==
{{অসম্পূর্ণ}}
*[http://www.asiaticsociety.org.bd/index.htm www.asiaticsociety.org.bd] বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটির ওয়েবসাইট।
[[en:Asiatic Society of Bangladesh]]
২৭,১১৭টি

সম্পাদনা