বিশৃঙ্খলা-মাত্রা: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

103.96.105.230 (আলাপ)-এর সম্পাদিত 5474806 নম্বর সংশোধনটি বাতিল করা হয়েছে একই কথা
সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(103.96.105.230 (আলাপ)-এর সম্পাদিত 5474806 নম্বর সংশোধনটি বাতিল করা হয়েছে একই কথা)
 
}}
{{তাপগতিবিদ্যা}}
কোনো ভৌত ব্যবস্থায় বিদ্যমান '''বিশৃঙ্খলা-মাত্রা''' বা '''এনট্রপি''' বা '''রুদ্ধতাপ''' ({{lang-en|Entropy}}) হলো [[পরিসংখ্যানিক বলবিদ্যা|পরিসংখ্যানিক বলবিজ্ঞানের]] একটি গুরুত্বপূর্ণ রাশি। কোনো প্রক্রিয়ায় (process) আগাগোড়াই যদি [[তাপীয় সাম্যাবস্থা]] সংরক্ষিত থাকে, তাহলে সেখানে বিশৃঙ্খলা-মাত্রার মানও অপরিবর্তিত থাকে। [[রুদ্ধতাপীয় প্রক্রিয়া|রুদ্ধতাপীয় প্রক্রিয়ায়]] বস্তুর যে [[তাপগতীয় চলরাশি]] বা তাপীয় ধর্ম স্থির থাকে, তাকে '''এনট্রপি''' বলে। কোনো একটি সংস্থা বা চক্রের তাপমাত্রা সাপেক্ষে গৃহীত বা বর্জিত তাপের পরিবর্তনের হার দ্বারা এনট্রপি পরিমাপ করা হয়।<ref name="ReferenceA">খান, ড. আমির হোসেন ও ইসহাক, প্রফেসর মোহাম্মদ এবং ইসলাম, ড. মো. নজরুল ২০১৯. &nbsp;পদার্থবিজ্ঞান দ্বিতীয় পত্র: একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণি. (ষষ্ঠ সংস্করণ). আইডিয়াল বুকস, ঢাকা.</ref>
 
==গাণিতিক ব্যাখ্যা==
প্রত্যাবর্তী প্রক্রিয়ায় এনট্রপির কোনো পরিবর্তন ঘটেনা। অর্থাৎ, ds=0
অপ্রত্যাবর্তী প্রক্রিয়ায় এনট্রপির পরিবর্তন ঘটে। সাধারণত এনট্রপি বাড়ে। পৃথিবীর এনট্রপি বাড়ছেই। কারণ প্রকৃতির সব বস্তুই [[তাপীয় সাম্যাবস্থা|তাপীয় সাম্যাবস্থায়]] যেতে চায়। ফলে পৃথিবীর এনট্রপি অসীমের দিকে ধাবিত হচ্ছে। এভাবে একসময় সম্পৃক্ত অবস্থা চলে আসবে আর পৃথিবীর [[তাপীয় মৃত্যু]] হবে।বিজ্ঞানীরা এক গাণিতিক হিসাবে দেখেছেন প্রায় ১০<sup>১০০০</sup> বছর পরে হতে পারে মহাবিশ্বের সেই সম্ভাব্য তাপীয় মৃত্যু।<br/>
==এন্ট্রপি সংক্রান্ত উদাহরণ==
উদাহরণঃ-
ধরুন একটি ক্লাসে শিক্ষার্থীরা মনোযোগ দিয়ে ক্লাস করছে।এসময় তাদের এন্ট্রপি কম। কেননা তারা শৃঙ্খলিত অবস্থায় আছে।যখন ছুটি হল তারা বিশৃঙ্খল হয়েপড়ে।এতে এন্ট্রপিও বেড়ে যায়।পারমাণবিক ক্ষেত্রেও এ ধরনের ঘটনা ঘটে।
ধরে নেন যে,মিরপুর স্টেডিয়ামে ক্রিকেট খেলা চলছে।গ্যালারিতে লোকজন শৃঙ্খলভাবে বসে খেলা দেখছে।যখন খেলা শেষ তখনই তারা বিশৃঙ্খলভাবে এলোমেলো হয়ে বের হয়ে যাচ্ছে।এই বিশৃঙ্খলাই হচ্ছে এনট্রপি।অর্থাৎ কোনো সিস্টেমে বিশৃঙ্খলতার পরিমাপই হলো এনট্রপি।
 
{{পদার্থবিজ্ঞান-অসম্পূর্ণ}}