"ভূষণছড়া গণহত্যা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
| date = ৩০ মে, ১৯৮৪ সাল
| type = জাতি নির্মূল করা, [[গণহত্যা]]
| fatalities = ৪০০ <ref name="Parbattanews">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |ইউআরএল=https://www.parbattanews.com/%e0%a6%ad%e0%a7%82%e0%a6%b7%e0%a6%a3%e0%a6%9b%e0%a7%9c%e0%a6%be-%e0%a6%97%e0%a6%a3%e0%a6%b9%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be/|শিরোনাম=ঐতিহাসিক ভূষণছড়া গণহত্যা দিবস আজ|অবস্থান= |কর্ম= |প্রকাশক=''[[Parbattanews]]''|তারিখ=৩ মে ২০১৪|সংগ্রহের-তারিখ=}}</ref><ref name="nayashatabdi">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |ইউআরএল=https://www.nayashatabdi.com/country/858|শিরোনাম=ঐতিহাসিক ভূষণছড়া গণহত্যা দিবস আজ|অবস্থান= |কর্ম= |প্রকাশক=''[[nayashatabdi]]''|তারিখ=৩১ মে,২০২১|সংগ্রহের-তারিখ=}}</ref>
| injuries =
| victims = <!-- or | victim = -->
 
== প্রেক্ষাপট ==
রাঙামাটি জেলার বরকল উপজেলার ভূষণছড়া ও তার পাশ্ববর্তী এলাকার বাঙ্গালীরা এই নির্মম গণহত্যার শিকার। যে ঘটনার মাধ্যমে মাত্র কয়েক ঘন্টা সময়ে হত্যা করা হয়েছে চার শতাধিক মানুষ । এবং আহত করা হয়েছে আরও সহস্রাধিক মানুষ। নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে একটি জনপদ। সত্তরের দশকের শেষদিকে জনসংখ্যার সুষম বণ্টন এবং পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য বাংলাদেশ সরকার দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে দরিদ্র এবং ভূমিহীন মানুষদের চট্টগ্রামের সরকারি খাস জমিতে পূর্নবার্সন করে। কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি এবং এর সশস্ত্র সামরিক শাখা শান্তিবাহিনী পার্বত্য চট্টগ্রামে বাঙালিদের পূনবার্সন মেনে নেয় নি। এর জন্যই ঘটে এই নৃশংসতা।
সত্তরের দশকের শেষদিকে জনসংখ্যার সুষম বণ্টন এবং পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য বাংলাদেশ সরকার দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে দরিদ্র এবং ভূমিহীন মানুষদের চট্টগ্রামের সরকারি খাস জমিতে পূর্নবার্সন করে। কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি এবং এর সশস্ত্র সামরিক শাখা শান্তিবাহিনী পার্বত্য চট্টগ্রামে বাঙালিদের পূনবার্সন মেনে নেয় নি। এর জন্যই ঘটে এই নৃশংসতা।
 
== নারীদের বিরুদ্ধে সহিংসতা ==
মাত্র চার ঘণ্টার মধ্যে নারী-শিশুসহ সাড়ে চারশর বেশি নিরীহ বাঙালিকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। গর্ভবর্তী নারী,ছোট শিশু,বৃদ্ধ কাউকেই বাদ দেয় নি। শিশু, কিশোরী বা সদ্য বিবাহিত তরুণীদের করা হয় গণধর্ষণগণধর্ষণ। সেইসাথে চলে মহিলাদের উপর অমানবিক নির্যাতন। বুলেটের পাশাপাশি হাত-পা বেঁধে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে, গর্ভবর্তীদা-দিয়ে নারীদেরকুপিয়ে, পেটআগুন চাকুদিয়ে পুড়িয়ে, বেয়নেট ও অন্যান্য দেশি অস্ত্র দিয়ে কেটেখোঁচিয়ে বাচ্চাখোঁচিয়ে বেরনানা ভাবে কষ্ট দিয়ে হত্যা করা হয়েছিল। প্রতিটি লাশকেই বিকৃত করে দেওয়াসেদিন হয়।চরম সেইসাথেঅমানবিকতার চলেদৃষ্টান্ত মহিলাদেরস্থাপন উপরকরা অমানবিকহয়েছিল।<ref নির্যাতন।name="DailyProttoy">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |ইউআরএল=https://www.dailyprottoy.com/%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%99%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%9F%E0%A6%BF%E0%A6%B0-%E0%A6%AC%E0%A6%B0%E0%A6%95%E0%A6%B2%E0%A7%87-%E0%A6%AD%E0%A7%82%E0%A6%B7%E0%A6%A3%E0%A6%9B%E0%A7%9C%E0%A6%BE.php|শিরোনাম=রাঙামাটির বরকলে ভূষণছড়া গণহত্যা দিবসে মানব বন্ধন করেছে নাগরিক পরিষদ|অবস্থান= |কর্ম= |প্রকাশক=''[[DailyProttoy]]''|তারিখ=৩১ মে,২০২১|সংগ্রহের-তারিখ=}}</ref>
 
বুলেটের পাশাপাশি হাত-পা বেঁধে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে, দা-দিয়ে কুপিয়ে, আগুন দিয়ে পুড়িয়ে, বেয়নেট ও অন্যান্য দেশি অস্ত্র দিয়ে খোঁচিয়ে খোঁচিয়ে নানা ভাবে কষ্ট দিয়ে হত্যা করা হয়েছিল। প্রতিটি লাশকেই বিকৃত করে সেদিন চরম অমানবিকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করা হয়েছিল।<ref name="DailyProttoy">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |ইউআরএল=https://www.dailyprottoy.com/%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%99%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%9F%E0%A6%BF%E0%A6%B0-%E0%A6%AC%E0%A6%B0%E0%A6%95%E0%A6%B2%E0%A7%87-%E0%A6%AD%E0%A7%82%E0%A6%B7%E0%A6%A3%E0%A6%9B%E0%A7%9C%E0%A6%BE.php|শিরোনাম=রাঙামাটির বরকলে ভূষণছড়া গণহত্যা দিবসে মানব বন্ধন করেছে নাগরিক পরিষদ|অবস্থান= |কর্ম= |প্রকাশক=''[[DailyProttoy]]''|তারিখ=৩১ মে,২০২১|সংগ্রহের-তারিখ=}}</ref>
 
ভূষণছড়ায় যে নির্মম হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়েছিল তা ১৯৭১ সালেও পার্বত্য এলাকায় ঘটেনি। সন্তু লার্মার নেতৃত্বে এ হত্যাকাণ্ড পার্বত্য জেলাগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় হত্যাকাণ্ড।<ref name="jagonews24">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |https://www.jagonews24.com/national/news/102143|শিরোনাম=রাঙামাটির বরকলে ভূষণছড়া গণহত্যা দিবসে মানব বন্ধন করেছে নাগরিক পরিষদ|অবস্থান= |কর্ম= |প্রকাশক=''[[jagonews24]]''|তারিখ=৩১ মে,২০১৬|সংগ্রহের-তারিখ=}}</ref>