"ইসফাহান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

নতুন পৃষ্ঠা: {{Infobox settlement |name = ইসপাহান |official_name = ইসফাহান, অ্যাসপাড্যানা |other_name = اصفهان |nickname = অর্ধপৃথিবী |image_skyline = Esfahan Logo.jpg |imagesize = 300px |image_caption = উপর থেকে নীচে চেহেল শুতুন, আলী কাপু প্রাস...
(০টি উৎস উদ্ধার করা হল ও ১টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল।) #IABot (v2.0.8)
(নতুন পৃষ্ঠা: {{Infobox settlement |name = ইসপাহান |official_name = ইসফাহান, অ্যাসপাড্যানা |other_name = اصفهان |nickname = অর্ধপৃথিবী |image_skyline = Esfahan Logo.jpg |imagesize = 300px |image_caption = উপর থেকে নীচে চেহেল শুতুন, আলী কাপু প্রাস...)
{{Infobox settlement
|name = এসফাহনইসপাহান
|official_name = ইসফাহান, অ্যাসপাড্যানা
|official_name = প্রাচীন নামসমূহ: অ্যাস্প্যাদ্যান্যা, স্প্যাহন্‌, সেপাহান, এস্‌ফ়্যাহন্‌
|other_name = اصفهان
|nickname = নেসফে জাহান (পৃথিবীর অর্ধেক)অর্ধপৃথিবী
|image_skyline = Esfahan Logo.jpg
|imagesize = 300px
|image_caption = উপর থেকে নীচে চেহেল শুতুন, আলী কাপু প্রাসাদ, [[নকশে জাহান স্কয়ার]], চাহার বাগ স্কুল এবং [[সি-ও-সে পুল|৩৩ ব্রিজ]].
|image_caption = From Upper to down:[[Chehel Sotoon]], [[Ali Qapu]] Palace, [[Naqsh-e Jahan Square]], [[Chahar Bagh School]] and [[Si-o-Seh Pol|33 Bridge]].
|image_seal =
|sealsize = 52px
|image_map = Isfahan city map.svg
|mapsize = 300px
|map_caption = এসফাহনইসপাহান শহরের মানচিত্র
|map_caption1 = এসফাহনইসপাহান
|pushpin_map = ইরান
|pushpin_label_position =
|pushpin_map_caption =[[ইরান|ইরানে]] এসফাহনইসপাহান শহরের অবস্থান
|dot_mapsize = 80px
|pushpin_mapsize = 300
|footnotes =
}}
'''এসফাহনইসপাহান''' <ref>"ইসফাহান" বা "ইস্পাহান" বানানও প্রচলিত।</ref> ([[প্রাচীন ফার্সি ভাষা|প্রাচীন ফার্সি ভাষায়]]: ''অ্যাস্প্যাদ্যান্যা'', [[মধ্যযুগীয় ফার্সি ভাষা|মধ্য ফার্সি ভাষায়]]: ''স্প্যাহন্‌'', [[ফার্সি ভাষা|ফার্সি ভাষায়]]: اصفهان ''এস্‌ফ়্যাহন্‌'') [[তেহরান]] শহরের ৩৪০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত ইরানের তৃতীয় বৃহত্তম নগরী।
 
একসময় এসফাহনইসপাহান বিশ্বের বড় শহরগুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল । [[১০৫০]] থেকে [[১৭২২]] খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত ছিল এর সমৃদ্ধিকাল। [[সাফাভিদ সাম্রাজ্য|সাফাভিদ সাম্রাজ্যের]] সময়কালে এসফাহনইসপাহান শৌর্যের শীর্ষে পৌঁছে। সেসময় দ্বিতীয়বারের মত এসফাহনইসপাহান পারস্যের রাজধানীর মর্যাদা পায়।
 
অনন্য ইসলামী স্থাপত্য, ছাদ ঢাকা সেতু, মসজিদ ও মিনারের অসাধারণ সৌন্দর্য আজও এসফাহনকেইসপাহানকে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করে রেখেছে। এসফাহনেরইসপাহানের সৌন্দর্য কিংবদন্তিতুল্য। ইরানে প্রবাদ প্রচলিত আছে "এসফাহনইসপাহান নেস্‌ফে জাহন আস্‌ত" যার অর্থ "এসফাহনইসপাহান পৃথিবীর অর্ধেক"।<ref name="IIHTW">''[http://www.saudiaramcoworld.com/issue/196201/.isfahan.is.half.the.world..htm "Isfahan Is Half The World"] {{ওয়েব আর্কাইভ|ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20080216000517/http://www.saudiaramcoworld.com/issue/196201/.isfahan.is.half.the.world..htm |তারিখ=১৬ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ }}'' - ''সাউদি আরামকো ''</ref> বিখ্যাত ভ্রমণপ্রিয় ফরাসি লেখক [[অঁদ্রে মালরো]] লিখেছিলেন:
{{Cquote|Qui peut prétendre avoir vu la plus belle ville du monde sans avoir visité Ispahan?<ref>১৯২৫ সালে ''Indochine'' নামের একটি দৈনিকে মোরিস সাঁত-রোজ ছদ্মনামে মালরো ''L'expidition d'Ispahan'' শিরোনামের একটি প্রবন্ধে এ কথা লেখেন।</ref>}}
অর্থাৎ "কে দাবী করতে পারে সে পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর শহর দেখেছে, যে এখনও এসফাহনেইসপাহান যায়নি?" মালরো এসফাহনকেইসপাহানকে "l'une des trois plus belles villes du monde", অর্থাৎ "বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর তিনটি শহরের একটি" বলে আখ্যা দিয়েছিলেন।<ref>মালরোর স্ত্রী ক্লারা মালরোর ভাষ্য অনুযায়ী। সূত্র: http://www.amiscorbin.com/textes/francais/malraux.htm {{ওয়েব আর্কাইভ|ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20080920010623/http://www.amiscorbin.com/textes/francais/malraux.htm |তারিখ=২০ সেপ্টেম্বর ২০০৮ }}</ref>
 
নাক্‌শ-এ-জাহান চত্বর (ميدان نقش جهان ''ম্যাইদনে ন্যাগ়্‌শে জ্যাহন্‌'') বিশ্বের সবচয়ে বড় [[চত্বর]]গুলোর মধ্যে অন্যতম। [[ইউনেস্কো]] এটিকে একটি বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে ঘোষণা করেছে।
 
== ভৌগোলিক অবস্থান ও জলবায়ু ==
এসফাহন ইসপাহান[[জাগ্রোস পর্বতমালা|জাগ্রোস পর্বতমালার]] পাদদেশে [[জায়েন্দে নদী|জায়েন্দে নদীর]] তীরে অবস্থিত। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে এটি ১৫৯০ মিটার উপরে অবস্থিত। বাৎসরিক গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ৩৫৫ মিমি। তাপমাত্রা মোটামুটি ২ থেকে ২৮ ডিগ্রী সেলসিয়াসে মধ্যে থাকে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২ ডিগ্রী সেলসিয়াস আর সর্বনিম্ন -১৯ ডিগ্রী সেলসিয়াস।
 
== ইতিহাস ==
 
=== প্রাচীন ইতিহাস ===
এসফাহনেরইসাপাহানের ইতিহাসের সূচনা প্রাচীন প্রস্তর যুগে। নৃতত্ত্ববিদেয়া এখানে প্রাচীন প্রস্তরযুগীয়, নব্য প্রস্তরযুগীয়, ব্রোঞ্জ এবং লৌহযুগীয় নিদর্শনের সন্ধান পেয়েছেন।
 
=== এলামীয় সাম্রাজ্য ===
প্রাচীন এসফাহনইসপাহান এলামীয় সাম্রাজ্যের অংশ ছিল। মেদিয়ান গোত্রের অধীনে শহরটির নাম ছিল ''আসপানদানা''। [[ম্যাসেডোনিয়া|ম্যাসেডোনীয়]] দখল থেকে আর্সাসিডরা ইরানকে মুক্ত করার পর এটি পার্থীয় সাম্রাজ্যভুক্ত হয়। সাসানিদ যুগে এসফাহনইসপাহান শাসন করতেন "ইসফুরান" বা সাতটি অভিজাত পরিবারের সদস্যরা। এসময় এসফাহনইসপাহান সামরিক দিক দিয়ে বেশ শক্তিশালী হয়ে উঠে। আরবদের কাছে ইরানীদের সর্বশেষ পরাজয়ের পর এসফাহনইসপাহান আরবদের পদানত হয় ।
 
=== ইসলামী যুগ ===
[[আব্বাসী বংশ|আব্বাসী বংশের]] শাসক [[আল-মনসুর|আল-মনসুরের]] আগে এসফাহনইসপাহান অল্পদিনের জন্য আরবদের পদানত ছিল। [[সেলজুক]] বংশের মালিক শাহের শাসনামলে এসফাহনইসপাহান পুনরায় রাজধানীর মর্যাদা পায়। এ সময়টা ছিল এসফাহনেরইসপাহানের স্বর্ণযুগ। দার্শনিক ইবনে সিনা ১১শ শতকে এসফাহনেইসপাহানে শিক্ষকতায় নিয়োজিত ছিলেন।
 
ত্রয়োদশ শতকে মঙ্গোলদের অভিযানে এসফাহনেরইসপাহানের অধিকাংশ অধিবাসী গণহত্যার শিকার হয়। ১৩৮৭ সালে [[তৈমুর লঙ]] পুনরায় এসফাহনেইসপাহানে অভিযান চালালে এসফাহনইসপাহান অনেকাংশে তার গুরুত্ব হারিয়ে ফেলে ।
 
কিন্তু সাফাভিদ শাসকেরা পুনরায় এসফাহনেরইসপাহানের স্বর্ণযুগ ফিরিয়ে আনেন। ষোড়শ শতকে [[সাফাভিদ]] শাসক [[মহান শাহ আব্বাস]] (১৫৮৭-১৬২৯)-এর সময়কালে এসফাহনইসপাহান পুনরায় পারস্যের রাজধানীতে পরিণত হয়। এ সময়কালে এসফাহনইসপাহান সমৃদ্ধির শীর্ষে পৌঁছে যায়। এসফাহনেরইসপাহানের পার্ক, পাঠাগার, মসজিদ, স্থাপনা ইউরোপীয়দের অবাক করে দেয়। এসময় এসফাহনেইসপাহানে ১৬৩টি মসজিদ , ৪৮টি ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ১৮০১টি দোকান এবং ২৬৩টি হাম্মামখানা নির্মিত হয়।
 
=== আধুনিক যুগ ===
বর্তমানে এসফাহনইসপাহান ইরানের তৃতীয় বৃহত্তম নগরী। শহরটি শতরঞ্চি এ গালিচা (কার্পেট), বস্ত্র, ইস্পাত এবং বিধি হস্তশিল্পের জন্য বিখ্যাত। এখানে পারমাণবিক জ্বালানি উৎপাদনের চুল্লী রয়েছে। ইউরেনিয়ামকে এখানে ইউরেনিয়াম হেক্সাফ্লুরাইডে পরিণত করা হয় ।<ref>''[http://www.telegraph.co.uk/news/main.jhtml?xml=/news/2006/01/25/bldiplomatic25.xml Iran - is military action feasible?]{{অকার্যকর সংযোগ|তারিখ=জুলাই ২০২১ |bot=InternetArchiveBot |ঠিক করার প্রচেষ্টা=yes }}'' - ''[[দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফ]]'', ২৫ জানুয়ারি,২০০৬</ref>
 
এসফাহনেরইসপাহানের অনুকূল অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলে গড়ে উঠেছে ২০০০টির বেশি শিল্প প্রতিষ্ঠান। ইরানের বড় তেল শোধনাগার এবং গুরুত্বপূর্ণ বিমান ঘাঁটি এখানে অবস্থিত । ইরানের সবচয়ে উন্নত উড়োজাহাজ তৈরির কারখানাটিও এখানে অবস্থিত। এখানে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর রয়েছে। এসফাহনইসপাহান মেট্রো তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে । ২০০৭ সালে এসফাহনেইসপাহানে [[আন্তর্জাতিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াড]] অনুষ্ঠিত হয়।
 
== সংস্কৃতি ==
=== স্থাপত্য ===
[[চিত্র:Esfhan market(1).jpg|right|thumb|হাতে নকশা করা গালিচার একজন পুরনো কারিগর]]
[[চিত্র:Carpet-Trader.jpg|thumb|230px|হুক্কা টানছেন এসফাহনীইসপাহানী গালিচা ব্যবসায়ী]]
==== ঐতিহাসিক স্থাপনাসমূহ ====
 
 
;অন্যান্য স্থাপনা
* অতাশগহে এসফাহনইসপাহান ([https://web.archive.org/web/20120624194908/http://fz-az.fotopages.com/?entry=939500 Atashgah]- জরথুষ্ট্রীয় অগ্নি-উপাসনা মন্দির])
* বুকেয়ে ইবনে সিনা (Avicenna's Dome) - ১২ শতক
* নিজাম-উল-মূলক এবং মালেক শাহর মাজার - ১২ ও ১৮ শতক
 
=== গালিচা শিল্প ===
সাফাভিদ শাসনামলে এসফাহনেইসপাহান গালিচা শিল্প গড়ে উঠে। কিন্তু আফগান আগ্রাসনের পর এটি স্তিমিত হয়ে যায়। ১৯২০ সালের দিকে গালিচা শিল্পের পুনর্জাগরণ হয়। এসফাহনীরাইসপাহানীরা সাফাভিদ আমলের নকশা অনুসরণ করে গালিচা বুনতে শুরু করেন। হাতির দাঁত রঙের পটের, নীল-লাল গোলাপ নকশার মোটিফে গড়া এসফাহনীইসপাহানী গালিচার খ্যাতি বিশ্বজোড়া। গালিচাগুলোর নকশা খুবই সুষম।
=== বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব ===
 
== শিক্ষা ==
বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ছাড়াও এসফাহনইসপাহান শহরের প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হল :
* বিশ্ববিদ্যালয়
** এসফাহনইসপাহান ইউনিভার্সিটি অফ মেডিকেল সায়েন্স
** এসফাহনইসপাহান ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলোজি
** ইউনিভার্সিটি অফ এসফাহনইসপাহান
** এসফাহনইসপাহান ইউনিভার্সিটি অফ আর্ট
== খেলাধুলা ==
[[ইরানীয় প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ]] শিরোপো প্রত্যাশী এসফাহনেরইসপাহানের শক্তিশালী দু'টি ফুটবল ক্লাব রয়েছে যারা
হল:
* [[সেপাহান|সেপাহান এসফাহনইসপাহান]] [https://web.archive.org/web/20151014182412/http://fooladsepahansport.com/ অফিসিয়াল ওয়েবসাইট]
* [[এফসি জোব আহান|জোব আহান এসফাহনইসপাহান]] [http://www.zobahancsc.com/ অফিসিয়াল ওয়েবসাইট] {{ওয়েব আর্কাইভ|url=https://web.archive.org/web/20071011021309/http://www.zobahancsc.com/ |date=১১ অক্টোবর ২০০৭ }}
 
== সহযোগী শহর ==
 
== বহিঃসংযোগ ==
{{Commons|Category:Isfahan|এসফাহনইসপাহান}}
;সরকারী ওয়েবসাইট
* [http://shahrdari.isfahan.ir/ এসফাহনইসপাহান মিউনিসিপ্যালিটি]
* [http://www.isfahan.ir/ এসফাহনইসপাহান অফিসিয়াল ওয়েবসাইট]
* [https://web.archive.org/web/20060804043651/http://esfahanmetro.org/ এসফাহান মেট্রো]
; অন্যান্য ওয়েবসাইট
* [https://web.archive.org/web/20071105190221/http://www.irpedia.com/cities/city.php?ID=679 এসফাহনেরইসপাহানের ছবি, আকর্ষণীয় স্থান, হোটেল]
* [https://web.archive.org/web/20050206014647/http://www.isfahanmiras.ir/ এসফাহনইসপাহান কালচারাল হেরিটেজ অর্গানাইজেশন]
 
{{মধ্যপ্রাচ্যের বৃহত্তম মহানগরীসমূহ}}
১,৯৭৪টি

সম্পাদনা