"সৈয়দ ইশতিয়াক আহমেদ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

ত্রুটি সংশোধন, ID: 17 অউব্রা ব্যবহার করে
(ত্রুটি সংশোধন, ID: 17 অউব্রা ব্যবহার করে)
 
}}
 
'''ব্যারিস্টার সৈয়দ ইশতিয়াক আহমেদ''' (১৮ জানুয়ারি ১৯৩২ - ১২ জুলাই ২০০৩) হলেন একজন প্রখ্যাত বাংলাদেশী আইনজ্ঞ এবং সংবিধান বিশেষজ্ঞ।<ref name="দৈজ১">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://www.dailyjanakantha.com/details/article/106265/ব্যারিস্টার-ইশতিয়াকের-জন্মবার্ষিকী-আজ |শিরোনাম=ব্যারিস্টার ইশতিয়াকের জন্মবার্ষিকী আজ |সংবাদপত্র=দৈনিক জনকন্ঠ |তারিখ=১৬ জানুয়ারীজানুয়ারি ২০১৫|সংগ্রহের-তারিখ=২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯}}</ref> তিনি সেই বিরল ব্যক্তিদের একজন যারা দুটি [[বাংলাদেশের তত্ত্বাবধায়ক সরকার]]ের সময় উপদেষ্টা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন;<ref name="এসএ">{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল=https://www.siaalaw.com/ |শিরোনাম=Syed Ishtiaq Ahmed & Associates (SIA&A) : About Us |প্রকাশক=SYED ISHTIAQ AHMED & ASSOCIATES |তারিখ= |সংগ্রহের-তারিখ=২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯}}</ref> তিনি ১৯৯৬ ও ২০০১ সালের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি [[বাংলাদেশের এটর্নি জেনারেল|বাংলাদেশের তৃতীয় এটর্নি জেনারেল]] হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।<ref name="বাপি১">{{বই উদ্ধৃতি |লেখক=সুফিয়া আহমেদ |সম্পাদক=[[সিরাজুল ইসলাম]] |শিরোনাম=বাংলাপিডিয়া |ইউআরএল=http://bn.banglapedia.org/index.php?title=আহমেদ,_সৈয়দ_ইশতিয়াক |অধ্যায়=আহমেদ, সৈয়দ ইশতিয়াক|প্রকাশক=[[এশিয়াটিক সোসাইটি বাংলাদেশ]] |তারিখ=জানুয়ারি ২০০৩ |সংগ্রহের-তারিখ=২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ |অবস্থান=[[ঢাকা]] |আইএসবিএন=984-32-0576-6 |পাতা= |উক্তি= }}</ref> তিনি ‘জাতির অভিভাবক’ নামে পরিচিত ছিলেন এবং সব সময় রাজনৈতিক পরিচিতি এবং সম্পৃক্ততা থেকে নিজেকে বিরত রেখেছেন।<ref name="দৈজ১"/>
 
== জন্ম ও পারিবারিক পরিচিতি ==
[[বিষয়শ্রেণী:ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী]]
[[বিষয়শ্রেণী:লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্সের প্রাক্তন শিক্ষার্থী]]
[[বিষয়শ্রেণী:বাংলাদেশী আইনজীবী]]
[[বিষয়শ্রেণী:বাংলাদেশী আইনজীবী]]
[[বিষয়শ্রেণী:বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল]]