উইকিপিডিয়া:নিবন্ধ উইজার্ড/উইজার্ড-স্বার্থের সংঘাত: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

চন্দ্রবিন্দু প্রোজ্জ্বল-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে Nieuwsgierige Gebruiker-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সংস্করণে ফেরত
সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: পুনর্বহালকৃত মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(চন্দ্রবিন্দু প্রোজ্জ্বল-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে Nieuwsgierige Gebruiker-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সংস্করণে ফেরত)
ট্যাগ: পুনর্বহাল
{{Article wizard|1=linked|2=linked|3=italic|4=italic|5=italic|6=boxed|content=
মঈন ফারুক
 
'''নিবন্ধ উইজার্ড ব্যবহার করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ!'''
 
Unfortunately writing an article about yourself (or someone or something very close to you; see the related page on [[Wikipedia:Article_wizard/Advertising|advertising]]) involves a '''[[Wikipedia:Conflict of interest|conflict of interest]]'''. This presents a number of problems, not the smallest of which is that it is very hard to remain [[Wikipedia:Neutral point of view|neutral]]. ''Pages that introduce a conflict of interest are not being accepted by the Article Wizard at this time.''
ঘাতপ্রতিঘাত মানুষকে পাথর বানিয়ে দেয়, নতুবা বাক্যবানে বিপর্যস্ত করে তোলে সমগ্র আশপাশ। আর তিনি যখন কোনো কবি সত্তা হন, বিশেষ ভূমিকায় থাকেন, তখন তা আরো বেশি বিচলিত করে তোলে মানুষের মন ও প্রথাসিদ্ধ দিগবলয়কে। অসংলগ্নতাকে ভেঙে নতুন পথের সন্ধান দিতে বলে যান হরবোলার মতো।
 
We encourage you to read [[Wikipedia:Conflict of interest]] and [[Wikipedia:Autobiography]]. If the subject matter really merits an entry, then sooner or later someone will create one. Therefore '''we would encourage you ''not'' to create the article yourself'''. If you are determined to propose one, please find another Wikipedia editor to help write it.
মঈন ফারুক। জন্ম ১৯৮৩ সালের ১৭ আগস্ট। জন্মস্থান চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুণ্ড উপজেলার দক্ষিণ ইদিলপুর গ্রামে। প্রথম দশকে প্রকাশ পায় তার মলাটবদ্ধ কবিতা, একই দশকে আরো একটি বই প্রকাশ পায়। দ্বিতীয় দশকে প্রকাশিত হয় দুটি কবিতার বই। ২০২১ এ আসে তার 'কে যেন আছে' কবিতাগ্রন্থটি।
 
<div style="
তিনি কবিতাময় একটি জীবন যাপন করে আসছেন গত দুইদশক ধরে। দেখতে দেখতে এবং পড়তে পড়তে লিখতে শুরু করলেও সময় তার লেখা ও চিন্তার মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে। যখন ব্যক্তিগত দুঃখবোধ ও জীবনের বৈপরীত্য সামনে এসে দেয়ালের মতো দাঁড়িয়ে যায়, তখন তিনি নিজেকে বিচ্ছিন্ন করে চলতে থাকেন নিজস্ব পথে। যার ফলে তিনি নিভৃতে ঘুরে বেড়ান খেয়ালের জটিল জগতে, মনোজগতের নানা অলব্ধ জিজ্ঞাসার উত্তর খুঁজতে থাকেন জাগতিক রুটিনের বাইরে গিয়ে, এক মনে নেমে পড়েন অদেখা-অজানা জর্জরিত এ জীবনের মুক্তির উপায় সন্ধানে। মঈন ফারুক যুতসই চিন্তা ও সময়ের বিষয়বৈভবে ঋদ্ধ একজন কবি। জীবনকে দেখেন নিজের অনুসন্ধানী দৃষ্টিভঙ্গি দিয়ে, সেখানে অফুরন্ত ব্যথা বাজতে থাকে নানা সুরে। চমকপ্রদ বাক্যে তার সেসব কথামালার সীমাহীন আলোড়ন ফুরায় না যেন।
float:right;
border:solid 1px #9accf6;
background:#f1f9ff;
padding:1em;
padding-top:0.5em;
padding-bottom:0.5em;
width:20em;
color:black;
margin-bottom: 1.5em;
margin-left: 1.5em;
width: 35%;
">[[File:Question Circle.svg|70px|left]]The vast majority of articles created by people about themselves or their friends are [[WP:CSD|speedy deleted]] within minutes. Please don't contribute to this workload unnecessarily.</div>
 
{{{!}} style="background-color:transparent"
তার কবিতার অঙ্গ এক বিশেষ বৈশিষ্ট্যে অলঙ্কৃত। যা কখনো ছন্দোবদ্ধ, কখনো মুক্ত। পদ্যের গদ্য ঢঙ পূর্বধারণা থেকে বাইরে। অন্তমিল ছাড়াও তিনি মিলিয়ে দিয়েছেন ভিন্নতর সুর তৈরি করে।
{{!}}style="valign:center;padding-right:0.5em;"{{!}}[[File:Arrow icon.svg|none|30px|link=]]
{{!}}আপনি [[উইকিপিডিয়া:অনুরোধের খাতা]]য় লিখতে পারেন
{{!}}}
 
{{{!}} style="background-color:transparent"
ফ্রি-ভার্সের ভেতর সকল ছন্দশৃঙ্খল ভাঙার বিপজ্জনক আবেগ ও বেগ থাকে, মঈন ফারুকও ওই ঝুঁকি নিয়েছেন। ব্যক্তিতার ডানায় ভাসবার এ তরিকা এখন প্রায় তরুণ কবির মধ্যে সুলক্ষিত। তারা পুরাণ পুরাতন প্রচল সব ডিঙোতে চান। বিষয়টি এতো প্রাতিস্বিক যে, কোনো অর্গল ঝুলাতে চাইলে চাইলেও মন চাইবে না কারো।
{{!}}style="valign:center;padding-right:0.5em;"{{!}}[[File:Arrow icon.svg|none|30px|link=]]
{{!}}আপনি [[special:userlogin|উইকিপিডিয়া অ্যাকাউন্ট]] তৈরি করতে পারেন এবং আপনার ব্যবহারকারী পাতায় নিজের সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত তথ্য লিখতে পারেন
{{!}}}
 
{{{!}} style="background-color:transparent"
উপলব্ধির আত্মতা আর কাণ্ডজ্ঞানের লিপ্ততা কবিকেও বসিয়ে রাখে জনকোলাহলের ধারে, কাঙালের বেশে। মঈন ফারুক এর কাব্যিক অবগাহনে সেই ঢেউ আছড়ে পড়ছে। তার বীক্ষণের দৌলত সেকথা বলছে।
{{!}}style="valign:center;padding-right:0.5em;"{{!}}[[File:Arrow icon.svg|none|30px|link=]]
{{!}}আপনি [[উইকিপিডিয়া:উইকিপিডিয়ায় অবদান|উইকিপিডিয়ায় অবদান রাখার]] জন্য অন্যান্য পদ্ধতির সন্ধান করতে পারে
{{!}}}
 
 
মঈন ফারুকের প্রকাশিত বই :
{{Article wizard/button2|[[উইকিপিডিয়া:টিউটোরিয়াল|আমি উইকিপিডিয়া ব্যবহার সম্পর্কে আরো জানতে চাই]]}}
সাদা ফুলদানি (কবিতা)
{{Article wizard/button2|[[উইকিপিডিয়া:আপনার প্রথম নিবন্ধ|আমি নিবন্ধ লিখন সম্পর্কে আরো জানতে চাই]]}}
বৈরী হাওয়া (কবিতা)
{{Article wizard/button2|[[উইকিপিডিয়া:স্বার্থের সংঘাত|আমি স্বার্থের সংঘাত সম্পর্কে আরো জানতে চাই]]}}
অশ্রু গোলাপজলের মতোই সুঘ্রাণ (কবিতা)
}}
এ শহরের মানুষ হাঁটে না রাস্তা হাঁটে (কবিতা)
ক্ষণজন্মা কিংবদন্তী (বায়োগ্রাফি)
কে যেন আছে (কবিতা)