"নূর মোহাম্মদ নিজামপুরী" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
== বিপ্লবী জীবন ==
 
উপমহাদেশের মুসলমানদের আধ্যত্মিক রাহবার [[সৈয়দ আহমদ বেরলভি|সাইয়েদ আহমদ ব্রেলভী]] রহ. ছিলেন নিজামপুরী রহ. এরনিজামপুরীর মুর্শিদ। ১৮২২ সালে কলকাতায় তিনি মুর্শিদের নিকট বায়াতবদ্ধ হন। জীবনের দীর্ঘসময় তিনি ব্রেলভী রহ. এরব্রেলভীর সান্নিধ্যে অবস্থান করেন। ১৮২৬ সালে উপমহাদেশের মুসলিমদের ব্রিটিশদের গোলামি থেকে মুক্ত করার জন্য সাইয়েদ আহমদ ব্রেলভী রহ.  সীমান্তবর্তী অঞ্চল-পেশোয়ার,পাঞ্জাব অভিযান শুরু করেন। নিজামপুরী রহ. এসব অভিযানে বীরদর্পে অংশগ্রহণ করেন।  ১৮৩১ সালে সাইয়েদ আহমদ ব্রেলভী [[ব্রিটিশ]] বিরোধী জিহাদের ডাক দেন।
 
নুর মুহাম্মদ নিজামপুরী রহ. ছিলেন এই জিহাদের অন্যতম সিপাহশালার। তিনি জুমার খুতবায় ভারতীয় মুসলিমদের ইংরেজ বিরোধী জিহাদে উদুদ্ধ করেন। [[বালাকোট যুদ্ধ|বালাকোট যুদ্ধে]] তিনি স্বশরীরে অংশগ্রহণ করেন। বালাকোটের বিয়োগান্তক ঘটনার পর তিনি কিছুকাল আত্মগোপনে চলে যান। এরপর থেকে তিনি '''‘গাজীয়ে বালাকোট’''' হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। নিজামপুরী রহ. এরনিজামপুরীর জীবনের শেষসময় গুলো কাটে উত্তর চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার নিজামপুর পরাগনার ১০ নং মিঠানালা ইউনিয়নের মলিহাইশ গ্রামে। এই অঞ্চলের দিকে নিচবতনিছবত করেই নূর মুহাম্মদ রহ. কেমুহাম্মদকে '''নিজামপুরী''' বলা হয়।
 
== মৃত্যু ==