এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্প্রসারণ
(সম্প্রসারণ)
(সম্প্রসারণ)
 
== কর্মজীবন ==
২৪শে জুন ২০২১ সালে তিনি সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ২৩ ডিসেম্বর ১৯৮৩ সালে নবম বিএমএ দীর্ঘমেয়াদি কোর্সে পদাতিক কোরে কমিশন্ড লাভ করেন। এর আগে তিনি একটি পদাতিক ব্যাটালিয়ন, বিএমএতে ব্যাটালিয়ন কমান্ডার, একটি পদাতিক ব্রিগেড ও সেনাসদর প্রশিক্ষণ পরিদফতরের পরিচালক পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া ২০১২ সালে তিনি ১৯ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.dailynayadiganta.com/administration/435123/লে.-জেনারেল-হলেন-এস-এম-শফিউদ্দিন-আহমেদ|শিরোনাম=লে. জেনারেল হলেন এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ|ওয়েবসাইট=Daily Nayadiganta|ভাষা=bn|সংগ্রহের-তারিখ=2019-08-29}}</ref> তিনি বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্যাটেজিক স্টাডিজের (বিআইআইএসএস) মহাপরিচালক এবং ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের সিনিয়র ডাইরেক্টিং স্টাফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
 
তিনি ২০২০ সালের অক্টোবরে সেনাবাহিনীর কোর অব মিলিটারি পুলিশের ৬ষ্ঠ কর্নেল কমান্ড্যান্ট হিসাবে অভিষিক্ত হন। সাভার সেনানিবাসে কোর অব মিলিটারি পুলিশ সেন্টার অ্যান্ড স্কুলে (সিএমপিসিঅ্যান্ডএস) তিনি ‘৬ষ্ঠ কর্নেল কমান্ড্যান্ট’ হিসাবে অভিষিক্ত হন। সেনাবাহিনীর প্রচলিত রীতি অনুযায়ী একজন সিনিয়র অফিসারের প্রতি গভীর ও আন্তরিক শ্রদ্ধা নিবেদন করে পিতৃসুলভ অভিভাবকের আসনে ‘কর্নেল কমান্ড্যান্ট’ উপাধি দিয়ে অভিষিক্ত করা হয়ে থাকে।
 
তিনি বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্যাটেজিক স্টাডিজের (বিআইআইএসএস) মহাপরিচালক এবং ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের সিনিয়র ডাইরেক্টিং স্টাফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
 
=== জাতিসঙ্ঘ মিশন ===