ডায়ান কিটন: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

নতুন পৃষ্ঠা
(নতুন পৃষ্ঠা)
 
কিটন মঞ্চে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তার কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৭০ সালে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়। তার প্রথম বড় মাপের চলচ্চিত্র ভূমিকায় হল ''[[দ্য গডফাদার]]'' (১৯৭২) ছবিতে কে অ্যাডামস করলেওনে চরিত্রে। একই বছরে [[উডি অ্যালেন]] পরিচালিত ''[[প্লে ইট অ্যাগেইন, স্যাম]]'' তার কর্মজীবনের শুরুতে তাকে প্রতিষ্ঠা লাভ করতে সহায়তা করে। তার পরের দুটি চলচ্চিত্র হল ''স্লিপার'' (১৯৭৩) ও ''লাভ অ্যান্ড ডেথ'' (১৯৭৫), যা তাকে হাস্যরসাত্মক অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিতি পাইয়ে দেয়। তার চতুর্থ চলচ্চিত্র ''[[অ্যানি হল]]'' (১৯৭৭)-এর জন্য তিনি [[শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জন্য একাডেমি পুরস্কার|শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কার]] অর্জন করেন।
 
কিটন পরবর্তীকালে তার ''অ্যানি হল'' ব্যক্তিত্ব দূর করতে একই রকমের চরিত্রে কাজ করা বাদ দেন। তিনি নাট্যধর্মী অভিনয়ের দিকে মনযোগমনোযোগ দেন এবং ''লুকিং ফর মিস্টার গুডবার'' (১৯৭৭)-এ অভিনয় করেন। তিনি ''রেডস'' (১৯৮১), ''[[মারভিন্‌স রুম (চলচ্চিত্র)|মারভিন্‌স রুম]]'' (১৯৯৬), এবং ''সামথিংস গটা গিভ'' (২০০৩)-এ অভিনয় করে আরও তিনটি একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।
 
তার অন্যান্য জনপ্রিয় চলচ্চিত্রসমূহ হল ''বেবি বুম'' (১৯৮৭), ''ফাদার অব দ্য ব্রাইড'' (১৯৯১), ''ফাদার অব দ্য ব্রাইড পার্ট টু'' (১৯৯৫), ''দ্য ফার্স্ট ওয়াইভস ক্লাব'' (১৯৯৬), ''দি আদার সিস্টার'' (২০০১), এবং ''দ্য ফ্যামিলি স্টোন'' (২০০৫)। অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি একজন আলোকচিত্রী, আবাসন প্রকল্প প্রস্তুতকারক, লেখিকা এবং গায়িকা।
২৫,৩৬৬টি

সম্পাদনা