"নাটোর জেলা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(DisamAssist ব্যবহার করে দ্ব্যর্থতা নিরসন সংযোগ আত্রাই থেকে (আত্রাই নদী এ সংযোগ পরিবর্তিত))
'''দিঘাপতিয়ার জমিদার বাড়ী (বর্তমানে [[উত্তরা গণভবন]])'''
 
রাজা রামজীবন রায় ১৭৩০ সালে মৃত্যু বরণমৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর পূর্বে তিনি রাজা রামকান্ত রায় কে রাজা এবং দেওয়ান দয়ারাম রায়কে তার অভিভাবক নিযুক্ত করেন। রামকান্ত রাজা হলেও প্রকৃত পক্ষে সম্পূর্ণ রাজকার্যাদি পরিচালনা করতেন দয়ারাম রায়। তার দক্ষতার কারণে নাটোর রাজবংশের ঊত্তোরত্তর সমবৃদ্ধি ঘটে। ১৭৪৮ সালে রামকান্ত পরলোক গমন করেন। স্বামীর মৃত্যুর পর [[রাণী ভবানী]]কে [[আলীবর্দী খান|নবাব আলীবর্দী খাঁ]] বিস্তৃত জমিদারী পরিচালনার দায়িত্ব অর্পণ করেন। নাটোরের ইতিহাসে জনহিতৈষী রাণী ভবানী হিসেবে অভিহিত এবং আজও তার স্মৃতি অম্লান। বাংলার স্বাধীন [[সিরাজউদ্দৌলা|নবাব সিরাজ-উদ্-দৌলা]]র সাথে [[রাণী ভবানী]]র আন্তরিক সুসম্পর্ক ছিল।  [[পলাশীর যুদ্ধ |পলাশীর যুদ্ধে]] রাণী ভবানী নবাবের পক্ষ অবলম্বন করেন।
 
পরবর্তীতে রাণী ভবানীর নায়েব দয়ারামের উপরে সন্তুষ্ট হয়ে তিনি দিঘাপতিয়া পরগনা তাকে উপহার দেন। দিঘাপতিয়ায় প্রতিষ্ঠিত বর্তমান [[উত্তরা গণভবন]]টি দয়ারামের পরবর্তী বংশধর রাজা প্রমদানাথের সময় গ্রীক স্থাপত্য কলার অনুসরনে রূপকথার রাজ প্রাসাদে উন্নীত হয়। কালক্রমে এই রাজপ্রাসাদটি প্রথমত গভর্নর হাউস, পরবর্তীতে বাংলাদেশ অভ্যূদয়ের পরে উত্তরা গণভবনে পরিণত হয়।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.natore.gov.bd/site/page/143b5714-1ab0-11e7-8120-286ed488c766/%E0%A6%9C%E0%A7%87%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%B0%20%E0%A6%AA%E0%A6%9F%E0%A6%AD%E0%A7%82%E0%A6%AE%E0%A6%BF|শিরোনাম=জেলার পটভূমি|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|ওয়েবসাইট=বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন|সংগ্রহের-তারিখ=অক্টোবর ৫, ২০১৮|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20180925081011/http://www.natore.gov.bd/site/page/143b5714-1ab0-11e7-8120-286ed488c766/%E0%A6%9C%E0%A7%87%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%B0%20%E0%A6%AA%E0%A6%9F%E0%A6%AD%E0%A7%82%E0%A6%AE%E0%A6%BF|আর্কাইভের-তারিখ=২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮|অকার্যকর-ইউআরএল=না}}</ref>
* [[আত্রাই নদী|আত্রাই]]
* [[বড়াল নদী]]
* [[নারোদ নদ|নারদ নদ]]
*[[তুলসীগঙ্গা নদী|তুলসীগঙ্গা]]
* [[নাগর নদ]] সহ এই জেলায় ৩২ টি নদ-নদী এবং [[চলনবিল]] ও হালতির বিল সহ অসংখ্য খাল-বিল রয়েছে।
১,২১৩টি

সম্পাদনা