"জ্ঞান চক্রবর্তী" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

→‎সাম্যবাদী আন্দোলন: তথ্যসূত্র যোগ/সংশোধন
(→‎সাম্যবাদী আন্দোলন: তথ্যসূত্র যোগ/সংশোধন)
 
 
== সাম্যবাদী আন্দোলন ==
গ্রেপ্তার হয়ে [[বক্সা দুর্গ]] ও দেউলি বন্দিনিবাসে আটক থাকেন এবং এখানেই [[মার্কসবাদ|মার্কসবাদী]] দর্শনে আগ্রহ জন্মে। 'কমিউনিস্ট কনসলিডেশনে' যোগ দিয়ে ১৯৩৮ সালে মুক্তিলাভের পর ঢাকায় কমিউন করে সকলকে নিয়ে যৌথভাবে থাকতে আরম্ভ করেন। তার কমিউন থেকেই নানারকম গণসংগঠনের প্রচেষ্টা, বিড়িশ্রমিক, ও মজদুর ইউনিয়ন সংগঠিত হয়। গ্রামীণ কৃষকরাও এসে পরামর্শ নিতেন। ঢাকায় [[রেবতী মোহন বর্মণ|রেবতী মোহন বর্মণে]]<nowiki/>র উদ্যোগে মার্ক্সবাদী প্রকাশনার কেন্দ্র স্থাপিত হলে [[নেপাল নাগ]], [[রণেন বসু]]<nowiki/>র সাথে তিনি মার্ক্সবাদী পুস্তক প্রকাশ ও প্রচারের দায়িত্ব নেন। সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী পুস্তক গোপনে বা ছদ্মবেশে তিনি বিলি করতেন। কমিউনিস্ট পার্টি নিষিদ্ধ হলে কংগ্রেস কর্মীদের সাথে সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ঐক্যের দাবীতে সম্মেলনে অংশ নেন। এই সময় ১৪৪ ধারা ভঙ্গের অভিযোগে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। ১৯৪৩- ৪৭ সালে ঢাকা জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সম্পাদক থাকাকালীনছিলেন।<ref প্রগতিশীলname="সুস্নাত">{{cite তরুন,book ছাত্র-|last=দাশ যুব,|first1=সুস্নাত বুদ্ধিজীবী|title=অবিভক্ত এবংবাঙলার উকিলদেরকৃষক ভেতরসংগ্রাম: সাম্যবাদীতেভাগা আদর্শআন্দলোলনের আর্থ-রাজনৈতিক চেতনাপ্রেক্ষিত-পর্যালোচনা-পুনর্বিচার প্রসারে|chapter=সংযোজন তার ভূমিকা|edition=প্রথম ছিল।প্রকাশ ১৯৪৮|location=কলকাতা সালে|publisher=নক্ষত্র কমিউনিস্টপ্রকাশন পার্টি|date=জানুয়ারি পূনরায়২০০২ নিষিদ্ধ হলে আবার কারাবাস হয়। মুক্তি পেলেও পুলিশি হামলা চলতে থাকে তার ওপরে।|page=২৮৯}}</ref name=":0" />
 
সেই সময় প্রগতিশীল তরুন, ছাত্র- যুব, বুদ্ধিজীবী এবং উকিলদের ভেতর সাম্যবাদী আদর্শ ও চেতনা প্রসারে তার ভূমিকা ছিল। ১৯৪৮ সালে কমিউনিস্ট পার্টি পূনরায় নিষিদ্ধ হলে আবার কারাবাস হয়। মুক্তি পেলেও পুলিশি হামলা চলতে থাকে তার ওপরে।<ref name=":0" />
 
== মুক্তিযুদ্ধ ==
৩২,৪৫০টি

সম্পাদনা