"ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল ও কলেজ, কুমিল্লা সেনানিবাস" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(২টি উৎস উদ্ধার করা হল ও ০টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল।) #IABot (v2.0.8)
ট্যাগ: ২০১৭ উৎস সম্পাদনা
তিনি জনাব আব্রু মিয়া ও মেজর অলি আহমদকে প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব দিয়ে প্রতিষ্ঠানের চালু এবং শিক্ষার্থী সংগ্রহের নির্দেশ দেন। সকলের ঐক্যমতে [[জিয়াউর রহমান|কর্নেল জিয়াউর রহমানকে]] প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি করা হয়। এমনকি [[জিয়াউর রহমান|কর্নেল জিয়া]] ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল কে একটি গাড়ি উপহার দেন।<ref name="শৈলাচল-১৯" />
 
=== স্বাধীনতা-উত্তর মৌলিক যাত্রাঘটনাবলী ===
স্বাধীনতার পর প্রতিষ্ঠানের প্রকৃত দায়িত্ব পাওয়ার পর মাত্র কয়েকজন আবাসিক-অনাবাসিক শিক্ষার্থী, চারজন শিক্ষক এবং মাত্র ১০ হাজার টাকা পুঁজি নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি তার মৌলিক অস্তিত্ব রক্ষা করে পুনরায় যাত্রা শুরু করে। কয়েকদিনের মধ্যেই প্রতিষ্ঠানের ১০ জন শিক্ষক নিয়োগ করা হয়, যারা একই বছর মার্চ মাসের মধ্যেই প্রতিষ্ঠানের যোগ দেন।<ref name="শৈলাচল-১৯" />
 
==== বঙ্গবন্ধুরশেখ মুজিবুর রহমানের সফর ====
১৯৭২ সালের এপ্রিল মাসের কোন একদিন [[শেখ মুজিবুর রহমান|বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান]] [[কুমিল্লা সেনানিবাস]] পরিদর্শনে আসলে এই প্রতিষ্ঠানটি সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। প্রতিষ্ঠানের নতুনভাবে চালু করতে শিক্ষকদের প্রচেষ্টায় সন্তুষ্ট হয়ে তিনি প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা অনুদান দেন।<ref name="শৈলাচল-১৯" />