"ফ্যাসিবাদ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সংশোধনী
(বিষয়বস্তু যোগ)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(সংশোধনী)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
 
[[চিত্র:Fascist symbol.svg|thumbnail]]
'''ফ্যাসিবাদ''' ({{lang-en|Fascism}}) হচ্ছে র‍্যাডিক্যাল কর্তৃত্বমূলক [[জাতীয়তাবাদ|জাতীয়তাবাদের]] একটি রূপ।<ref name="authoritarian" /><ref name="authoritarianism" /> যা [[বিংশ শতাব্দী|বিংশ শতাব্দীর]] শুরুর দিকে ইউরোপে খ্যাতি লাভ করে। [[১ম বিশ্বযুদ্ধ|১ম বিশ্বযুদ্ধের পর]] ইতালিতে ফ্যাসিবাদ উৎপত্তি লাভ করে জাতীয় সিন্ডিক্যালবাদ দ্বারা প্রভাবিত হয়ে। ইতালিতে ১৯১৯ খ্রিস্টাব্দ থেকে ১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দ অবধি বেনিটো মুসোলিনি (১৮৮৩- ১৯৪২) Fascismo নামে যে মতাদর্শ ও আন্দোলনের সূত্রপাত ও প্রচলন করেন তার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো Fascism। মুসোলিনি লিখেছেন, 'ফ্যাসিবাদ হলো একাধারে কর্ম ও চিন্তা'। [[<ref>ইসলাম ও অন্যান্য মতবাদ, লেখকঃ ড. মুহাম্মদ নূরুল ইসলাম, পৃ.২৫২]] </ref> এটি বিশেষভাবে [[বামপন্থী রাজনীতি|বামপন্থী রাজনীতির]] উপাদান গ্রহণের মাধ্যমে [[ডানপন্থী রাজনীতি|ডানপন্থী রাজনীতিতে]] অবস্থান গ্রহণ করে; এবং এটি ছিল [[সমাজতন্ত্র]], [[উদারতাবাদ]], [[সাম্যবাদ]], [[রক্ষণশীলতা|ডানপন্থী রক্ষণশীল]], [[গণতন্ত্র|গণতান্ত্রিকের]] বিরোধী। যদিও ফ্যাসিবাদকে [[বাম-ডান রাজনীতি|বাম-ডান রাজনীতিতে]] সাধারণভাবে দূর ডানে জায়গা দেয়া হয়, কতিপয় স্ব-ব্যাখ্যাত ফ্যাসিবাদী এবং কিছু মন্তব্যকারীরা বলেছেন যে এই বিবরণ যথার্থ নয়।<ref name="university" /><ref name="aristotle" /><ref name="liberalf09" /> এটি মুলত রাষ্ট্রের সকল মানুষকে একাত্ব করে একটি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ফ্যাসিবাদী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করে। এই কাজে তারা নির্ভর করে একটি বিশেষ বাহিনী বা গোষ্ঠীর উপর যারা পূর্বে রাজনৈতিক অঙ্গনে ততটা প্রভাবশালী ছিল না। যাদের এই আন্দোলনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা থাকে তারাই পরবর্তীকালে রাষ্ট্র নেতৃতে অগ্রনী দায়িত্ব নেয়। সেই রাষ্ট্র তখন প্রাথমিকভাবে রাজনৈতিক সহিংসতা, যুদ্ধ ও সাম্রাজ্যবাদকে অনুমোদন দেয় এবং রাষ্ট্রের মতে নতুনভাবে রাষ্ট্র গঠনের জন্য এগুলো মৌলিক বিষয়। ফ্যাসিবাদী মতাদর্শ অনুযায়ী উচ্চবিত্ত বা প্রভাবশালী রাষ্ট্রের (তারা নিজেদেরকেও এই শ্রেণীতে রাখে) উচিত অন্য দুর্বল বা যাদের অর্থনীতি তেমনটা মজবুত নয় এমন রাষ্ট্র বা জাতিকে দখল করে স্থানচ্যুত করা। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ফ্যাসিবাদীরা অন্য সংস্কৃতির প্রতি অশ্রদ্ধাশীল হয়ে থাকে এবং জাতি ও সংস্কৃতিকে সর্বশ্রেষ্ঠ মনে করে।
 
দেশের সকল শ্রেণীর মানুষকে একাত্ব করাই অর্থাৎ শ্রেণীবিভাজন দূর করে রাষ্ট্র পরিচালনা করাই ফ্যাসিবাদের লক্ষ্য। অনেক বিশ্লেষকের মতে ফ্যাসিবাদ [[পুঁজিবাদ]] ও [[সাম্যবাদ|সাম্যবাদের]] মাঝখানে অবস্থিত বা তৃতীয় “অবস্থান’’ বলেও উল্লেখ করেছেন। ফ্যাসিবাদী অর্থনীতি স্বনির্ভরতার উপর গুরত্ব দেয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ফ্যাসিবাদী সরকার সামরিকায়নিত হয় বা সামরিক বাহিনীর ওপর অতিনির্ভর ও আস্থাশীল।
৯৪৫টি

সম্পাদনা