"আবদুল লতিফ (রেস্তোরাঁ মালিক)" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

"Abdul Latif (restaurateur)" পাতাটি অনুবাদ করে তৈরি করা হয়েছে
(পরিষ্কারকরণ)
("Abdul Latif (restaurateur)" পাতাটি অনুবাদ করে তৈরি করা হয়েছে)
{{Infobox chef <!-- for more information see [[:Template:Infobox chef/doc]] -->|name=আবদুলAbdul লতিফLatif|education=|awards=[[Fellow of the Royal Society of Arts]]|television=|prevrests=Curry Capital (formerly Rupali)|restaurants=Rupali|ratings=|spouse=নেওয়ারNeawarun লতিফLatif|style=[[বাংলাদেশীBangladeshi রন্ধনশৈলীcuisine|বাংলাদেশীBangladeshi]]/[[ভারতীয়Indian রন্ধনশৈলীcuisine]]|image=|death_place=[[নিউক্যাসলNewcastle আপনupon টাইনTyne|নিউক্যাসলNewcastle]], [[টাইনTyne অ্যান্ডand উইয়ারWear]], [[ইংল্যান্ডEngland]]|death_date={{death date and age|2008|1|20|1954|12|15|df=y}}|birth_place=[[সিলেটSylhet জেলাregion|Sylhet District]], [[পূর্বEast বাংলাBengal]], [[পাকিস্তানDominion of অধিরাজ্যPakistan|পাকিস্তানPakistan]] (বর্তমানnow [[বাংলাদেশBangladesh]])|birth_date={{Birth date|1954|12|15|df=y}}|caption=|image_size=220px|website={{URL|http://www.therupali.co.uk/}}}}
'''আবদুল লতিফ''', এফআরএসএ (১৫ ডিসেম্বর ১৯৫৪ - ২০ জানুয়ারি ২০০৮) ছিলেন একজন [[যুক্তরাজ্য|ব্রিটিশ]]-[[বাংলাদেশ|বাংলাদেশি]] রেস্তোরাঁর মালিক এবং নিউক্যাসল আপন-ট্যাইনের [[তরকারি]] [[পাচক|শেফ]] যিনি ভিজ ম্যাগাজিনে নিয়মিত প্রচারের মাধ্যমে দেশব্যাপী বিখ্যাত হয়ে ওঠেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.architectsjournal.co.uk/practice/culture/currying-favour|শিরোনাম=Currying favour|শেষাংশ=Contributor|প্রথমাংশ=A. J.|তারিখ=2007-10-01|ওয়েবসাইট=The Architects’ Journal|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=2021-01-06}}</ref> তিনি ১৯৮৭ সালে প্রবর্তিত তাঁর "কারি হেল" ডিশের জন্য সুপরিচিত ছিলেন।<ref name="smh">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.smh.com.au/news/obituaries/owners-hot-method-of-currying-favour-led-to-restaurants-renown/2008/02/05/1202090415636.html?page=fullpage|শিরোনাম=Owner's hot method of currying favour led to restaurant's renown|শেষাংশ=Stephens|প্রথমাংশ=Tony|তারিখ=6 February 2008|কর্ম=[[The Sydney Morning Herald]]|সংগ্রহের-তারিখ=14 November 2014|অবস্থান=Sydney}}</ref> এটি একটি নামকরা [[তরকারি]] যা খুবই ঝাল স্বাদের (লতিফের মতে এটি "বিশ্বের সবচেয়ে ঝাল")।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://metro.co.uk/2008/07/10/heated-row-over-hottest-curry-265535/|শিরোনাম=Heated row over hottest curry|তারিখ=2008-07-10|ওয়েবসাইট=Metro|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=2021-01-06}}</ref> এটি তার [[নিউক্যাসল আপন টাইন|নিউক্যাসল]] রেস্তোরাঁতে বিনা টাকায় পরিবেশন করা হত যারা পুরো খাবার শেষ করতে পারতেন।<ref name="chronicle">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.chroniclelive.co.uk/whats-on-newcastle/food-drink/2004/07/31/lord-of-harpole-72703-14482111/|শিরোনাম=Lord of Harpole|শেষাংশ=Tobbell|প্রথমাংশ=Kayleigh|তারিখ=31 July 2004|কর্ম=[[Evening Chronicle]]|সংগ্রহের-তারিখ=24 January 2008|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20080201074015/http://www.chroniclelive.co.uk/whats-on-newcastle/food-drink/2004/07/31/lord-of-harpole-72703-14482111/|আর্কাইভের-তারিখ=1 February 2008|ইউআরএল-অবস্থা=dead}}</ref> খাবারটিতে একটি সাধারণ মানের ভিণ্ডলুর চেয়ে চারগুণ বেশি পরিমাণের মরিচ রয়েছে।<ref name="telegraph">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.telegraph.co.uk/news/obituaries/1576383/Abdul-Latif.html|শিরোনাম=Obituaries: Abdul Latif|তারিখ=24 January 2008|কর্ম=[[The Daily Telegraph|The Telegraph]]|সংগ্রহের-তারিখ=8 March 2009}}</ref>
 
'''আবদুল লতিফ''', এফআরএসএ (১৫ ডিসেম্বর ১৯৫৪ - ২০ জানুয়ারি ২০০৮) ছিলেন একজন [[যুক্তরাজ্য|ব্রিটিশ]]-[[বাংলাদেশ|বাংলাদেশি]] রেস্তোরাঁর মালিক এবং নিউক্যাসল আপন-ট্যাইনের [[তরকারি]] [[পাচক|শেফ]] যিনি ভিজ ম্যাগাজিনে নিয়মিত প্রচারের মাধ্যমে দেশব্যাপী বিখ্যাত হয়ে ওঠেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.architectsjournal.co.uk/practice/culture/currying-favour|শিরোনাম=Currying favour|শেষাংশ=Contributor|প্রথমাংশ=A. J.|তারিখ=2007-10-01|ওয়েবসাইট=The Architects’ Journal|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=2021-01-06}}</ref> তিনি ১৯৮৭ সালে প্রবর্তিত তাঁর "কারি হেল" ডিশের জন্য সুপরিচিত ছিলেন।<ref name="smh">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.smh.com.au/news/obituaries/owners-hot-method-of-currying-favour-led-to-restaurants-renown/2008/02/05/1202090415636.html?page=fullpage|শিরোনাম=Owner's hot method of currying favour led to restaurant's renown|শেষাংশ=Stephens|প্রথমাংশ=Tony|তারিখ=6 February 2008|কর্ম=[[The Sydney Morning Herald]]|সংগ্রহের-তারিখ=14 November 2014|অবস্থান=Sydney}}</ref> এটি একটি নামকরা [[তরকারি]] যা খুবই ঝাল স্বাদের (লতিফের মতে এটি "বিশ্বের সবচেয়ে ঝাল")।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://metro.co.uk/2008/07/10/heated-row-over-hottest-curry-265535/|শিরোনাম=Heated row over hottest curry|তারিখ=2008-07-10|ওয়েবসাইট=Metro|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=2021-01-06}}</ref> এটি তার [[নিউক্যাসল আপন টাইন|নিউক্যাসল]] রেস্তোরাঁতে বিনা টাকায় পরিবেশন করা হত যারা পুরো খাবার শেষ করতে পারতেন।<ref name="chronicle">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.chroniclelive.co.uk/whats-on-newcastle/food-drink/2004/07/31/lord-of-harpole-72703-14482111/|শিরোনাম=Lord of Harpole|শেষাংশ=Tobbell|প্রথমাংশ=Kayleigh|তারিখ=31 July 2004|কর্ম=[[Evening Chronicle]]|সংগ্রহের-তারিখ=24 January 2008|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20080201074015/http://www.chroniclelive.co.uk/whats-on-newcastle/food-drink/2004/07/31/lord-of-harpole-72703-14482111/|আর্কাইভের-তারিখ=1 February 2008|ইউআরএল-অবস্থা=dead}}</ref> খাবারটিতে একটি সাধারণ মানের ভিণ্ডলুর চেয়ে চারগুণ বেশি পরিমাণের মরিচ রয়েছে।<ref name="telegraph"/>
 
== প্রথম জীবন ==
লতিফের জন্ম [[সিলেট বিভাগ|সিলেট জেলা]], [[পূর্ব বাংলা]], [[পাকিস্তান অধিরাজ্য|পাকিস্তানের]] (বর্তমান [[বাংলাদেশ]]) [[সিলেট]] শহরের নিকটে।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.thetimes.co.uk/article/abdul-latif-50jhkl6nlr5|শিরোনাম=Abdul Latif|সংগ্রহের-তারিখ=2021-01-06|ভাষা=en|issn=0140-0460}}</ref> ১৯৬৯ সালে তিনি যুক্তরাজ্যে এসে [[ম্যানচেস্টার|ম্যানচেস্টারে]] স্থায়ী হন; এক রাতের এক বর্ণবাদী ঘটনা লতিফকে উত্তরাঞ্চল থেকে নিউক্যাসল আসতে বাধ্য করে। তিনি নেওয়ারুনের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন, একসাথে তাদের চার কন্যা এবং দুই পুত্র রয়েছে।<ref name="telegraph">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.telegraph.co.uk/news/obituaries/1576383/Abdul-Latif.html|শিরোনাম=Obituaries: Abdul Latif|তারিখ=24 January 2008|কর্ম=[[দ্যThe ডেইলিDaily টেলিগ্রাফTelegraph|The Telegraph]]|সংগ্রহের-তারিখ=8 March 2009}}</ref>
 
== কেরিয়ার ==
হুইটলি বে-র এক আত্মীয়ের মালিকানাধীন একটি রেস্তোঁরায় ওয়েটার হিসাবে টাইনসাইডে লতিফের প্রথম কাজ শুরু।<ref name="telegraph">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.telegraph.co.uk/news/obituaries/1576383/Abdul-Latif.html|শিরোনাম=Obituaries: Abdul Latif|তারিখ=24 January 2008|কর্ম=[[The Daily Telegraph|The Telegraph]]|সংগ্রহের-তারিখ=8 March 2009}}</ref> ১৯৭৭ সালে, লতিফ [[নিউক্যাসল আপন টাইন]] শহরের কেন্দ্রস্থলে রুপালী নামে একটি রেস্তোঁরা প্রতিষ্ঠা করেন। রেস্তোঁরাটিকে পরে কারি ক্যাপিটাল নামে নামকরণ করা হয়।<ref name="bbc3">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://news.bbc.co.uk/2/hi/uk_news/england/tyne/7200235.stm|শিরোনাম=From curry hell to model citizen|তারিখ=21 January 2008|কর্ম=[[BBC News]]|সংগ্রহের-তারিখ=24 January 2008}}</ref>
 
লতিফ সব ধরণের চাকুরীজীবী পুরুষ এবং মহিলাদের পাঁচ বছরের জন্য বিনামূল্যে কারি প্রদান করতেন যারা [[ইরাক যুদ্ধ|ইরাক যুদ্ধে]] নিয়োজিত ছিল,<ref name="bbc1">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://news.bbc.co.uk/2/hi/uk_news/england/tyne/2955963.stm|শিরোনাম=Hot offer tempts the troops|তারিখ=17 April 2003|কর্ম=[[BBC News]]|সংগ্রহের-তারিখ=24 January 2008}}</ref> এবং রাগবি তারকা জনি উইলকিনসন এবং ফুটবল ম্যানেজার গ্রায়েম সাউনিসকে সারা জীবনের জন্য বিনামূল্যে কারি সেবা দেন।<ref name="thenorthernecho">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.thenorthernecho.co.uk/mostpopular.var.1979610.mostviewed.curry_hell_man_dies.php|শিরোনাম=Restauranteur {{sic|hide=y}} dies from heart attack|শেষাংশ=Douglas|প্রথমাংশ=Andrew|তারিখ=20 January 2008|কর্ম=[[The Northern Echo]]|সংগ্রহের-তারিখ=24 January 2008}}</ref>
 
২০০৪ সালে, তাঁর রেস্তোঁরাটি বিশ্বের দীর্ঘতম দূরত্বে কারি পাঠানোর জন্য ''[[গিনেস বিশ্ব রেকর্ড|গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে]]'' তালিকাভুক্ত হয়{{snd}}যখন তিনি নিউক্যাসল থেকে [[সিডনি|সিডনির, অস্ট্রেলিয়ায়]] হিমায়িত উদ্ভিজ্জ বিরিয়ানি এবং পেশোয়ারী নান রুটি সরবরাহ করেন।<ref name="bbc3">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://news.bbc.co.uk/2/hi/uk_news/england/tyne/7200235.stm|শিরোনাম=From curry hell to model citizen|তারিখ=21 January 2008|কর্ম=[[BBC News]]|সংগ্রহের-তারিখ=24 January 2008}}</ref> পাঠানোর কাজটি মোটরসাইকেলের কুরিয়ার এবং বিমানের মাধ্যমে হয়েছিল এবং চার দিন সময় নিয়েছিল।<ref name="smh">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.smh.com.au/news/obituaries/owners-hot-method-of-currying-favour-led-to-restaurants-renown/2008/02/05/1202090415636.html?page=fullpage|শিরোনাম=Owner's hot method of currying favour led to restaurant's renown|শেষাংশ=Stephens|প্রথমাংশ=Tony|তারিখ=6 February 2008|কর্ম=[[The Sydney Morning Herald]]|সংগ্রহের-তারিখ=14 November 2014|অবস্থান=Sydney}}</ref> তিনি নিয়মিতভাবে ক্রিট অ্যাডাল্ট কমিক ''ভিজে ম্যাগাজিনে প্রদর্শিত'' হওয়া সত্ত্বেও কর্মীদের বিনামূল্যে তরকারী সরবরাহ করে স্বাদ গ্রহণ করতে দিতেন যেখানে তাকে "কারি মানসিকবাদী" হিসাবে ডাকা হত।
 
== আরো দেখুন ==