"ড্রেসডেন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

হালনাগাদ করা হল
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
(হালনাগাদ করা হল)
| color = black
| border = 0
| foot_montage = ঘড়ির কাঁটার দিক দিয়ে:শহরের স্কাইলাইন, [[সেম্পার অপেরা]], [[আউয়ার লেডি'স চার্চ]]এর গম্বুজ, [[ক্যাথলিক কোর্ট চার্চ]], যোয়াইঙ্গার প্রাসাদের প্রধান প্রবেশ, নতুন বাজার,আউয়ার লেডি'স চার্চ,ড্রেসডেন একাডেমি অফ ফাইন আর্টসের গম্বুজ, যোয়াইঙ্গার প্রাসাদ}}|ruling_party3=<!-- third ruling political party – give abbreviations -->}}{{কাজ চলছে}}[[চিত্র:Dresden_city_center_sights.png|ডান|থাম্ব|295x295পিক্সেল| প্রধান দর্শনীয় স্থানগুলির সাথে ঐতিহাসিক শহর কেন্দ্র]]
'''Dresdenড্রেসডেন''' ( {{IPAc-en|ˈ|d|r|ɛ|z|d|ən}}, {{IPA-de|ˈdʁeːsdn̩|lang|De-Dresden-pronunciation.ogg}}[[null|সংযোগ=|এই শব্দ সম্পর্কে]] ; Upper and Lower Sorbianঃ Sorbian: ''Drježdźany'' )
 
জার্মানির স্যাক্সনিস্যাক্সন রাজ্যের রাজধানী এবং দ্বিতীয় জনবহুল শহর। সমগ্র জার্মানির মধ্যে জনসংখ্যার দিক দিয়ে ড্রেসডেনের অবস্থান দ্বাদশ, আয়তনের দিক দিয়ে চতুর্থ। ড্রেসডেন শহুরে অঞ্চলের মধ্যে পার্স্ববর্তী ছোট মফস্বল শহর ফ্রাইটাল, পিরনা, রাডেবুল, মাইসেন এবং কসভিগ ও এই শহরগুলোর নিবাসী প্রায় ৭৯০,০০০ মানুষও অন্তর্ভূক্ত। <ref name="citypopulation_urban">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://citypopulation.de/en/germany/urbanareas/|শিরোনাম=Germany: Urban Areas|শেষাংশ=citypopulation.de quoting Federal Statistics Office|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20200603133151/http://citypopulation.de/en/germany/urbanareas/|আর্কাইভের-তারিখ=2020-06-03|ইউআরএল-অবস্থা=live|সংগ্রহের-তারিখ=2020-06-03}}</ref> ড্রেসডেন মেট্রোপলিটন অঞ্চলে প্রায় সাড়ে তেরো লাখ বাসিন্দা। <ref name="eurostat_metro">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://appsso.eurostat.ec.europa.eu/nui/show.do?dataset=met_pjanaggr3&lang=en|শিরোনাম=Population on 1 January by broad age group, sex and metropolitan regions|প্রকাশক=Eurostat|সংগ্রহের-তারিখ=2020-06-03}}</ref>
 
[[লাবে নদী|এলবে নদীর]] পাশে হামবুর্গের পর দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী ড্রেসডেন। {{Efn|Dresden is actually the third largest city on the [[River Vltava]], following Hamburg and [[Prague]], because above the confluence of Vltava and Elbe, the Vltava is longer and carries more water than the Elbe.}} নগরটির বেশিরভাগ জনগোষ্ঠী এলবে উপত্যকায় বাস করে। তবে নগরটির পূর্বদিকে খুব কম জনবহুল অঞ্চল পশ্চিম লুসাশিয়ান পার্বত্য অঞ্চল এবং উপল্যান্ড ( সুডেটেস এর পশ্চিমাংশ) অবস্থিত।
ড্রেসডেন শহর ও এর চারদিকের নদী ও অন্যান্য অঞ্চলের বেশিরভাগ নাম স্লাভিক উৎস থেকে এসেছে। ড্রেসডেন থুরিঙ্গিয়া উচ্চাঞ্চলের স্যাক্সন উপভাষা এলাকার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। সোরবিয়ান ভাষার অঞ্চল শহরের পূর্বে, লুসাতেয়ায় শুরু হয়।
 
ইলেক্টরস এবং [[জাখসেন|স্যাক্সনিস্যাক্সন]] রাজ্যের রাজার বাসস্থান হয়ে ড্রেসডেনের দীর্ঘকালের ইতিহাস রয়েছে। রাজ্যের রাজধানী ও রাজকীয় অঞ্চল হিসেবে বহু শতাব্দী ধরে শহরটিকে সাংস্কৃতিক ও শৈল্পিক জাঁকজমক দিয়ে সজ্জিত করা হয়েছে।একসময় পোলিশ রাজতন্ত্রের পারিবারিক আসন এই শহরে ছিলো। [[বারোক]] এবং রোকো সিটি সেন্টারের কারণে শহরটি "জুয়েল বক্স" নামে পরিচিত ছিল। [[দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ঘটনাপঞ্জি|দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে]]<nowiki/>র ড্রেসডেনের বিতর্কিত আমেরিকান ও ব্রিটিশ বোমা হামলার ফলে যুদ্ধের শেষের দিকে প্রায় ২৫ হাজার মানুষ মারা গিয়েছিল। এদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষই বেসামরিক ছিল এবং পুরো শহরের কেন্দ্রটি ধ্বংস করেছিল। যুদ্ধের পরে, ঐতিহাসিক অভ্যন্তরীণ শহরের অংশগুলি পুনরুদ্ধার করে পুনর্গঠন করতে সাহায্য করেছে।
 
১৯৯০ সালে [[জার্মান পুনঃএকত্রীকরণ|জার্মান পুনর্মিলনের]] পর থেকে ড্রেসডেন আবারও জার্মানি ও ইউরোপের সাংস্কৃতিক, শিক্ষামূলক এবং রাজনৈতিক কেন্দ্র হয়ে উঠেছে। ড্রেসডেন প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় জার্মানির ১০ টি বৃহত্তম বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে একটি এবং [[জার্মান বিশ্ববিদ্যালয় এক্সিলেন্স ইনিশিয়েটিভের]] একটি অংশ । ড্রেসডেনের অর্থনীতি এবং এর অবস্থান জার্মানির অন্যতম গতিশীল এবং স্যাক্সনি রাজ্যে শীর্ষে। <ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.dresden.de/de/wirtschaft/wirtschaftsstandort-dresden.php|শিরোনাম=Wirtschaftsstandort|শেষাংশ=Dresden|ওয়েবসাইট=www.dresden.de|ভাষা=de|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20200206045800/https://www.dresden.de/de/wirtschaft/wirtschaftsstandort-dresden.php|আর্কাইভের-তারিখ=6 February 2020|ইউআরএল-অবস্থা=dead|সংগ্রহের-তারিখ=2019-09-20}}</ref> [[উচ্চ প্রযুক্তি|উচ্চ-প্রযুক্তি শাখা]] দ্বারা প্রভাবিত হওয়ায় প্রায়শই বলা হয় "সিলিকন স্যাক্সনি"। হামবুর্গিশ ওয়েল্টওয়ার্টসচাটসিনস্টিটুট (এইচডাব্লুডাব্লুআই) এবং বেরেনবার্গ ব্যাংক অনুসারে, ২০১৯ সালে, ড্রেসডেনের জার্মানির সকল শহরের মধ্যে ভবিষ্যতের সপ্তম সেরা সম্ভাবনাময় শহর হয়েছিল। <ref name="HWWI2019">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.berenberg.de/files/HWWI_Berenberg_Staedteranking_2019.pdf|শিরোনাম=HWWI/Berenberg-Städteranking 2019|ওয়েবসাইট=berenberg.de|ভাষা=de|সংগ্রহের-তারিখ=2020-05-09}}</ref>