"উপভাষা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
 
{{কাজ চলছে}}
{{সমাজভাষাবিজ্ঞান}}
'''উপভাষা''' [[কথ্য ভাষা|কথ্য ভাষার]] পাশাপাশি প্রচলিত অঞ্চলবিশেষের জনগোষ্ঠী কর্তৃক ব্যবহূত আঞ্চলিক ভাষা। পৃথিবীর সর্বত্রই উপভাষার ব্যবহার রয়েছে । কথ্য ভাষার সাথে উপভাষার পার্থক্য ধ্বনি, রূপমূল, উচ্চারণ ও ব্যাকরণগত কাঠামোর মধ্যে নিহিত থাকে । উপভাষা দেশের মধ্যে কোন বিশেষ অঞ্চলের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে । বাংলাদেশে বিভিন্ন অঞ্চলের ভৌগোলিক অবস্থান, যোগাযোগ ব্যবস্থার অভাব, অর্থনৈতিক বৈষম্য এবং সামাজিক ও ধর্মীয় কারণে বিভিন্ন উপভাষার সৃষ্টি হয়েছে। ব্রিটিশ আমলে কলকাতায় স্বতন্ত্র শ্রেণির কথ্য ভাষা গড়ে উঠলেও ঢাকায় তা হয়নি; এমনকি ঢাকা বাংলাদেশের রাজধানী হওয়ার পরেও নয়। <ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://bn.banglapedia.org/index.php?title=%E0%A6%89%E0%A6%AA%E0%A6%AD%E0%A6%BE%E0%A6%B7%E0%A6%BE|শিরোনাম=উপভাষা - বাংলাপিডিয়া|ওয়েবসাইট=bn.banglapedia.org|সংগ্রহের-তারিখ=2020-12-22}}</ref>
 
== প্রমিত এবং অ-প্রমিত উপভাষা ==
''[[প্রমিত উপভাষা]]'' প্রাতিষ্ঠানিকভাবে সমর্থিত উপভাষা । একটি ভাষার সাথে একাধিক প্রমিত উপভাষা যুক্ত থাকতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, প্রমিত আমেরিকান ইংলিশ, প্রমিত ব্রিটিশ ইংলিশ, প্রমিত কানাডিয়ান ইংলিশ, প্রমিত ইন্ডিয়ান ইংলিশ, প্রমিত অস্ট্রেলিয়ান ইংলিশ এবং প্রমিত ফিলিপাইন ইংলিশ সবই [[ইংরেজি ভাষা|ইংরেজি ভাষার]] প্রমিত উপভাষা হিসাবে বলা যেতে পারে।