"পদ্মা সেতু" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

ট্যাগ যুক্ত করা হয়েছে
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(ট্যাগ যুক্ত করা হয়েছে)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
 
== নির্মাণের ইতিহাস ==
২০১৬-১৭ সালে প্রকল্প প্রস্তুতির সাথে যুক্ত কিছু লোকের দুর্নীতির অভিযোগ উঠায় [[বিশ্ব ব্যাংক|বিশ্বব্যাংক]] তার প্রতিশ্রুতি প্রত্যাহার করে নেয় এবং অন্যান্য দাতারা সেটি অনুসরণ করে। এই ঘটনায় তৎকালীন যোগাযোগমন্ত্রী [[সৈয়দ আবুল হোসেন|সৈয়দ আবুল হোসেনকে]] মন্ত্রিসভা থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় ও সচিব মোশাররফমোশারেফ হোসেন ভূইয়াকে জেলেও যেতে হয়েছিল। পরবর্তীতে এমন কোনও অভিযোগ প্রমাণ না পাওয়ায় কানাডিয়ান আদালত মামলাটি বাতিল করে দেয়। দুর্নীতিদুর্নীতির অভিযোগ পরবর্তীতে আদালতে খন্ডিত হয়। বর্তমানে প্রকল্পটি বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব সম্পদ থেকে অর্থায়ন করা হচ্ছে।<ref name="com">{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল=https://www.prothomalo.com/bangladesh/article/732298/%25E0%25A6%25AA%25E0%25A6%25A6%25E0%25A7%258D%25E0%25A6%25AE%25E0%25A6%25BE-%25E0%25A6%25B8%25E0%25A7%2587%25E0%25A6%25A4%25E0%25A7%2581-%25E0%25A6%25B9%25E0%25A6%259A%25E0%25A7%258D%25E0%25A6%259B%25E0%25A7%2587-%25E0%25A6%2596%25E0%25A6%25B0%25E0%25A6%259A%25E0%25A6%2593-%25E0%25A6%25AC%25E0%25A6%25BE%25E0%25A7%259C%25E0%25A6%259B%25E0%25A7%2587 |শিরোনাম=পদ্মা সেতু হচ্ছে, খরচও বাড়ছে |ওয়েবসাইট=প্রথম আলো |ভাষা=bn |সংগ্রহের-তারিখ=2018-10-21}}</ref> AECOM এর নকশায় পদ্মা নদীর উপর বহুমুখী আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন প্রকল্প 'পদ্মা বহুমুখী সেতুর' নির্মাণকাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল ২০১১ সালে। শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০১৩ সালে। মূল প্রকল্পের পরিকল্পনা করেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকার ২০০৭ সালের ২৮ আগস্ট। সে সময় ১০ হাজার ১৬১ কোটি টাকার বহুল আলোচিত পদ্মা সেতু প্রকল্প পাস করা হয়। পরে আওয়ামী লীগ সরকার এসে রেলপথ সংযুক্ত করে ২০১১ সালের ১১ জানুয়ারি প্রথম দফায় সেতুর ব্যয় সংশোধন করে। তখন এর ব্যয় ধরা হয়েছিল ২০ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা। পদ্মা সেতুর ব্যয় আরও আট হাজার কোটি টাকা বাড়ানো হয়। ফলে পদ্মা সেতুর ব্যয় দাঁড়িয়েছে সব মিলিয়ে ২৮ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা।<ref>https://www.prothomalo.com/bangladesh/article/1463076/</ref> বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ (বাসেক) ২০১০ সালের এপ্রিলে প্রকল্পের জন্য প্রাক যোগ্যতা দরপত্র আহবান করে। প্রথম পরিকল্পনা অনুসারে, ২০১১ সালের শুরুর দিকে সেতুর নির্মাণ কাজ আরম্ভ হওয়ার কথা ছিল<ref name="independent">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://www.independent-bangladesh.com/2010120312125/country/funds-for-pawdda-bridge-arranged.html |শিরোনাম=Funds for Pawdda Bridge Arranged |তারিখ=4 December 2010 |কর্ম=Bangladesh News |সংগ্রহের-তারিখ=5 January 2011 |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20180205000834/http://www.independent-bangladesh.com/2010120312125/country/funds-for-pawdda-bridge-arranged.html |আর্কাইভের-তারিখ=৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ |অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref> এবং ২০১৩ সালের মধ্যে প্রধান কাজগুলো শেষ হওয়ার কথা ছিল।<ref name="roadtraffic">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://www.roadtraffic-technology.com/news/news103350.html |শিরোনাম=ADB Approves Loan for Bangladesh Bridge Project |তারিখ=30 November 2010 |সংগ্রহের-তারিখ=5 January 2011 |প্রকাশক=roadtraffic-technology.com}}{{Unreliable source?|reason=domain on WP:BLACKLIST|date=June 2016}}</ref> প্রকল্পটি তিনটি জেলাকে অন্তর্ভুক্ত করবে- মুন্সীগঞ্জ (মাওয়া পয়েন্ট/উত্তর পাড়), শরীয়তপুর এবং মাদারীপুর (জঞ্জিরা/দক্ষিণ পাড়)। এটির জন্য প্রয়োজনীয় এবং অধিগ্রহণকৃত মোট জমির পরিমাণ ৯১৮ হেক্টর।
 
=== প্রকল্পসংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ===
৯৫০টি

সম্পাদনা