সোয়াইন ইনফ্লুয়েঞ্জা: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

*আক্রান্ত হলে স্কুল, কলেজ অথবা কর্মস্থলে না গিয়ে বাড়ীতে, অন্যদের থেকে নিরাপদ দুরত্বে থাকুন, যাতে অন্যরা আক্রান্ত না হয়।
 
===সনাক্তকরনের উপায় (Diagnosis)===
সোয়াইন ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসের উপস্থিতি নির্ণয়ের জন্য প্রথমেই সন্দেহভাজন ব্যক্তির লালা, নাসিকা রসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। সংগৃহিত নমুনা ভাইরার ট্রান্সপোর্ট মিডিয়া ([[:en:Viral Transport Medium|VTM]])-এ সংরক্ষণ করে নমুনা পরীক্ষণ গবেষণাগারে (Diagnosis lab) নিয়ে আসা হয়। পরবর্তিতে নমুনা হতে নিউক্লিক অ্যাসিড এক্সট্রাক্সন ([[:en:Nucleic Acid Extraction|Nucleic Acid Extraction]]) করা হয়। তারপর রিভার্স ট্রান্সক্রিপশন পিসিআরের মাধ্যমে নমুনাতে সোয়াইন ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসের উপস্থিতি নির্ণয় করা যায়। বর্তমানে অত্যাধুনিক রিয়েল টাইম রিভার্স ট্রান্সক্রিপশন পিসিআর ([[:en:Real Time RT PCR|Real Time RT PCR]]) এর মাধ্যমে খুব দ্রুত ভাইরাসের উপস্থিতি ও সংখ্যা নির্ণয় করা সম্ভব হয়েছে।<ref>Smith ''et al.,''2006. Real-Time PCR in Clinical Microbiology: Applications for
Routine Laboratory Testing. Clinical Microbiology Reviews, 19(1):165–256. doi:10.1128/CMR.19.1.165–256.2006</ref>
২,৫৭৮টি

সম্পাদনা