"আফগান উইমেন্স নেটওয়ার্ক" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

অনুবাদ, সম্প্রসারণ
(Meghmollar2017 আফগান উওমেন্স নেটওয়র্ক কে আফগান উইমেন্স নেটওয়ার্ক শিরোনামে স্থানান্তর করেছেন: প্রচলিত বানানরীতি ও প্রয়োগ)
(অনুবাদ, সম্প্রসারণ)
{{কাজ চলছে/এশীয় মাস}}
'''আফগান উওমেন্সউইমেন্স নেটওয়র্কনেটওয়ার্ক''' (এডব্লিউএন) ([[বাংলা|বাংলায়]]: আফগান নারীদের সমন্বয় বিন্যাস) হল ১৯৯৬ খ্রিস্টাব্দে [[আফগানিস্তান|আফগান]] নারীদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত একটা [[বেসরকারি সংস্থা]] (এনজিও), যেটা [[বেইজিং|বেইজিংয়ের]] মহিলা বিষয়ক বিশ্ব সম্মেলনের অনুসরণে তৈরি হয়েছিল এবং "নারীদের ক্ষমতায়ন এবং আফগান সমাজে তাঁদের সমান অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নিয়ে কাজ করে।"<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.afghanwomennetwork.af/|শিরোনাম=Web site of The Afghan Women's Network|প্রকাশক=Afghanwomennetwork.af|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20110815122257/http://www.afghanwomennetwork.af/|আর্কাইভের-তারিখ=2011-08-15|ইউআরএল-অবস্থা=dead|সংগ্রহের-তারিখ=2013-06-06}}</ref>
 
== পরিচয় ==
আফগান উওমেন্সউইমেন্স নেটওয়র্কনেটওয়ার্ক এরকম এক আফগানিস্তানের সমাজে বসবাস করার দৃষ্টিভঙ্গি টিকিয়ে রেখেছে যে সমজে নারী ও পুরুষ ন্যায়বিচার পাবে এবং সেটা বৈষম্যমুক্ত হবে। আফগান উওমেন্সউইমেন্স নেটওয়র্কেরনেটওয়ার্কের নজর দেওয়ার মতো কেন্দ্রবিন্দুগুলো হল:<ref name=":1">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.awn-af.net/index.php/cms/more/177|শিরোনাম=Afghan Women's Network.|ওয়েবসাইট=www.awn-af.net|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=2017-07-16}}</ref> <ref name=":4">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.insightonconflict.org/conflicts/afghanistan/peacebuilding-organisations/afghan-womens-network-awn/|শিরোনাম=Insight on Conflict|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|কর্ম=Insight on Conflict|সংগ্রহের-তারিখ=2017-07-26|ভাষা=en}}</ref>
 
* নারী, শান্তি এবং সুরক্ষা।
* নারীদের সামাজিক এবং আইনানুগ সুরক্ষা।
 
আফগানিস্তান এবং পাকিস্তানে [[নারী অধিকার]] নিয়ে কাজ করা অন্যান্য বেসরকারি সংস্থাগুলোকে সমর্থন জোগানোর একটা ভিত্তি হিসেবে আফগান উওমেন্সউইমেন্স নেটওয়র্কনেটওয়ার্ক কাজ করে। এই সংস্থা যেসব দাতা সংস্থার কাছ থেকে তহবিলের অর্থ সংগ্রহ করে সেগুলো হল: ফরাসি দূতাবাস, [[অ্যাকশন এইড|অ্যাকশনএইড]], [[জাতিসংঘ শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনার|জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার]] এবং রোল্যান্ড বার্গার ফাউন্ডেশন। এডব্লিউএন-এর কাজকর্ম চালু আছে কাবুল, হার্ত, বালখ, কান্দাহার, বামিয়ান, পাকতিয়া, নানগরহর এবং কুন্দুজ ... এইসব জায়গায়; এর ব্যক্তিগত সদস্য আছে (কেবলমাত্র নারী) ৩৫০০ সংখ্যারও অধিক এবং সদস্যপদ সমেত ১২৫ সংখ্যক নারী সংগঠন এর সঙ্গে যুক্ত।<ref name=":02">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.awn-af.net/index.php/cms/content/68|শিরোনাম=AWN History|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|ওয়েবসাইট=www.awn-af.net|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=2017-07-16}}</ref>
 
আফগান উওমেন্সউইমেন্স নেটওয়র্কেনেটওয়ার্কে নির্বাহী পর্ষদ সদস্য হিসেবে যুক্ত হয়েছেন [[মানিঝা ওয়াফেক|মনিঝা ওয়াফেক]]<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.kardan.edu.af/FortyUnderForty/Manizha-Wafeq|শিরোনাম=Kardan University|ওয়েবসাইট=www.kardan.edu.af|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20161224095634/http://www.kardan.edu.af/FortyUnderForty/Manizha-Wafeq|আর্কাইভের-তারিখ=2016-12-24|ইউআরএল-অবস্থা=dead|সংগ্রহের-তারিখ=2016-12-23}}</ref> এবং বর্তমান নির্বাহী পরিচালক হলেন হাসিনা সফি।<ref name=":0">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.theguardian.com/global-development/2015/mar/09/international-womens-day-fund-womens-role-peace|শিরোনাম=Time To Fund Women's Role in the Cause of Peace|শেষাংশ=Filippini|প্রথমাংশ=Simone|তারিখ=9 March 2015|কর্ম=The Guardian|সংগ্রহের-তারিখ=9 September 2015|via=}}</ref>
 
== ইতিহাস ==
 
১৯৯৫ খ্রিস্টাব্দে আফগান উইমেন্স নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। চিনের বেইজিং শহরে অনুষ্ঠিত ইউনাইটেড নেশন্স ফোর্থ ওয়ার্ল্ড কনফারেন্স অন উইমেন সভায় যে সমস্ত নারী অংশগ্রহণ করেছিলেন, তাঁরা আফগান নারীদের জন্যে একটা নেটওয়ার্ক তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।<ref name=":4" />
 
২০১৩ খ্রিস্টাব্দে মানবাধিকারের স্বপক্ষে প্রস্তুত করা লেসলি থমাস কৃত শিল্পকর্ম "উইমেন বিটুইন পিস অ্যান্ড ওয়ার: আফগানিস্তান" শীর্ষক প্রদর্শনী পরিচালনার ব্যাপারে এডব্লিউএন সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছিল।<ref>{{cite web|url=http://asiasociety.org/blog/asia/photosinterview-arresting-images-capture-afghan-women-between-peace-and-war|title=Photos/Interview: Arresting Images Capture Afghan Women 'Between Peace and War'|website=Asiasociety.org|date=30 September 2013|author=James Kochien|accessdate=10 November 2017}}</ref>
 
আফগান উইমেন্স নেটওয়ার্ক ২০১৪ খ্রিস্টাব্দের মার্চে [[হেনরিখ বোয়েল ফাউন্ডেশন]] সংস্থার সহায়তায় বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সরকারি সংবাদপত্র "আফগান উইমেন ভিশন ২০২৪" চালু করেছিল।<ref>{{cite web|url=https://www.boell.de/en/2014/03/10/afghan-women-vision-2024|title=Afghan Women Vision 2024|website=Boell.de|date=10 March 2014|accessdate=10 November 2017}}</ref> ২০১৪ খ্রিস্টাব্দে ওএনজি বলেছে যে, প্রতি বছর আফগানিস্তানে ১৫০ সংখ্যক [[অনার কিলিং]] (সম্ভ্রমের জন্যে হত্যা) সংঘটিত হয়ে থাকে।<ref>{{cite web|url=https://www.nytimes.com/2014/05/04/world/asia/in-spite-of-the-law-afghan-honor-killings-of-women-continue.html|title=In Spite of the Law, Afghan ‘Honor Killings’ of Women Continue|website=Nytimes.com|date=3 May 2014|author=Rod Nordland|accessdate=10 November 2017}}</ref> আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনীর প্রগতিশীল প্রত্যাহারের ওপর, বাহিনী থাকাকালীন নারীরা যে প্রকৃত সুবিধে পেয়েছিল সেগুলো বজায় রাখার ব্যাপারে এডব্লিউএন জোর দিয়েছিল।<ref>{{cite web|url=https://www.csmonitor.com/World/Progress-Watch/2015/0106/Afghanistan-Women-s-rights-make-big-gains|title=Afghanistan: Women's rights make big gains|website=Csmonitor.com|date=6 January 2015|author=Anne Steele|accessdate=10 November 2017}}</ref>
 
২০১৫ খ্রিস্টাব্দের ফেব্রুয়ারিতে এডব্লিউএন রাষ্ট্রপতি [[আসরফ ঘানি|আসরফ ঘানিকে]] তাঁরই কথার পরিপ্রেক্ষিতে লিঙ্গ সমতা বজায় রেখে চার মহিলা মন্ত্রণালয়ের নাম ঘোষণার জন্যে চাপ দিতে পদযাত্রাগুলিতে অংশ নিয়েছিল।<ref>{{cite web|url=https://www.theguardian.com/global-development/2015/feb/03/afghan-women-protest-absence-female-ministers-new-cabinet|title=Afghan women protest at absence of female ministers in new cabinet|website=Theguardian.com|date=3 February 2015|author=Sune Engel Rasmussen |accessdate=10 November 2017}}</ref> ২০১৬ খ্রিস্টাব্দে আফগানিস্তানে [[তালিবান|তালিবানদের]] উচ্চ প্রভাবের সময়ে ওএনজি সরকারি কার্যধারায় নারীদের পুনরাবির্ভাবের কথা বলেছিল।<ref>{{cite web|url=https://broadly.vice.com/en_us/article/bmw97w/the-taliban-is-publicly-executing-women-again|title=The Taliban Is Publicly Executing Women Again|website=Vice.com|date=16 May 2016|author=Mari Shibata|accessdate=10 November 2017}}</ref>
== আরো দেখুন ==
 
১,৪১৪টি

সম্পাদনা