"বৌদ্ধ ধ্যান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

→‎ধ্যান উৎপত্তি কৌশল: সম্প্রসারণ, রচনাশৈলী
(→‎ধ্যান উৎপত্তি কৌশল: সম্প্রসারণ, রচনাশৈলী)
|name="এগার প্রকার সমাধি উৎপন্ন"|মনকে শান্ত করার জন্য এগার প্রকার সমাধি উৎপন্ন করা যায়, যেগুলোঃ ১) বস্তু বিশোধন, ২) নিমিত্ত কুশলতা, ৩) ইন্দ্রিয় সমতা, ৪) চিত্তকে নিগ্রহ (মনকে সংযম/শান্ত করা), ৫) চিত্তকে প্রগ্রহ/প্রগ্রাহ (মনকে লাগাম দেওয়া বা নিয়ন্ত্রণ), ৬) নিরাসবাদ চিত্তে স্মপ্রহর্ষণতা উৎপাদন, ৭) যথাযথ স্মৃতি অনুশীলন্রত চিত্তকে জাগ্রত সম্যক গতিতে পরিচালন, ৮) অসমাধিস্থ ব্যক্তি বর্জন, ৯) সমাধিস্থ ব্যাক্তির সান্নিধ্য, ১০) লব্ধধ্যান প্রত্যবেক্ষণ, ১১) তদবিমুক্ততা বা সমাধির প্রতি নতভাব।{{sfnp|বড়ুয়া|২০১৪}}
}} এবং, পাঁচ প্রকার উপেক্ষা উৎপন্ন।উৎপন্ন,{{
refn|group=note
|name="পাঁচ প্রকার উপেক্ষা উৎপন্ন"|মনকে শান্ত করার জন্য পাঁচ প্রকার উপেক্ষা উৎপন্ন করা যায়, যেগুলোঃ ১) স্বত্ব-মধ্যস্থতা (নিজের কর্মফলকে নিজেই ভোগ করতে হবে), ২) সংস্কার মধ্যস্থতা (সকল সংস্কার/বস্তু অনিত্য, দুঃখ, অনাত্ম) , ৩) সত্ব, সংস্কার, ক্লেশ, পুদ্গল ইত্যাদি বর্জন, ৪) সত্ব্য, সংস্কার, মধ্যস্থ পুদ্গলের সাহচার্য দ্বারা, ৫) তদধিমুক্ততা।{{sfnp|বড়ুয়া|২০১৪}}
====}} সময়ে চিত্তকে সম্প্রহর্ষিত ====,{{
refn|group=note
|name="সময়ে চিত্তকে সম্প্রহর্ষিত"|ধ্যানে মনোযোগ বসাতে না পারলে বা ধ্যান করলে যে সুখ হয়, তা উৎপন্ন করতে না পারলে মনে নিরস্বাদ বোধ বা বিরক্তির সৃষ্টি হতে পারে। এই সময় অষ্টমহাসংবেগ বস্তু, যা হল জন্ম, জরা, ব্যধি, মরণ, চার অপায় দুঃখ [তীর্যক (পশু-পাখি কুল), প্রেতলোক (প্রেত-পেতী), অসুর (অনাচারী দেবক‚ল), নরক (নিরয়)], অতীত ও ভবিষ্যতে আবর্তনজনিত দুঃখ, বর্তমানে আহার ও দেহ পরিচর্যাজনিত দুঃখ অথবা ত্রিরন্তের (বুদ্ধ, ধর্ম, সংঘ) গুণসমূহ স্মরণ করে মন বা চিত্তে আনন্দ বা সম্প্রহর্ষ আনে।{{sfnp|বড়ুয়া|২০১৪}}
====}} সময়ে চিত্তকে অধ্যুপেক্ষা করা ====,{{
refn|group=note
|name="সময়ে চিত্তকে অধ্যুপেক্ষা করা"|ধ্যানে ঠিকমতো মনোযোগ রাখতে পারলে চিত্তের প্রগ্রহ, নিগ্রহ বা সম্প্রহর্ষণের দরকার হয়না। সামান্য চেষ্টাতেই ধ্যানের সমাধি বাড়ানো যায়। এটাই অধ্যুপেক্ষাকৃত্য {{sfnp|বড়ুয়া|২০১৪}}
====}} অসমাধিস্থ ব্যক্তি বর্জন ===={{
refn|group=note
|name="অসমাধিস্থ ব্যক্তি"|অসমাধিস্থ ব্যক্তি হল নির্বাণ লাভের কোন ইচ্ছা নেই, পঞ্চকামগুণের (রূপ, শব্দ, গন্ধ, স্বাদ, স্পর্শ) প্রতি অতিমাত্রায় আসক্ত ব্যক্তি, মন ধিরস্থির নয় এমন ব্যক্তি, ধ্যনে উদাসীন, এমন ব্যক্তি।{{sfnp|বড়ুয়া|২০১৪}}
====}} সমাধিস্থ ব্যক্তির সেবা করা ====,{{
refn|group=note
|name="সমাধিস্থ ব্যক্তি"|নির্বাণ কাম্য করেন, পঞ্চকামগুণে (রূপ, শব্দ, গন্ধ, স্বাদ, স্পর্শ) আসক্ত নয় এমন ব্যক্তি, মন স্থির, ধ্যানে উদ্যমী, এমন ব্যক্তি।{{sfnp|বড়ুয়া|২০১৪}}
====}} তদধিমুক্ততাএবং ====তদধিমুক্ততা{{
refn|group=note
|name="তদধিমুক্ততা"|সমাধি যতটুকু ইচ্ছা বৃদ্ধি করা, সমাধির প্রতি ভক্তি, সমাধির প্রতি নত হওয়া, সমাধির প্রতি মনের এই অনুগত ভাবই তদধিমুক্ততা।{{sfnp|বড়ুয়া|২০১৪}}
}}{{sfnp|বড়ুয়া|২০১৪}}
 
 
==== সময়ে চিত্তকে সম্প্রহর্ষিত ====
 
 
==== সময়ে চিত্তকে অধ্যুপেক্ষা করা ====
 
 
==== অসমাধিস্থ ব্যক্তি বর্জন ====
 
 
==== সমাধিস্থ ব্যক্তির সেবা করা ====
 
 
==== তদধিমুক্ততা ====
 
= ধ্যানের প্রকারভেদ =
৮৬৭টি

সম্পাদনা