"দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

→‎প্রাচীন ইতিহাস: তথ্যসূত্র যোগ/সংশোধন
(→‎আরও পড়ুন: সংশোধন)
(→‎প্রাচীন ইতিহাস: তথ্যসূত্র যোগ/সংশোধন)
এই অঞ্চল সরাসরি [[গুপ্ত সাম্রাজ্য|গুপ্ত সাম্রাজ্যের]] অংশ না হলে ছিলো যথেষ্ট৷
তবে এই অঞ্চল থেকে প্রাপ্ত পৌরানিক ব্রাক্ষ্মন্যবাদ সংক্রান্ত পুরাবস্তু থেকে এই অঞ্চলে গুপ্ত সাম্রাজ্যের সাংস্কৃৃতিক প্রভাব সম্বন্ধে ধারনা করা যায়।<!--হডড় ২০০৯-->
[[বিদ্যাধরী নদী]] সংলগ্ন এই প্রত্নস্থলটির সঙ্গে জলপথে প্রাচীন ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চল বিশেষত রোমের বাণিজ্যিক যোগসূত্রের সুনিশ্চিত প্রমাণ মিলেছে।<ref name=দে>{{harvnb|দে|দে|২০১৩|p=}}</ref>
গৌড় বংশীয় [[শশাঙ্ক]] এই অঞ্চলে শাসন কায়েম করতে পারেনি।
পাল বংশের রাজা গোপাল দ্বিতীয় এবং বিগ্রহপাল দ্বিতীয়ের সময়কালে এই অংশ পালেদের হাত থেকে চন্দ্র বংশের হাতে চলে যায়।
মথুরাপুরের উত্তর জটা গ্রামের জটার দেউল মন্দিরটি ৯৭৫ খ্রিস্টাব্দে চন্দ্র বংশের রাজা জয়চন্দ্রের দ্বারা নির্মিত।<!--হডড় ২০০৯-->
এছাড়াও সেন যুগের বহু [[দেব-দেবী]]রদেবীর মূর্তি জেলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আবিস্কৃত হয়েছে।
 
=== মধ্য যুগ ===