"আবুল হোসেন (লালমনিরহাটের রাজনীতিবিদ)" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্প্রসারণ
(সম্প্রসারণ)
(সম্প্রসারণ)
 
==জীবনী==
আবুল হোসেন মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ছিলেন। তিনি [[ছয় দফা আন্দোলন|৬ দফা আন্দোলন]], [[বাংলা ভাষা আন্দোলন|ভাষা আন্দোলন]] ও [[বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ|বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে]] অংশগ্রহণসহ তৎকালীন সকল রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে সক্রিয় ভূমিকা রাখেন। ১৯৭০ সালে [[পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ|পাকিস্তান গণপরিষদ]] সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://lalmonibarta.com/details.php?mblogs=MTkzOA==|শিরোনাম=মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সাবেক এমপি আবুল হোসেন-এর ইন্তেকাল রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন|তারিখ=17 December 2016|সংগ্রহের-তারিখ=2 January 2020|ওয়েবসাইট=লালমনিরহাট বার্তা|ভাষা=bn}}</ref> তিনি ১৯৭১ সালে [[মুক্তিযুদ্ধ|মুক্তিযুদ্ধে]] অংশগ্রহণ করেছিলেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://m.banglanews24.com/national/news/bd/541007.details|শিরোনাম=সাবেক এমপি আবুল হোসেনের মৃত্যুতে ডেপুটি স্পিকারের শোক|তারিখ=16 December 2016|সংগ্রহের-তারিখ=2 January 2020|ওয়েবসাইট=বাংলানিউজ২৪.কম|ভাষা=bn}}</ref> দেশ স্বাধীনের পর তিনি ১৯৭৩ সালে রংপুর-১৪ আসনের সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি |শিরোনাম=১ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা |ইউআরএল=http://www.parliament.gov.bd/images/pdf/formermp/1st.pdf |ওয়েবসাইট=[[জাতীয় সংসদ]] |প্রকাশক=[[বাংলাদেশ সরকার]] |আর্কাইভের-ইউআরএল= https://web.archive.org/web/20180909153327/http://www.parliament.gov.bd/images/pdf/formermp/1st.pdf|আর্কাইভের-তারিখ=৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮}}</ref> এরপর, ১৯৮৬ সালে তিনি [[লালমনিরহাট-৩]] আসনের সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি |শিরোনাম=৩য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা |ইউআরএল=http://www.parliament.gov.bd/images/pdf/formermp/3rd.pdf |ওয়েবসাইট=[[জাতীয় সংসদ]] |প্রকাশক=[[বাংলাদেশ সরকার]] |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20180918080059/http://www.parliament.gov.bd/images/pdf/formermp/3rd.pdf |আর্কাইভের-তারিখ=১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮}}</ref>
 
তিনি লালমনিরহাট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং পর পর তিনবার চেম্বারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। তিনি দু’বার এফবিসিসিআই এর পরিচালনা পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সর্বোচ্চ পদ ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে নেতৃত্ব প্রদান করেন।