"নারী-নারী সহবাস" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
 
এই নারী-নারী সহবাসকে ইংরেজি ভাষায় ট্রিব্যাডিজম (Tribadism) বলা হয়। এই ধরনের যৌনমিলনের ধারণা উদ্ভূত হয়েছিলো এই বিশ্বাস থেকে যে একজন নারীও আরেকজন নারীর সঙ্গে যৌনমিলন তার পুরুষসঙ্গীর মতই করতে পারেন।<ref name="Zimmerman"/><ref name="Penner">{{বই উদ্ধৃতি| শিরোনাম=Mapping gender in ancient religious discourses | অধ্যায়=Still before sexuality: "Greek" androgyny, the Roman imperial politics of masculinity and the Roman invention of the ''Tribas''| প্রকাশক=Brill | বছর=2007 | আইএসবিএন=90-04-15447-7|সংগ্রহের-তারিখ=February 19, 2012|ইউআরএল=https://books.google.com/?id=2udV9fAz1UkC&pg=PA11 |লেখক১=Todd C. Penner |লেখক২=Caroline Vander Stichele |পাতাসমূহ=11–21}}</ref><ref name="Halberstam">{{বই উদ্ধৃতি|প্রথমাংশ=Judith|শেষাংশ=Halberstam|লেখক-সংযোগ = Judith Halberstam|শিরোনাম =Female Masculinity|আইএসবিএন = 9780822322436|প্রকাশক=Duke University Press|বছর=1998|পাতাসমূহ=61–62|সংগ্রহের-তারিখ=2010-12-19|ইউআরএল=https://books.google.com/books?id=UYAi9OEYRekC&pg=PA61}}</ref> যেসব নারী আগেকার যুগে এই ধরনের যৌনক্রিয়ায় জড়াতেন তাদেরকে নিয়ে সমাজ ঠাট্টা-তামাশা করতো।<ref name="Zimmerman"/><ref name="Halberstam"/><ref name="Goodman">{{বই উদ্ধৃতি|শিরোনাম=Marie-Antoinette: writings on the body of a queen|লেখক=Dena Goodman|প্রকাশক=Psychology Press|বছর=2003|পাতাসমূহ=144–145|সংগ্রহের-তারিখ=February 19, 2012|আইএসবিএন=0-415-93395-1|ইউআরএল=https://books.google.com/?id=VA9oTIyrWr4C&pg=PA145}}</ref> আধুনিক সময়ে এই ধরনের যৌনক্রিয়া পুরুষদের [[ঘর্ষকাম]] এর অনুরূপ একটি যৌনতা হিসেবে স্বীকৃত। এই ধরনের যৌনক্রিয়ায় [[অঙ্গুলিসঞ্চালন (যৌনক্রিয়া)|যোনিতে আঙ্গুল ঢোকানো]] কিংবা [[বন্ধনীযুক্ত কৃত্রিম শিশ্ন]] পরিধান করে [[পেগিং (যৌনক্রিয়া)|পেগিং]]ও করা হতে পারে।<ref name="Carroll"/><ref name="Halberstam"/>
==আরো দেখুন==
*[[নারী সমকামী সাহিত্য]]
==তথ্যসূত্র==
{{ সূত্র তালিকা }}
৯৫টি

সম্পাদনা