"সাহায্য:পাতার ইতিহাস" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

আমার সম্পর্কে সব তথ্য ।
(103.137.162.130-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে Foysalur Rahman Shuvo-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সংস্করণে ফেরত)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা পুনর্বহাল উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
(আমার সম্পর্কে সব তথ্য ।)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা
{{Shortcut|WP:PAGE|HELP:PH}}
শাকিলুর রহমান প্রাথমিক শিক্ষাজীবনের পুরোটাই কেটেছে পাল্লা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। মাধ্যমিক পর্যায় কেটেছে পাল্লা বহুমুখী স্কুল অ্যান্ড কলেজে। বর্তমানে তিনি হাজী আব্দুর রহমান আব্দুর করিম ডিগ্রি কলেজে দ্বাদশ শ্রেনীতে লেখাপড়া করছেন।
উইকিপিডিয়া সকল পাতার সংশ্লিষ্ট ইতিহাসপাতা থাকে, যাতে ঐ পাতার তারিখ ও সময় ([[ইউটিসি|ইউটিসিতে]]) সহ পুরনো সংস্করণের প্রতিটি সম্পাদনা কোন ব্যবহারকারী বা আইপি ঠিকানা থেকে সম্পাদিত হয়েছে তা [[ সাহায্য:সম্পাদনা সারাংশ‎‎ |সম্পাদনা সারাংশ]]‎‎ সহ সংরক্ষিত থাকে। এইটিকে '''সংস্করণের ইতিহাস''' বা '''সম্পাদনার ইতিহাস''' হিসেবেও ব্যক্ত করা যায়। পাতার ইতিহাস দেখতে চাইলে, উপরের '''ইতিহাস''' ট্যাবে ক্লিক করুন।
 
উইকিপিডিয়ায় প্রতিটি সম্পাদনাযোগ্য পাতার সাথে সম্পর্কযুক্ত '''পাতার ইতিহাস''' রয়েছে। এটাকে কখনো '''সংস্করণ ইতিহাস''' বা '''সম্পাদনা ইতিহাস''' হয়ে থাকে। পাতার উপরের দিকে "ইতিহাস" ট্যাবে ক্লিক করে পাতার ইতিহাসে প্রবেশ করা যায়। পাতার ইতিহাসে পূর্ববর্তী সংস্করণের একটি তালিকা থাকে যেটিতে প্রতিটি সম্পাদনার তারিখ ও সময় [[ইউটিসি|ইউটিসি]], সম্পাদনাকারীর নাম বা আইপি ঠিকানা এবং সম্পাদনার সারাংশ[[সাহায্য:সম্পাদনা সারাংশ‎‎ |সম্পাদনা সারাংশ]]অন্তর্ভুক্ত থাকে।
 
এক বড় ভাইয়ের অনুপ্রেরণা ও সহযোগিতায় শাকিলের সাংবাদিকতায় যাত্রা শুরু করেন। ২০১৬ থেকে ২০১৮ সাল পযর্ন্ত কাজ করেন ‘হ্যালো ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে’ শিশুসাংবাদিক হিসেবে। এছাড়াও তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ব্লগে নিয়মিত লেখালেখি করতেন। এভাবেই শুরু হয় সাংবাদিকতায় তার পথচলা।
 
 
‘হিজড়া শিশুরা কষ্টে আছে’ ও ‘ভিক্ষে নির্ভর মুক্তিযোদ্ধার জীবন’ এ রকম বেশ কয়েকটি সংবাদ বিডিনিউজের হ্যালো ও প্রিজমতে প্রকাশিত হওয়ার পর পরিচিতি বেড়েছে তার। এ ধরনের সংবাদের ফলে সুবিধাবঞ্চিত এক শিক্ষার্থীকে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে। বিডিনিউজ সংবাদ প্রকাশের পর 'কাঁচা রাস্তা পাকা' হয়েছে।
 
 
'বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করে হাট' বসতো হ্যালোতে সংবাদ প্রকাশের পর মাঠ দখল মুক্ত হয়েছে। ‘সোনাপুর বাঁশের সাঁকোর বেহাল অবস্থা’ এই সংবাদটি প্রকাশের পর একটি ছোট সেতুর ব্যবস্থা হয়। এছাড়াও তিনি ভিজুয়াল মিডিয়া বিভাগে ‘সার্কাস দলে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম’ শিরোনামের প্রতিবেদনের জন্য ইউনিসেফ মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০১৮ এর জন্য মনোনীত হয়। এসব ঘটনা এই পথচলায় তাকে আরো আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে।
 
 
শাকিল সাংবাদিকতার পাশাপাশি ছোটবেলা থেকেই গরিব শিশুদের নিয়ে কাজ করছেন। এখনো গরিব শিশুদের নিয়ে কাজ করছে তিনি। তার নিজের উদ্দ্যোগে তৈরী করেছেন ‘শিশু ক্লাব’ নামের একটি সংগঠন। এই ক্লাবের মাধ্যমে প্রতিমাসে বিনামূল্যে শিক্ষা সামগ্রী, খাবার ও শিশুদের বিনোদনের জন্য খেলাধুলার আয়োজন করে থাকে। তার এই উদ্যোমী পথচলা এবং শেখা ও জানার অদম্য আগ্রহ সাংবাদিক শাকিলুর রহমানকে পৌঁছাক সেরাদের সেরা খ্যাতির চুড়োয়।
 
 
বর্তমান তিনি দেশের প্রথম সারির একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় (দৈনিক জনকন্ঠ) বিনোদন সাংবাদিক হিসাবে কাজ করছেন। এছাড়াও তিনি ডেইলি ভিউ টোয়েন্টিফোর ডটকমেও বিনোদন সাংবাদিক হিসাবে কাজ করছেন।
 
 
এছাড়াও তিনি 'এসকে মিডিয়া' নামের একটি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করেছেন। এখান থেকে চলচ্চিত্র, ওয়েব সিরিজ, নাটক ও মিউজিক ভিডিওয়ের ডিজিটাল মার্কেটিং করা হয়। যার মাধ্যমে দর্শকদের কাছে পৌঁছাতে সহায়তা করে। এছাড়াও এসকে মিডিয়া থেকে সেলিব্রেটি ইন্টারভিউ, ফিচার, সেলিব্রেটি ফেসবুক লাইভ করা হচ্ছে। ভবিষ্যতে আমাদের আরও বড় বড় কিছু পরিকল্পনা আছে।
 
== ইতিহাস পাতা ব্যবহার ==